১, জুলাই, ২০২২, শুক্রবার

আফগানিস্তান নিয়ে পাকিস্তানের উদ্দেশ্য কী?

আফগানিস্তান থেকে আমেরিকান সেনা প্রত্যাহারের দিন যত এগিয়ে আসছে, ততই ঝড়ের গতিতে একের পর এক অঞ্চলের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নিচ্ছে তালেবান। বহু আগে থেকে গুঞ্জন রয়েছে তালেবানকে সামরিকসহ বুদ্ধি-পরামর্শ দিয়ে সহযোগিতা করছে পাকিস্তান।

কিন্তু আফগানিস্তানে পাকিস্তানের উদ্দেশ্য কী, সেখানে পাকিস্তান আসলে কী চায়? বর্তমান প্রেক্ষাপটে এই প্রশ্ন উঠছে।

এ বিষয়ে লন্ডনে সোয়াস ইউনিভার্সিটির সেন্টার ফর ইন্টারন্যাশনাল স্টাডিজ অ্যান্ড ডিপ্লোম্যাসির গবেষক এবং পাকিস্তান রাজনীতির বিশ্লেষক ড. আয়েশা সিদ্দিকা বলেন, পাকিস্তানের মূল কৌশলগত লক্ষ্যই হচ্ছে আফগানিস্তানে ভারতকে যতটা সম্ভব দুর্বল করে ফেলা, অপ্রাসঙ্গিক করে ফেলা।

তার ভাষায়, ভবিষ্যতে আফগানিস্তানের রাজনৈতিক এবং নিরাপত্তা বিষয়ক নীতি নির্ধারণে ভারত যেন কোনো ভূমিকা না রাখতে পারে, সেটাই পাকিস্তানের মূল লক্ষ্য। সেই লক্ষ্য হাসিলে তালেবানই হচ্ছে পাকিস্তানের প্রধান হাতিয়ার।

কিন্তু আফগানিস্তানে ভারতের উপস্থিতি নিয়ে পাকিস্তান এতটা উদ্বিগ্ন কেন?

এ বিষয়ে প্রসঙ্গে ড. সিদ্দিকা বলেন, পাকিস্তান সবসময় বিশ্বাস করে কাবুলে আফগান সরকারের সঙ্গে যোগসাজশে ভারত পাকিস্তানে জাতিগত অসন্তোষ এবং বিদ্রোহে মদত দিচ্ছে। পাকিস্তান মনে করে ভারত পশতু জাতীয়তাবাদকে উস্কে দিচ্ছে। বালুচিস্তানে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সাহায্য করছে।

পাকিস্তানের পক্ষ থেকে বিভিন্ন সময় খোলাখুলি অভিযোগ তোলা হয়েছে- তেহরিকে তালেবান পাকিস্তান (টিটিপি) যেটা পাকিস্তানি তালেবান নামে পরিচিত ভারত আফগানিস্তানের ভেতরে প্রশিক্ষণ, অস্ত্র, অর্থ এবং আশ্রয়-প্রশ্রয় দিয়ে তাদেরকে সহযোগিতা করছে।

গত মাসে দোহায় ভারতের প্রতিনিধি যখন আফগানিস্তানে মার্কিন বিশেষ দূত জালমাই খলিলজাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কোরেশী তখন বলেন, আফগানিস্তানে ভারতের অস্বাভাবিক উপস্থিতি সন্দেহজনক। তিনি বলেন, আফগানিস্তান ভারতের সাথে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক রাখতেই পারে, ব্যবসা করতে পারে। ভারত সেখানে গিয়ে উন্নয়ন কাজ করতে পারে, তাতে পাকিস্তানের কোনো সমস্যা নেই। কিন্তু যে দেশের সাথে ভারতের সীমান্ত নেই, সেখানে তাদের এত বড় উপস্থিতি স্বাভাবিক নয়।

পাকিস্তানের মন্ত্রী বলেন, ভারত যদি আফগানিস্তানের মাটি থেকে আমাদের বিরুদ্ধে কাজ করে, সন্ত্রাসে মদদ দেয়, তা নিয়ে আমাদের চিন্তার যথার্থ কারণ রয়েছে।

মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের নিরাপত্তা বিশ্লেষক যাকারি কনস্টানটিনো বলেন, বহুদিন ধরেই ইসলামাবাদের ভয় আফগানিস্তানে ঘাঁটি গেড়ে পাকিস্তানকে ঘিরে ফেলার চেষ্টা করছে ভারত।

মার্কিন এই বিশ্লেষক বলেন, ১৯৭০ দশক থেকে পাকিস্তানের মধ্যে এই উদ্বেগ কাজ করছে এবং সে কারণে ইসলামাবাদ সবসময় চেয়েছে-কাবুলে এমন সরকার থাকুক যারা পাকিস্তানপন্থি।

বিশ্লেষকরা বলেছেন, আফগানিস্তান থেকে যুক্তরাষ্ট্র সেনা প্রত্যাহার করে নেওয়ার পর ভারতের ব্যাপারে পাকিস্তানের অবস্থান আরও শক্ত হতে পারে। কাশ্মীর নিয়ে ভারত সরকার যা করেছে তা নিয়ে পাকিস্তান খুবই ক্ষুব্ধ এবং সেই ঝাল তারা আফগানিস্তানে ঝাড়তে পারে।

সূত্র: বিবিসি বাংলা, আল জাজিরা ও তোলো নিউজ

সর্বশেষ নিউজ