৪, আগস্ট, ২০২১, বুধবার

আফগানিস্তানের সঙ্গে সেই সীমান্ত খুলে দিল পাকিস্তান

আফগানিস্তানের সঙ্গে সেই স্পিন-বলদাক সীমান্ত খুলে দিয়েছে পাকিস্তান। আগামী ২১ জুলাই পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপন করতে সীমান্তটি খুলে দেওয়া হয়েছে বলে পাকিস্তান কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

আফগানিস্তান থেকে আমেরিকা এবং ন্যাটো সেনা প্রত্যাহারের মধ্যে বিদ্রোহী গোষ্ঠী তালেবান একের পর এক এলাকা দখল করছে। গত বুধবার তালেবান পাকিস্তান-আফগানিস্তান সীমান্তে অবস্থিত স্পিন-বলদাক ক্রসিং দখলে নিলে সীমান্তটি বন্ধ করে দেয় পাকিস্তান। এই ক্রসিংয়ের এক পাশে আফগানিস্তানের ওয়েশ শহর অন্যপাশে পাকিস্তানের চামান শহর অবস্থিত।

সীমান্ত খুলে দেওয়ার বিষয়ে পাকিস্তানের এক কর্মকর্তা এএফপি সংবাদ সংস্থাকে বলেন, মানবিক দিক বিবেচনায় ঈদুল আজহা উদযাপন করতে আমরা স্পিন-বলদাক সীমান্ত খুলে দিয়েছি। আগামীকাল রোববারও সীমান্ত খোলা থাকবে বলে জানা গেছে। তবে ফের সীমান্তটি কখন বন্ধ করে দেওয়া হবে খবরে সে তথ্য উল্লেখ করা হয়নি।

এএফপির খবর অনুসারে, সীমান্ত খুলে দেওয়ার পর পাকিস্তানে আটকে পড়া নারী ও শিশুসহ অন্তত ৪ হাজার মানুষ সীমান্ত পার হয়ে আফগানিস্তানে গেছেন।

আফগানিস্তানের নাগরিক মোহাম্মদ খান (৫০) পাকিস্তানের কোয়েটায় শ্রমিকের কাজ করেন। তিনি বলেন, ঈদুল আজহা উদযাপন করতে আমি আফগানিস্তানে যাওয়ার চেষ্টা করছি। কিন্তু আমাকে আবার পাকিস্তানে ফিরতে হবে। কারণ আফগানিস্তানে বেকার সমস্যা থাকায় সেখানে কোনো চাকরি পাব না।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের তথ্যানুসারে, স্পিন-বলদাক ক্রসিং অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কারণ সম্পূর্ণ স্থলভাগ পরিবেষ্টিত আফগানিস্তানে কোনো বন্দর নেই। এই ক্রসিংয়ের কাছাকাছি রয়েছে করাচি বন্দর। আমদানি রপ্তানির জন্য করাচি বন্দরের ওপর অনেকটা ভরসা করতে হয় আফগানদের। কিন্তু সীমান্ত ক্রসিং তালেবানের হাতে চলে যাওয়া মানে আফগান সরকার ব্যাপক সমস্যায় পড়বে।

বুধবার তালেবানের মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদের পোস্ট করা একটি ভিডিওতে দেখা যায়, স্পিন বলদাক সেনাঘাঁটি তাদের কবলে এবং তালেবান সদস্যরা ঘুরে বেড়াচ্ছে। কিন্তু এই ঘটনা সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছে আফগান সরকার।

সর্বশেষ নিউজ