২৪, অক্টোবর, ২০২১, রোববার

ইরানের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে যা বললেন হামাস প্রধান

ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় দখলদার ইসরায়েলি আগ্রাসন প্রতিরোধে ইসলামী প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস যোদ্ধাদের অস্ত্র, প্রযুক্তি ও অর্থ সহায়তা দেয়ায় ইরানের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন হামাসের রাজনৈতিক প্রধান ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইসমাইল হানিয়া। তিনি বলেছেন, ‘ফিলিস্তিনিদের বিজয়ে ইরান সবচেয়ে বড় অংশীদার।’

শুক্রবার (২১ মে) হামাস ও ইসরায়েলের মধ্যে যুদ্ধবিরতির ঘোষণার কয়েক ঘণ্টা পর গাজায় আয়োজিত এক জনসভায় দেয়া ভাষণে তিনি এ কথা বলেন।

ইসমাঈল হানিয়া বলেন, গাজা যুদ্ধে ইসরাইলের পরাজয় ভবিষ্যতে বড় পরিণতির দিকে যাবে। জেরুজালেমই হলো লড়াইয়ের মূল কারণ।

হামাস প্রধান বলেন, ইহুদিবাদীদের আগ্রাসন মোকাবেলা, জেরুজালেম, আল-কুদস ও আল-আকসার পবিত্রতা রক্ষায় আকুণ্ঠ সমর্থন দিয়েছে ইরান। তারা আমাদের বিজয়ের সবচেয়ে বড় অংশীদার। আমরা তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ। আশা করি- মধ্যপ্রাচ্যের অন্য দেশগুলোও দ্রুত গাজার মুসলিম ভাইদের সহায়তায় এগিয়ে আসবে।

সংঘাতে প্রতিরোধ সংগঠনগুলোকে আর্থিক ও সামরিক পৃষ্ঠপোষকতা দেওয়ার জন্য ইরানের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান ইসমাইল হানিয়া।

বৃহস্পতিবার ইসরাইল ও হামাসের মধ্যে যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হয়েছে। শুক্রবার রাত ২টা থেকে যুদ্ধবিরতি কার্যকর হয়।

ইসরাইলি সংবাদমাধ্যম হারেজৎ জানায়, ২০১৪ সালের পর এটিই ছিল সবচেয়ে বড় যুদ্ধ। মিসরের মধ্যস্থতায় এ যুদ্ধবিরতির পরও আল আকসা মসজিদে শুক্রবার মুসল্লিদের ওপর হামলা চালিয়েছে ইসরাইলি পুলিশ।

ইসরাইলি হামলায় ২৪৩ জন ফিলিস্তিনি নিহত হন। আর হামাসের পাল্টা রকেট হামলায় ১২জন ইসরাইলি নিহত হন। বিগত কয়েক বছরের মধ্যে এটি সবচেয়ে বড় হতাহতের ঘটনা।

সর্বশেষ নিউজ