২০, জানুয়ারী, ২০২২, বৃহস্পতিবার

অসংক্রামক রোগে আক্রান্তরা করোনার চেয়ে বেশি মানসিক চাপে

শুধু অসংক্রামক রোগে আক্রান্তদের মানসিক চাপ কোভিড-১৯ এবং অসংক্রামক রোগে আক্রান্তের থেকে বেশি। সম্প্রতি বাংলাদেশে কোভিড-১৯ ও অসংক্রামক রোগে আক্রান্ত এবং যারা শুধু অসংক্রামক রোগে আক্রান্ত- তাদের ওপর পরিচালিত একটি গবেষণায় এসব তথ্য উঠে আসে।

গত বছরের ২২ সেপ্টেম্বর থেকে ২৩ অক্টোবর গবেষণার জন্য তথ্য সংগ্রহ করা হয় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ, কুয়েত মৈত্রী হাসপাতাল এবং বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতালের কোভিড-১৯ ও অসংক্রামক রোগে আক্রান্ত এবং কমিউনিটি পর্যায়ে যারা কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়নি তাদের ওপর। প্রাপ্ত তথ্য পর্যালোচনা করলে দেখা যায় যে, জরিপে অংশগ্রহণকারী মোট ৪৪০ জনের মধ্যে ৫৩ শতাংশ কোভিড-১৯ ও অসংক্রামক রোগী এবং ৪৭ শতাংশ শুধু অসংক্রামক রোগে আক্রান্ত। ফলাফল বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীদের তুলনায় যারা কোভিড-১৯ আক্রান্ত হননি তাদের মধ্যে মানসিক চাপ বেশি।

গবেষণায় অংশগ্রহণকারী কোভিড-১৯ ও অসংক্রামক রোগে আক্রান্তদের মধ্যে ডায়াবেটিস রোগে আক্রান্তের হার ৬৫.৬৭ শতাংশ, হাইপারটেনশনে আক্রান্তের হার ৬৩.৯৫ শতাংশ, কার্ডিয়োভাসকুলার আক্রান্তের হার ১৪.১৬ শতাংশ, সিওপিডি আক্রান্তের হার ১৯.৭৪ শতাংশ, কিডনি রোগে আক্রান্তের হার ৭.৩০ শতাংশ, স্ট্রোকে আক্রান্তের হার ৩.৪৩ শতাংশ এবং ক্যান্সারে আক্রান্তের হার ২.১৫ শতাংশ। গবেষণার ফলাফল বিশ্লেষণ করে দেখা যায় যে, কোভিড-১৯ ও অসংক্রামক রোগে আক্রান্ত তাদের মধ্যে করোনা টিকা দ্বিতীয় ডোজ গ্রহণ করেছেন ৬৬.৫ শতাংশ এবং একটি মাত্র টিকা গ্রহণ করেছেন ১৬.৭ শতাংশ। অপর দিকে ৫.৮ শতাংশ, যারা কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত হননি তারা ভীতির কারণে টিকা গ্রহণ করেননি।

এই গবেষণার প্রধান গবেষক ডা: মো: শামীম হায়দার তালুকদার বলেন, যারা কোভিড-১৯-এর সময় অসংক্রামক রোগে আক্রান্ত তাদের ওষুধ কেনায় বাজার দামের চেয়েও অধিক হারে পরিশোধ করতে হয়েছে।

গবেষণা কাজটি পরিচালনা করে এনসিডি অ্যালায়েন্সের সহায়তায় বাংলাদেশ নন-কমিউনিকেবল ডিজিস ফোরাম, সেক্রেটারিয়েট এমিনেন্স অ্যাসোসিয়েটস ফর সোস্যাল ডেভেলপমেন্ট, বাংলাদেশ।

সর্বশেষ নিউজ