centralpoint trading platform iq option binary trading robot invest 100 dollars into bitcoin stock market trading platform opensource lmax binary options trade calculator how to invest in bitcoin reddit peter jones investment bitcoin the complete cryptocurrency and bitcoin trading course paradigm crypto trading best bit mining bitcoin invest australian options trading platform can you invest in bitcoin under 18 tradersway crypto trading making a crypto trading bot python never trade binary options most profitable binary options robot bitcoin premarket trading bitcoin is good investment make money trading lending crypto borrow usdc best forex binary option system do you wanna learn bitcoin trading best crypto pairs for day trading bitcoin daily trading tips fxglory binary options review bitcoin cash investment calculator use for binary options realtime bitcoin trading eu regulated binary options brokers crypto trading bots application bitcoin investment flyer design online bitcoin trading game how risk is to invest in bitcoin crypto trading strategies course binary options trading market bitcoin volatility trading view richard neal binary options bitcoin investment is it safe nadex sell binary option before expiration biggest energy traders now trading crypto futures which broker has the best trading platform franco de binary options trading signals binary options trading platform with highest payout auto trade soft ware for binary options bitcoin trading sites in pakistan bitcoin day trading duration binary options broker affiliate program bitcoin investment coinbase binary options illegl bitcoin trading live how does fx choice promo code fx choice bitcoin trading is closed reddit best binary trading sites invest in bitcoin canada bitcoin split trading limited bitcoin crypto forex binary trading binary option class in c what is wash trading crypto black hat crypto trading ex salesman binary options reddit protected profits binary options
১৪, এপ্রিল, ২০২১, বুধবার

আলোচিতরা কেন পদোন্নতি পাননি?

র‍্যাবের সাবেক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সরোয়ার আলমের কথা মনে আছে? ক্যাসিনোবিরোধী অভিযানে তার ভূমিকা প্রশংসিত হয়েছিল।

করোনাকালে তিনিই জালিয়াত শাহেদকে গ্রেপ্তারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন। জেকেজির আরিফ আর সাবরিনাকেও তিনি সাধারণ মানুষের সামনে এনেছিলেন। এরকম নানা গুরুত্বপূর্ণ অপারেশনের মাধ্যমে আলোচনায় এসেছিলেন বিসিএস (প্রশাসন) ২৭ ব্যাচের এই কর্মকর্তা।

সম্প্রতি সরকার ৩ শতাধিক সিনিয়র সহকারী সচিবকে উপ-সচিব হিসেবে পদোন্নতি দিয়েছে। কিন্তু এই পদোন্নতির তালিকায় সরোয়ার আলমের নাম নেই। কেন তিনি পদোন্নতি পাননি, এনিয়ে কেউ মুখ খুলতে রাজী নন।

সরোয়ার আলম নানা কারণে আলোচিত। আলোচিত হবার কারণেই কি তিনি পদোন্নতি পেলেন না? এ প্রশ্ন বিভিন্ন মহলে। তবে সরোয়ারই প্রথম আলোচিত নন যিনি পদোন্নতি পাননি। ভেজালবিরোধী অভিযানের কারণে তারকা হয়েছিলেন রোকন-উদ-দৌলা। সৎ কর্মকর্তা হিসেবে তারও সুনাম আছে। কিন্তু তারও পদোন্নতি আটকে গেছে অতিরিক্ত সচিবে।

রোকন-উদ-দৌলা যখন ঢাকায় ভেজালবিরোধী অভিযান করে আলোচিত, তখন চট্টগ্রামে একই অভিযান করে প্রশংসিত হয়েছিলেন মোহাম্মদ মুনীর চৌধুরী। যিনি পরিবেশ অধিদপ্তরে এসেও আলোচিত হন। পরিবেশ সুরক্ষায় নানা অভিযানে তার ভূমিকা প্রশংসিত হয়েছিল।

বিএনপি আমলেই তিনি খালেদা জিয়ার পুত্র কোকোর লঞ্চ ঘাট ছেড়ে যাওয়ার পরেও ফিরিয়ে এনে বড় অংকের জরি’মানা করে তুমুল আলোচিত হয়েছিলেন। যুগের পর যুগ ক্ষমতাধরদের দখলে থাকা চট্টগ্রাম বন্দরের বিপুল পরিমাণ জমি উদ্ধার করেছিলেন কারো তোয়াক্কা না করেই।

এরপর তিনি যান দুদকে। দায়িত্ব পান মহাপরিচালক এবং এনফোর্সমেন্ট ইউনিটের প্রধান হিসেবে। এখানেও তার দুর্নীতিবিরোধী দৃঢ় অবস্থান প্রশংসিত হয়েছিল। কিন্তু এতো প্রশংসিত হলেও তার ক্যারিয়ারে কোন লাভ হয়নি। সচিব হতে পারেননি মোহাম্মদ মুনীর চৌধুরী। তাকে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরে ডাম্প করা হয়েছে।

এরকম আরেকজন মাহবুব কবীর মিলন। নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের দায়িত্বে থাকা অবস্থায় হোটেল রেষ্টুরেন্টে মানসম্মত খাবার এবং খাদ্যে ভেজাল রোধে দেশব্যাপী নানান পদক্ষেপ নিয়ে এক বড় পরিবর্তন নিশ্চিত করতে গিয়ে আলোচিত হন।

এরপর তাকে বদলি করা হয় রেলপথ মন্ত্রণালয়ে। সেখানে রেলের টিকেটে দালালদের দৌরাত্ম্য বন্ধে তিনি কার্যকর ভূমিকা রাখেন। কিন্তু গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলার অভিযোগে তার বিরু’দ্ধে বিভাগীয় মামলা হয়।

প্রশাসনে অনেকের প্রশ্ন, সৎ কর্মকর্তা হিসেবে স্বীকৃতি পাবার জন্যই কি তাদের এই পরিণতি? নাকি আলোচিত হওয়াটাই তাদের জন্য অভিশাপ। বিশ্লেষকরা মনে করেন, দায়িত্ব নিয়ে কাজ করলে যদি সাজা পেতে হয়, তাহলে ভবিষ্যতে এভাবে কেউই দায়িত্ব নিতে আগ্রহী হবে না। বাংলাইনসাইডার।

সর্বশেষ নিউজ