৭, ডিসেম্বর, ২০২১, মঙ্গলবার

আফগানিস্তানের ত্রাস ‘মোর‍্যাল পুলিশ’ ফিরিয়ে আনছে তালেবান

আফগানিস্তান দখলের প্রায় তিন সপ্তাহ পর মঙ্গলবার অন্তর্বর্তীকালীন সরকার গঠন করেছে তালেবান। তালেবানের অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের মন্ত্রিসভায় রাখা হয়েছে পাপ-পূণ্য বিষয়ক মন্ত্রণালয়। মূলত এই মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে প্রথম দফার শাসনামলে সমগ্র আফগানিস্তানে ত্রাস সৃষ্টিকারী মোর‍্যাল পুলিশকে তালেবান ফের ফিরিয়ে আনছে বলে একটি আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

তালেবানের মুখপাত্র সুহাইল শাহীন ইংরেজি ও পশতু ভাষায় তালেবানের নিয়োগপ্রাপ্ত মন্ত্রীদের তালিকা প্রকাশ করেছেন। ইংরেজি ভাষায় যে তালিকা তিনি প্রকাশ করেছেন সেখানে পাপ-পুণ্য বিষয়ক মন্ত্রীর নাম নেই। তবে পশতু ভাষায় তালিকায় পাপ-পুণ্য বিষয়ক মন্ত্রীর উল্লেখ করেছেন তিনি। মোল্লা মোহাম্মদ খালিদকে ওই মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

তালেবানের প্রথম দফায় ১৯৯৬-২০০১ সালের শাসন আমলেও এই পাপ-পুণ্য বিষয়ক মন্ত্রী ছিল। কিন্তু ২০০১ সালে যুক্তরাষ্ট্র তালেবান সরকারকে উৎখাত করে হামিদ কারজাইকে ক্ষমতায় বসালে তিনি এই মন্ত্রণালয়ের নাম পরিবর্তন করে হজ ও ধর্ম মন্ত্রণালয় রাখেন।

এদিকে তালেবানের প্রথম দফার শাসনামলে সমগ্র আফগানিস্তানে ত্রাসের সৃষ্টি করেছিল এই মোর‍্যাল পুলিশ। সে সময় নারীদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও কর্মক্ষেত্রে অংশগ্রহণ নিষিদ্ধ ছিল। এছাড়া তালেবান সরকার যখন ক্ষমতায় আসে তখন কড়াকড়ি ভাবে বোরকা পরে মেয়েদের বাইরে বের হওয়ার নির্দেশনা জারি করা হয়। নারীরা কোনো আত্মীয় পুরুষ ছাড়া বাইরে যেতে পারবেন বলেও নির্দেশনা জারি করে তালেবান।

কেউ এই নির্দেশ না মানলে তালেবানের মোর‍্যাল পুলিশের হাতে জনসম্মুখে বেত্রাঘাতের মতো নির্মম শাস্তি পেতে হতো।

এদিকে ১৫ আগস্ট কাবুল দখল নেওয়ার পর থেকেই নিজেদের অধিকারের দাবিতে নারীরা আফগানিস্তানের বিভিন্ন প্রধান শহরগুলোতে বিক্ষোভ করছে।

এমনকি মঙ্গলবার ঘোষিত তালেবানের অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের মন্ত্রিসভায় কোনো নারীকে পদ না দেওয়ার প্রতিবাদে কাবুলে বিক্ষোভ করেছে নারীরা। বিক্ষোভ দমনে তালেবান ফাঁকা গুলি,লাঠিচার্জ,টিয়ার গ্যাস এমনকি চাবুকও ব্যবহার করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

এ ব্যাপারে আফগানিস্তানের প্রবীণ নারী অধিকারকর্মী মাহবুবা সেরাজ জানান, তালেবানরা সত্যিই মানুষকে বেত্রাঘাত করতে ভালোবাসে। নারীদের প্রতি তাদের বিতৃষ্ণা রয়েছে। কিন্তু এবার আর সেসব কাজে আসবে না। আফগানিস্তানের তরুণ সমাজ তালেবানের বেত্রাঘাতকে ভয় পায় না।

পাপ-পূণ্য বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ব্যাপারে তালেবানের মুখপাত্র সুহাইল শাহীন এক বার্তা সংস্থাকে টেলিফোনে জানান,নতুন মন্ত্রণালয় খুতবা ও ধর্ম প্রচারের দিকে মনোনিবেশ করবে।তবে নারীদের ব্যাপারে এই মন্ত্রণালয় কী ধরনের পদক্ষেপ নেবে জানতে চাইলে সে সম্পর্কে মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানিয়ে তিনি বলেন, সেটা ভবিষ্যতই বলে দেবে।

সর্বশেষ নিউজ