can you invest in bitcoin in an ira crypto trading for beginners pdf are binary options legal in australia international bitcoin trading platform best os for trading platform wall street trading platform usa autorized can you trade binary options on etrade binary options website for sale updated trading platform for altcoins binary options strategy pdf bitcoin investment daily return fxglory binary options review how to invest in the bitcoin market what's the smallest amount you can invest in bitcoin is it wise to invest in bitcoin cash cftc approved binary options brokers crypto trading plan best trading platform with hotkeys south korea, f1 visa, bitcoin trading trading platform for dash coin-banks bitcoin trading reviews what is the binary options market bitcoin trading glossary crypto bot trading vpsb are bitcoin investment gains taxed cftc binary options point zero trading binary options more about binary option trading daweda binary options nadex high probability trades trading bitcoin like forex after crash crypto day trading tutorials crypto currencies trading platform reddit bitcoin investment scam should we invest in bitcoin gold how do i invest money in bitcoin can i invest in bitcoin in my 401k option trading platform benefits best virtual stock trading platform bitcoin investment hashtags bitcoin futures trading on cme binary options trading options how to use traderush binary options 100 free binary options signals australian bitcoin trading exchange how to learn crypto trading brokers with best trading platform what hours are most active trading for crypto currency total market cap crypto trading view what has apple recently discontinue doing with bitcoin trading the option pro is now the time to invest in bitcoin invest in bitcoin forum python trading platform binary extra option reviews bitcoin trading is it safe difference between option trading and binary option trading online trading platform india orion trading platform dv trading crypto
১৯, এপ্রিল, ২০২১, সোমবার

‘আল্লাহ্ মারলে বাঁচানোর ক্ষমতা কারও নেই’

বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসে গোটা বিশ্বের মতো বাংলাদেশও স্থবির। অফিস-আদালত, কর্মস্থল সব বন্ধ। সর্বত্র অচলাবস্থা বিরাজ করছে। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সরকার দফায় দফায় ছুটি বৃদ্ধি করছে। সচেতন মানুষ খুব বেশি প্রয়োজন না হলে ঘর থেকে বের হচ্ছেন না। দেশে প্রতিদিনই ব্যাপক হারে বাড়ছে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। বাড়ছে মৃত্যুও। কিন্তু এরইমধ্যে ভীতি আর শঙ্কা পাশ কাটিয়ে এক শ্রেণির মানুষকে ঘর ছাড়তে দেখা যাচ্ছে। বিশেষত রাজধানী ঢাকায় এমন চিত্রেরই দেখা মিলেছে গত দু-তিন দিনে। তবে পথে পথে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কড়াকড়ি নজরদারি থাকায় এখনও স্বাভাবিক হয়নি ঢাকার প্রাণচাঞ্চল্য।

রবিবার (৩ মে) রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, গত কয়েকদিনের তুলনায় আজ ঢাকার প্রধান প্রধান সড়কসহ বিভিন্ন স্থানে লোকজনের যাতায়াত ও যানবাহন চলাচল তুলনামূলকভাবে অনেকটা বেড়েছে। গণপরিবহন চলাচল শুরু না হলেও রাস্তাঘাটে প্রাইভেটকার, পিকআপ ভ্যান, ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা চলাচলও বেড়েছে। কোথাও কোথাও মৃদু যানজটেরও দেখা মিলছে।
ত‌বে যারাই ঘর থেকে বের হচ্ছে তাদের অধিকাংশকেই স্বাস্থ্যবিধি মেনে মুখে মাস্ক, হাতে গ্লাভস এবং শরীরে পিপিই পরতে দেখা যাচ্ছে। এদিন রাজধানীর শ‌নির আখরা, যাত্রাবা‌ড়ী, কারওয়ান বাজারসহ বিভিন্ন বাজারে ক্রেতাদের বেশ ভিড় লক্ষ্য করা গেছে।

রমজান উপলক্ষে রাস্তাঘাটে ভাসমান ফলমূল ও শাক-সবজি বিক্রেতাদের ভিড় বেড়েছে। ধীরে ধীরে পাড়া-মহল্লার দোকানপাটও খুলতে শুরু করেছে। যদিও এখনও সবার মধ্যে কাজ করছে করোনার অজানা আতঙ্ক।

শ‌নির আখরার চা বি‌ক্রিতা সাইফুল ইসলাম গত এক মাস যাবত দোকান বন্ধ রে‌খে আজ পেটের দায়ে দোকান খু‌লে‌ছেন। তি‌নি ‌ব্রেকিং‌নিউজ‌কে ব‌লেন, ‘করোনার ভয়ে গত এক মা‌সেরও বেশি সময় দোকান বন্ধ ক‌রে রে‌খে‌ছিলাম। এসময় আয়-রোজগার বন্ধ থাকায় হাতের টাকা সব খরচ করে সংসার চালিয়েছি। মনে মনে আতঙ্ক থাকলেও আয়-রোজগারের আশায় দোকান খুলে বসেছি। তবে সর্তকতা থাকছি। মুখে মাস্ক ও হাতে গ্লাভস পরে বেচাবিক্রি করছি।’

শ‌নির আখরার অপর দোকানি র‌ফিকুল বলেন, ‘গত বেশকিছু দিন ঘরে বসা ছিলাম। কয়েকবার ফুটপাতে কলা বিক্রির চেষ্টা করলেও পুলিশ তাড়িয়ে দিয়েছে। ‌সেনাবা‌হিনী টহল দেয়, ভ‌য়ে বের হ‌ইন না। কিন্তু সংসার তো চালাতে হবে। বাধ্য হয়ে আজ বের হ‌য়ে‌ছি।’

রাজধানীর শ‌নিরআখরা থে‌কে যাত্রাবা‌ড়ী, জুরাইন, পোস্তু‌খোলার রাস্তাগু‌লো‌তে বেটা‌রি চা‌লিত অটোরিকশা চল‌াচল করতে দেখা যায় এদিন। অটোরিকশা চালক ম‌মিনুল ব‌লেন, ‘ঘ‌রে ব‌সে থাক‌লে না খে‌য়ে মর‌তে হ‌বে। তাই অটোরিকশা নিয়ে বের হ‌য়ে‌ছি। সবাই বের হ‌চ্ছে দেখে সাহস পাচ্ছি। আক্রান্ত হওয়ার ভয়ও আছে। কিন্তু পেট তো চালাতে হবে।’

ক‌রোনা সংক্রমণের কোনও ভয় কাজ করে কিনা- জান‌তে চাইলে তি‌নি ব‌লেন, ‘ভয় তো আছেই। দেশে প্রতিদিনই আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা বাড়ছে। কিন্তু আমাদের মতো মানুষ বেশি দিন ঘরে বসে থাকলে স্ত্রী-সন্তান না খে‌য়ে মর‌বে। সব আল্লাহর ইচ্ছা, তি‌নি য‌দি মা‌রেন বাঁচা‌নোর ক্ষমতা কা‌রও নাই।’

এ বিষয়ে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে গঠিত জাতীয় টেকনিক্যাল কমিটির একাধিক সদস্য ব্রেকিংনিউজকে জানিয়েছেন, দেশের মানুষ ভয়ে কুঁকড়ে আছে। তাদের ঘরের বাইরে আনা দরকার। মুখে মাস্ক ও হাতে গ্লাভস পরে এবং শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখাসহ প্রয়োজনীয় সর্তকতা অবলম্বন করে বাইরে বের হলে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি অনেকটাই কম। লোকজন ঘরের বাইরে বের হলে বেশি বেশি নমুনা পরীক্ষার মাধ্যমে প্রকৃতপক্ষে আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পায় কি-না তা বোঝা সম্ভব হবে বলেও মনে করেন কমিটির অনেক সদস্য।

গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগী সনাক্ত হয়। প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে ১৮ মার্চ। এরপর মার্চ মাসে আক্রান্ত ও মৃত্যু নাগালের মধ্যে থাকলেও এপ্রিলের শুরু থেকেই প্রতিদিন ব্যাপক হারে বাড়তে থাকে সংক্রমণ। গোটা দেশে ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাসে এখন পর্যন্ত মোট ৯ হাজার ৪৫৫ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন ১৭৭ জন, সুস্থ হয়েছেন ১০৬৩ জন। এর মধ্যে সবশেষ ২৪ ঘণ্টায়ই আক্রান্ত হয়েছেন ৬৬৫ জন।

সর্বশেষ নিউজ