৭, ডিসেম্বর, ২০২১, মঙ্গলবার

একটি জনবান্ধব ইউনিয়ন গড়ার লক্ষে সবাইকে নিয়ে কাজ করতে চান শামসুল হুদা বাবুল

সিরাজদিখান (মুন্সিগঞ্জ ) প্রতিনিধিঃ “চেয়ারম্যান আপনার দুয়ারে” এমন শ্লোগানকে সামনে রেখে উন্নয়নের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে একটি জনবান্ধব ইউনিয়ন গড়ার লক্ষে সবাইকে নিয়ে কাজ করতে চান দুইবারের চেয়ারম্যান নৌকার মাঝি শামসুল হুদা বাবুল ।

‘আজ উন্নয়নের একটি রোল মডেল হিসেবে বিশ্বের মানচিত্রে বাংলাদেশ মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে। দেশে উন্নয়নের জোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। আওয়ামী লীগ সরকার আছে বলেই, নৌকার সরকার আছে বলেই এই উন্নয়ন। এই উন্নয়নের ধারা বজায় রাখতে হবে। এজন্য আগামীতে নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে উন্নয়নকে বেগবান করার সুযোগ দিতে হবে এবং দলীয় নেতাকর্মীদের নৌকার বাহিরে যাওয়ার কোন সুযোগ নেই ’বলে ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ।

মুন্সিগঞ্জ জেলা জুড়েই বইছে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনী হওয়া। পিছিয়ে নেই জেলার প্রান্তিক এলাকা চিত্রকোট ইউনিয়নও । উপজেলার চিত্রকোট ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আবারও চেয়ারম্যান পদে দলীয় মনোনয়ন পেলেন ইউনিয়ন আ’লীগ এর টানা ৩ বারের সভাপতি ও বর্তমান (২বারের) ইউপি চেয়ারম্যান শামসুল হুদা বাবুল।

তিনি গত ইউপি নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হিসাবে নৌকা প্রতীকে ভোট যুদ্ধে বিপুল ভোটে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

এলাকাবাসী জানান, শামসুল হুদা বাবুলের নেতৃত্বের কারণেই চিত্রকোট ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সুসংগঠিত হয়েছে। আর ২০১৬ সালে তিনি এলাকার মানুষের ভালোবাসা ও সহযোগিতায় চিত্রকোট ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকার মাঝি হয়ে বিপুল ভোটে নির্বাচিত হয়ে এলাকার সার্বিক উন্নয়ন করতে সক্ষম হন।

বিশেষ করে করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় তিনি ঘরে ঘরে খবর নেয়ার চেষ্টা করেছেন, এলাকায় ছোট বড় অসংখ্য রাস্তা ও কালভার্ট নির্মাণে বিশেষ ভূমিকা রেখেছেন,অসংখ্য সমস্যার সমাধান করেছেন যাতে মামলা মোকদ্দমা থেকে জনগণ রেহাই পান, গ্রাম্য শালিসের মাধ্যমে গ্রামেই মিমাংসা করার চেষ্টা করেছেন এতে কোন পক্ষ থেকেই তিনি ঘুষ বানিজ্য করেননি,সাধারণ মানুষ যাতে তাকে খুব সহজেই পান এজন্য তিনি পরিবার পরিজন রেখে এলাকায় ২৪ ঘন্টা থাকেন । আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ এর আওতায় গৃহহীন অসহায় মানুষকে গৃহ নির্মাণ করে দেয়ার তালিকা পাঠান এবং বাল্যবিয়ে বন্ধে তার ভূমিকা এলাকার মানুষের ব্যাপক প্রশংসা কুড়ায়। ইউনিয়নের অসহায় গরিবদের বিভিন্ন সমস্যায় সহায়তা প্রদান করেন।

তাছাড়া এলাকায় ছড়িয়ে পড়া মাদক, সুদ, জুয়া বন্ধ করতে ইউনিয়নবাসীদের সাথে নিয়ে তিনি তা নির্মূল করতে সচেষ্ট রয়েছেন। শিক্ষা ব্যবস্থার মানোন্নয়ন,স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা ব্যবস্থা উন্নিত করণে বিশেষ ভূমিকা পালন, সুপেয় পানি সরবরাহ ৭০ থেকে ৮০ ভাগ উন্নতি করণ, বিদ্যুৎ ও স্যানিটেশন ব্যবস্থা শতভাগ নিশ্চিত করণ, শতভাগ ভিক্ষুক মুক্ত করণসহ বিভিন্ন সামাজিক ও উন্নয়ন মুলক কর্মকান্ডের স্বীকৃতি স্বরূপ বিভিন্ন পুরস্কার, সম্মাননা স্মারক ও পদক পেয়েছেন ।

তাই এলাকাবাসীর দাবি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বর্তমান চেয়ারম্যান শামসুল হুদা বাবুলকে আবারও নৌকায় ভোট দিয়ে চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার চলমান উন্নয়ন কর্মকাণ্ড সফল ভাবে তিনি চালিয়ে যেতে পারেন।

বর্তমান চেয়ারম্যান শামসুল হুদা বাবুল ইউনিয়নের প্রতিটি গ্রামের সাধারণ মানুষের কাছে ভোট চান এবং তাকে পূনরায় নির্বাচিত করার জন্য প্রতিশ্রুতি চান। তিনি ইউনিয়নের মসজিদ-মাদ্রাসা, প্রতিটি পূজা মন্ডবসহ সামাজিক ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে ঘুরে বেড়াচ্ছেন, ব্যক্তিগত ও সরকারী সহায়তা প্রদান করছেন। পূর্বের কায়দায় একা একাই তিনি যাচ্ছেন জনগণের দোড়গোড়ায়, কার কি সেবা লাগবে জানতে চাচ্ছেন এবং জনগনের মতামত চাচ্ছেন ।

তার এবারের নির্বাচনী ইসতেহারে থাকছে “চেয়ারম্যান আপনার দুয়ারে” এমন শ্লোগান। তিনি আগের মত এবারও চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে জনগণকে চেয়ারম্যানের নিকট আসতে হবেনা বরং চেয়ারম্যানই যাবে জনতার দুয়ারে । ২০১৩- ২০১৪ ইং সালে মুন্সীগঞ্জ জেলার শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যানও নির্বাচিত হন এ সহজ সরল নেতা ।

চিত্রকোট ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস,এম জুয়েল বলেন- আমরা নৌকার লোক । আমরা নৌকার সাথেই আছি । দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনা যাকে মনোনয়ন দিয়েছেন আমরা তার সাথেই আছি ।

চিত্রকোট ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক উজ্জ্বল দেওয়ান বলেন, আমরা জন্মলগ্ন থেকেই আওয়ামী পরিবারের লোক । আমরা আগেই বলেছি নৌকা যে পাবে আমরা তার কাজ করব । আমরা নৌকার সাথে কোনদিন গাদ্দারী করিনি যতদিন বেঁচে থাকব নৌকার বিরুদ্ধে যাব না ।

৯ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সভাপতি শহীদুল খান বলেন,আমরা বিশ্ব নেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার রাজনীতি করি। আ.লীগের রাজনীতি করি। আর আ. লীগের প্রতিক হচ্ছে নৌকা। জননেত্রী শেখ হাসিনা যাকে নৌকা দিয়েছেন আমরা তার পক্ষেই কাজ করবো।

চিত্রকোট ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার ইয়াকুব খান বলেন, যারা মনোনয়ন চেয়ে ব্যর্থ হয়েছেন তাদের অনুরোধ করব দলের গঠণতন্ত্র মেনে চলুন । নিজেদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝির অবসান ঘটিয়ে আসুন আমরা সকলে নৌকার পক্ষে কাজ করি । নৌকা আপনি চাইতেই পারেন সেটা অপরাধ নয়, অপরাধ হলো নৌকার বিরুদ্ধে যাওয়া ।

এ ব্যাপারে চেয়ারম্যান শামসুল হুদা বাবুল বলেন, জনগণের ভোটে দুই (২) বার ইউনিয়ন চেয়ারম্যান হয়েছি একজন চেয়ারম্যান হিসেবে যতটুকু দায়িত্ব পালন করার কথা আশা করি আমিও এর ব্যতিক্রম করিনি । আমি এত বছর চেয়ারম্যান থাকাবস্থায় আমার ছেলে বা ভাই বা আমার পরিবারের কোন লোক বা আমার কর্মীরা কারও সাথে কোন খারাপ আচরন থেকে শুরু করে কোনরুপ অপকর্ম লিপ্ত থাকেনি । আমার ছেলে মেয়েদের উচ্চ শিক্ষার জন্য আমার স্ত্রী সন্তানরা ঢাকায় থাকেন আর আমি আমার জনগণের কথা চিন্তাভাবনা করে ২৪ ঘন্টাই এলাকায় থাকি । আমি জন্মসূত্রে আওয়ামী লীগ পরিবারের সন্তান। আমার চাচা মুক্তিযোদ্ধে নিখোঁজ হন । আমরা বঙ্গবন্ধুর হাত থেকে ১৯৭২ সালে ১২৫ টাকা সাহায্য পেয়েছি । ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসাবে দলীয় কর্মসূচী ও সাংগঠনিক সকল কর্মকান্ড সততা ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করে আসতেছি।
আমার ২বারের চেয়ারম্যান থাকাকালীন সময়ে যদি কথার মাধ্যমে বা অন্য কোন উপায়েও কাউকে দুঃখ দিয়ে থাকি বা ক্ষতি হয়ে থাকে তাহলে আমার অনিচ্ছাকৃত ভুলের জন্য আমাকে ক্ষমা করবেন বলে আশা রাখি ।

তিনি আরও বলেন, স্বাধীনতা, গণতন্ত্র, উন্নয়ন আর অগ্রগতির প্রতীক নৌকা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালী করার লক্ষে এবং এই উন্নয়নের অগ্রযাত্রাকে অব্যাহত রাখতে নৌকায় ভোট দিন। আমি গত দশটা বছর নিরলস পরিশ্রম করেছি আমার প্রাণাধিক চিত্রকোট ইউনিয়নের উন্নয়ন সাধন করতে। কতটা সফল হয়েছি সেটা মূল্যায়ন করার দায়িত্ব আপনাদের উপরই ছেড়ে দিলাম। তবে একটা ব্যাপার উপলব্ধি করেছি-যে শ্রদ্ধা, সম্মান আর ভালোবাসা আপনারা আমায় দিয়েছেন সেই কৃতজ্ঞতার মূল্য আমি কিভাবে দেবো এবং সেই ভালোবাসার ঋণ আমি কিভাবে শোধাব? আসলে ভালোবাসার ঋণ আমি আপনাদের ভালোবেসেই শোধ করে দিবো ইনশাআল্লাহ।

স্বাধীন বাংলাদেশে যে কারোরই নির্বাচন করার অধিকার আছে। যে কেউ প্রার্থী হতে পারে এবং সেই গণতান্ত্রিক অধিকার তাঁর আছে। তবে সম্মানিত ভোটারদের কাছে আমার বিনীত অনুরোধ যিনি যোগ্য, মার্জিত, জনবান্ধব, নিরলস পরিশ্রমী, মেধাবী, সৎ, দুর্নীতি মুক্ত এবং ক্লিন ইমেজের মানুষ আপনার মহামূল্যবান ভোটটি শুধু তাঁর জন্যই হোক। আমি শুধু একটা কথাই বলতে পারি জীবনে আমি একটি টাকাও ঘুষ খাইনি, কারো প্রতি জুলুম করিনি এবং একটি জলাশয় দিয়ে ভরপুর আর ডোবা ইউনিয়নকে কিভাবে ঢেলে সাজিয়েছি সেটা আপনারা বিবেচনা করবেন। তবে হ্যাঁ দুই একটা জায়গায় আশানুরূপ কাজ করতে পারিনি। সত্যিকার অর্থে সব কাজ তো একবারে শেষ করা যায় না। কথা দিচ্ছি এবার যদি আপনারা আমায় আপনাদের জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত করেন আর মহান আল্লাহ তায়ালা যদি আমার উপর দয়াপরবশ হয় আমি কথা দিচ্ছি আমার অসমাপ্ত কাজ গুলো তো শেষ করবোই সেই সাথে সবার সম্মিলিত মতামতের উপর ভিত্তি করে একটি জনবান্ধব ইউনিয়ন গড়ার লক্ষে আপনাদের সবাইকে নিয়ে কাজ করবো ইনশাআল্লাহ। আশা করছি বরাবরের মতই সাথে থাকবেন আর আমায় ফিরিয়ে দিবেন না দয়া করে।

আসন্ন ৪র্থ ধাপে ২৬ ডিসেম্বর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নে নির্বাচনী হাওয়া বেশ জমে উঠেছে।৪র্থ ধাপের তফসিল ঘোষণা করায় নেতা-কর্মীদের মধ্যে নির্বাচনের আমেজ বিরাজ করছে।নির্বাচনে অংশ নিতে ইচ্ছুক প্রার্থীরা এরই মধ্যে অনানুষ্ঠানিক প্রচার প্রচারণা শুরু করেছেন।

সিরাজদিখানে চিত্রকোট ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে এলাকাবাসীর উন্নয়ন ও আধুনিক চিত্রকোট ইউনিয়নের গড়ার লক্ষ্যে সমাজ থেকে মাদক, সন্ত্রাস, ইভটিজিং বাল্যবিয়ে নির্মুলে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী নৌকা প্রতীক নিয়ে এগিয়েছে শামসুল হুদা বাবুল ।

তিনি বৃহস্পতিবার ২৫ নভেম্বর সকাল ১০ টায় উপজেলার নির্বাচন কমিশনে এই মনোনয়ন ফরম জমা দেন।

সর্বশেষ নিউজ