২২, সেপ্টেম্বর, ২০২১, বুধবার

আশাশুনিতে ধান ক্ষেতের ক্ষয়ক্ষতি ও কৃষককে মারপিটের অভিযোগ

আশাশুনি ব্যুরো : আশাশুনিতে গ্রাম আদালতের রায় বাস্তবায়নের আগেই আইন অমান্য করে রোপনকৃত ধানের চারাগাছের ক্ষয়ক্ষতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। রবিবার সকালে উপজেলার বুধহাটা ইউনিয়নের হাজিডাঙ্গা গ্রামস্থ কুন্দুড়িয়া মৌজার বিলে এ ঘটনা ঘটে।

এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী আমজাদ হোসেন বাদী হয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগ সূত্রে জানাগেছে, বুধহাটা ইউনিয়নের হাজিডাঙ্গা গ্রামের মৃত আছির উদ্দিন সরদারের ছেলে হাশেম সরদার ও তার দুই ছেলে মুসলেম সরদার ও খোরশেদ সরদার অসহায় দিনমজুর আমজাদ সরদারের পৈত্রিক ও লিজ নেওয়া জমি জোরপূর্বক দখল করার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছে। নিজেকে কোন ঝামেলায় না জড়িয়ে নিজের সম্পত্তি আলাদা করতে আমজেদ সরদার কিছু মাস পূর্বে হাশেম সরদারকে বিবাদী করে বুধহাটা ব্র্যাক অফিসে একটি মামলা দায়ের করেন। কিন্তু বিবাদী চতুর হাশেম সরদার মাপ জরিপের ধার্যদিনে জমি মাপ জরিপ করতে দেবেনা বলে জানিয়ে দেয়।

পরে একই বিষয়ে বুধহাটা ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম আদালতে একটি মামলা দায়ের করা হয়। চলমান মামলার তদন্তে নালিশী জমিতে ধানের চারা রোপন করা থাকায় আদালত আগামী মার্চ মাসের ১৫ তারিখে উক্ত জমি মাপ জরিপের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এর মধ্যেই চতুর ও ভূমিদস্যু হাশেম সরদার বেআইনি ভাবে জমি নিজের দখলে নিতে রবিবার সকালে তার দুই ছেলের সহায়তায় উক্ত নালিশী জমিতে আমজেদ সরদারের রোপনকৃত ধানের চারাগাছ উপড়ে ফেলে দিতে থাকে। বিষয়টি জানতে পেরে আমজেদ সরদারের ছেলে মহসিন সরদার ও তার স্ত্রী বাঁধা দিতে গেলে তাদেরকে এলোপাতাড়ি ভাবে পিটিয়ে লিলাফোলা জখম করে ও মহসিনের পকেটে থাকা ঘেরের মালিকদের হারি দেওয়ার জন্য গোচ্ছিত ৪০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয় তারা।

ছেলেকে বাচাতে তার মা এগিয়ে গেলে তাকেও লিলাফোলা জখম ও বে-অব্রু বলে অভিযোগে প্রকাশ। অন্যদিকে নিজেদের নির্দোষ প্রমাণে বিবাদী হাশেম সরদার গং নিজেদের শরীরে জখম করে অসহায় আমজেদ সরদার গংদের বিবাদী করে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে বলে জানাগেছে।
এব্যাপারে আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হয়ে জমির ধানের ক্ষতি সাধন সহ ন্যায় বিচার পেতে ভুক্তভোগী আমজাদ আলী সরদার সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

সর্বশেষ নিউজ