২০, অক্টোবর, ২০২১, বুধবার

আগুন আতঙ্কিত এলাকা পরিদর্শনে জেলা প্রশাসক

কামরুল হাসান, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিঃ ঠাকুরগাঁওয়ে একটি গ্রামে প্রায় এক-মাস ধরে দিনে তিন-চার বার আগুন ধরছে বাড়ি ঘরে। এমন ঘটনায় আতঙ্কে দিন পার করছেন এলাকার ২০টি পরিবার। ঘটনাটি ঘটছে ঠাকুরগাঁও জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার চাড়োল ইউনিনের সাবাজপুর গ্রামে।

ভুক্তভোগী পরিবারগুলোর দাবি কোনকিছু বুঝে উঠার আগেই প্রতিদিন ৩-৪ বার আগুন ধরছে বাড়ীর বিভিন্ন স্থানে। কখনো রান্নাঘরে, কখনোবা কাপড়ের ট্রাংকের ভিতর, কখনও ঘরে চালাতে আবার কখন ও বিছানায়, গত ২০ দিনে প্রায় পঞ্চাশ এর ও অধিক আগুন লেগেছে ২০ পরিবারের বাড়ী-গুলোতে। আগুন নেভানোর জন্য ইতিমধ্যে বেশ কয়েকটি বৈদ্যুতিক পাম্প স্থাপন করেছেন গ্রামের লোকজন স্থানীয় প্রশাসন ও বেক্তি-বর্গের সহযোগিতায়।

এ অবস্থায় গ্রামের ২৫টি পরিবার আতংকে দিন রাত পাহারা দিচ্ছেন বাড়ির জিনিসপত্র। ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলোর দাবি অলৌকিক ভাবে প্রতিদিন ৩-৪ বার আগুন ধরছে বাড়ীর বিভিন্ন স্থানে।
জেলা প্রশাসক ড কে এম কামরুজ্জামান সেলিম সংশ্লিস্ট সকলের সাথে কথা বলেন। তিনি প্রতিটি বাড়িতে ১ জন করে গ্রাম পুলিশ রেখে সার্বক্ষণিক পাহারার ব্যবস্হা করার জন্য ইউএনও এবং ওসিকে বলেন। বিষয়টি এর মধ্যে সুরহা না হলে ঢাকা হতে সংশ্লিস্ট দপ্তরের টীম আসবে বলে তাদেরকে অবহিত করেন। পরে জেলা প্রশাসক ক্ষতিগ্রস্ত ১০টি পরিবারের মাঝে প্রত্যেক পরিবারের জন্য ৩ বান টিন এবং ৯০০০/= করে নগদ অর্থ প্রদান করেন।

উল্লেখ্য যে, ওই গ্রামে গত মাসের ২৯ তারিখে শবে বরাতের রাতে প্রথম আগুনের সুত্রপাত হয়। ওইদিন আগুন নিয়ন্ত্রণে আনলেও পরের দিন ৩০ মার্চ আগুনে ৩টি পরিবারের ঘর-বাড়ীসহ আসবাবপত্র পুড়ে যায়। বর্তমানেও বিভিন্ন বাড়িতে আগুন লাগছে।
এসময় উপস্তিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক নুর কুতুবুল আলম, বালিয়াডাঙ্গি উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) বালিয়াডাঙ্গি, থানার দায়িত্বপালনরত অফিসার ইনচার্জ(ওসি) বালিয়াডাঙ্গি, ওসি ডিবি, ইউপি চেয়ারম্যান সহ স্থানিয়রা উপস্থিত ছিলেন।

সর্বশেষ নিউজ