২৪, অক্টোবর, ২০২১, রোববার

‘ওদের বাবাও গ্রেফতার করতে পারবে না’, প্রশাসনকে চ্যালেঞ্জ রামদেবের

অ্যালোপ্যাথি ও আধুনিক চিকিৎসা ব্যবস্থা নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য যোগগুরু রামদেবের বিরুদ্ধে এক হাজার কোটি টাকার মানহানির মামলা দায়ের করা হয়েছে। এবার তাকে গ্রেফতার করা নিয়ে সরাসরি প্রশাসনকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছেন রামদেব। তিনি বলেছেন, ‘স্বামী রামদেবকে ওদের বাবাও গ্রেফতার করতে পারবে না।’

বৃহস্পতিবার একটি ভিডিওতে তাকে এই কথা বলতে শোনা গেছে।

কেন্দ্রীয় সরকারের দিকে ইঙ্গিত করে যোগগুরু বছেন, ‘স্বামী রামদেবকে ওদের বাবাও গ্রেফতার করতে পারবে না। ওরা ‘ঠগ রামদেব’, ‘মহাঠগ রামদেব’, ‘গ্রেফতার রামদেব’ এ সব ট্রেন্ড করাচ্ছে নেটমাধ্যমে। ওরা এ রকম করুক। আমার লোকেরা এ সব দেখে অভ্যস্ত।’

সম্প্রতি একটি অনুষ্ঠানে রামদেবকে বলতে শোনা গেছে, করোনা পরিস্থিতিতে ভারতে লাখ লাখ মানুষ মারা গেছেন শুধু অ্যালোপ্যাথি ওষুধের জন্য। অক্সিজেন ঘাটতির কারণে বা চিকিৎসা না পেয়ে যত মৃত্যু হয়েছে, তার থেকে অনেক বেশি এই সংখ্যা।

শুধু তা-ই নয়, অ্যালোপ্যাথিকে ‘দেউলিয়া হয়ে যাওয়া’ এবং ‘বোকা বোকা চিকিৎসা পদ্ধতি’ বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

করোনা মহামারির মধ্যে এই ভিডিও সামনে আসায় প্রবল সমালোচনা শুরু হয়। রামদেবকে আইনি নোটিস পাঠায় ইন্ডিয়ান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন। যোগগুরুর বিরুদ্ধে দেশদ্রোহের মামলা দায়ের করার আরজি জানিয়ে সরাসরি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে চিঠিও লিখেছে সংগঠনটি।

যোগগুরুকে পাঠানো নোটিসে আইএমএ জানিয়েছে, ভিডিও বার্তায় অ্যালোপ্যাথিক ওষুধ নিয়ে নিজের বিবৃতি বদলাতে হবে এবং ক্ষমা চাইতে হবে তাকে। এর জন্য তাকে ১৫ দিন সময় দেওয়া হয়েছে। রামদেব ক্ষমা না চাইলে এক হাজার কোটি টাকা দাবি করা হবে।

সর্বশেষ নিউজ