১, ডিসেম্বর, ২০২১, বুধবার

আমরা অনলাইন শিক্ষায় অনেক এগিয়েছি: শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় কারিগরি ও গুণগত শিক্ষায় শিক্ষিত হতে হবে। বর্তমান সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার ফলে আমরা অনলাইন শিক্ষা ব্যবস্থায় অনেকদূর এগিয়ে গেছি। এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে আমাদের বিভিন্ন দক্ষতা অর্জন করতে হবে।

শনিবার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে সৌদি আরবে বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের আওতায় এসএসসি ও এইচএসসি শিক্ষা কার্যক্রমের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে এসব কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী।

শিক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে হলে শিক্ষার কোনো বিকল্প নেই। সৌদি আরবে উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রমের মাধ্যমে অভিবাসীরা নিজেদের দক্ষতা বৃদ্ধি করতে সক্ষম হবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের শিক্ষিত হওয়ার পাশাপাশি মূল্যবোধ, সততা, মানবিকতা অর্জন ও দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হওয়ার আহবান জানান শিক্ষামন্ত্রী।

বাংলাদেশ দূতাবাস আয়োজিত ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বিপিএম (বার)।

সভাপতির বক্তব্যে তিনি বলেন, সৌদি আরবের ভিশন ২০৩০ ও বাংলাদেশের ভিশন ২০৪১ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে দক্ষ অদক্ষ প্রবাসী শ্রমিকদের শিক্ষার মানোন্নয়ন অপরিহার্য। সৌদি আরবে যুগোপযোগী ও অধিক দক্ষতাসম্পন্ন আধুনিক শ্রমবাজার গড়ার লক্ষ্যে বাংলাদেশ দূতাবাসের প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। সৌদি আরবে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যক্রম শুরু করার লক্ষ্যে বাংলাদেশ দূতাবাস পরিকল্পনা গ্রহণ করে। এছাড়া দীর্ঘদিন থেকে সৌদি আরবে বসবাসরত অভিবাসীরা উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের আওতায় শিক্ষা গ্রহণ করার ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করে। এ পরিপ্রেক্ষিতে সৌদি আরবের জন্য শিক্ষা ফি কমিয়ে দেয়া হয়েছে। যার ফলে এসএসসিতে ৩৪ জন ও এইচএসসিতে ৭৯ জনসহ সর্বমোট ১১৩ জন শিক্ষার্থী ভর্তি হয়েছে।

রাষ্ট্রদূত জানান, খুব শিগগিরই সৌদি আরবে স্নাতক পর্যায়ের কোর্স চালু করার পরিকল্পনা ও আমাদের রয়েছে। এছাড়া, অনলাইনে আরবি ভাষা শিক্ষা, ইংরেজি ভাষা শিক্ষা ও সৌদি আরবের জন্য বিভিন্ন কাস্টমাইজ কোর্স চালু করার পরিকল্পনাও আমাদের রয়েছে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য প্রদান করেন বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম এ মান্নান। তিনি আশা প্রকাশ করেন সৌদি আরবে বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যক্রম অত্যন্ত উপযোগী ও সার্থক হবে এবং প্রবাসী বাংলাদেশিরা এতে উপকৃত হবে। তিনি সৌদি আরবে স্নাতক পর্যায়ের কোর্স চালু করার ব্যাপারে আশাবাদ প্রকাশ করেন।

অনুষ্ঠানে জেদ্দাস্থ বাংলাদেশ কনস্যুলেটের দায়িত্বপ্রাপ্ত কনসাল জেনারেল এস এম আনিসুল হক ও উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপেন স্কুলের ডীন ড. সাবিনা ইয়াসমিন বক্তব্য প্রদান করেন। সৌদি আরবের রিয়াদ, জেদ্দা, দাম্মাম ও মদিনাস্থ বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষবৃন্দ, বোর্ড অব ডাইরেক্টর্সের সদস্যরা, এসএসসি ও এইচএসসি শিক্ষা কার্যক্রমে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীরা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। দূতাবাসের প্রথম সচিব (প্রেস) মোহাম্মদ ফখরুল ইসলামের উপস্থাপনায় দূতাবাসের কর্মকর্তারা ও বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তারা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

সর্বশেষ নিউজ