২০, মে, ২০২২, শুক্রবার

করোনার অশনিসংকেত: ৩৭১ ইউপির ভোটে ‘অনিশ্চয়তা’

একদিনে সর্বোচ্চ আক্রান্তে গতকাল সোমবার আগের সব রেকর্ড ভেঙে গেছে। সোমবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, আগের ২৪ ঘণ্টায় ৫ হাজার ১৮১ জন আক্রান্ত হয়েছেন, মৃত্যু হয়েছে আরও ৪৫ জনের। একইদিন করোনা পরিস্থিতির মোকাবিলায় সরকারের পক্ষ থেকে ১৮ দফা জরুরি নির্দেশনা জারি করা হয়েছে। সেইসঙ্গে বেশি সংক্রমিত এলাকায় জনসমাগম নিষিদ্ধসহ রাত ১০টার পর প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে বের না হতে বলা হয়েছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের এ সংক্রান্ত প্রস্তাবের পর প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে এমন নির্দেশনা জারি হয়েছে।

করোনার এমন আগ্রাসী পরিস্থিতিতে আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচন নিয়ে চিন্তায় পড়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। গতকাল ৩৭১টি ইউপিতে ভোটগ্রহণকে সামনে রেখে জরুরি বৈঠকে বসেছিল কমিশন কর্মকর্তারা। প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ সেই বৈঠকে চার নির্বাচন কমিশনার ও কমিশন সচিবও উপস্থিত ছিলেন।

কোভিড-১৯ মহামারির এই কঠিন সময়ে ৩৭১টি ইউপিতে ভোটগ্রহণ হবে কি হবে না, এ নিয়ে বৈঠকে কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি। আগামী কমিশন বৈঠকে এ নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসতে পারে।

বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, বৈঠকে নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার ছাড়া বাকি চার কমিশনার ও কমিশন সচিব উপস্থিত ছিলেন। ৫ জনই আগামী ১১ এপ্রিল অনুষ্ঠিতব্য ৩৭১টি ইউপি ও ১১ পৌরসভার ভোগ স্থগিতের পক্ষে মত দিয়েছেন।

জানা যায়, ১১ এপ্রিল ইউপি ভোট না হলেও আগামী ৩১ মার্চ দেশের ৪ পৌরসভায় ভোট অনুষ্ঠিত হবে। যশোর সদর ও মাদারীপযুরের কালকিনি পৌরসভায় সব পদে এবং ঠাকুরগাঁও সদর ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ পৌরসভায় একটি করে সাধারণ ওয়ার্ডেও ভোট হবে। বৈঠকে কমিশন কর্মকর্তারা এতে মত দিয়েছেন। অন্যদিকে ১১ এপ্রিলের ইউপি ভোট স্থগিত হলে তা ঈদুল ফিতরের আগে হওয়ার সুযোগ নেই বলেও বৈঠক সূত্র জানিয়েছে।

১১ এপ্রিল লক্ষ্মীপুর-২ আসনের উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে কি হবে না তা নিয়েও অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে। একইদিনে ১১টি পৌরসভায় ভোট হওয়ার কথা রয়েছে। সেটিও নিয়েও কথাবার্তা চলছে।

এদিকে ৩১ মার্চের ৪ পৌরসভা নির্বাচনের প্রচার শেষ হচ্ছে সোমবার মধ্যরাতে। ৩১ মার্চের চার পৌরসভায় মোটরসাইকেল চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। এক্ষেত্রে ৫৪ ঘণ্টার জন্য বাইক চলাচল বন্ধ থাকবে। আর ভোটের দিন সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ থাকবে।

ইসি ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, ১১ এপ্রিল ৩৭১ ইউপি ও ১১টি পৌরসভায় ভোটের দিন ধার্য রয়েছে। গেল বছরও করোনা মহামারির কারণে বেশ কিছু নির্বাচন স্থগিত করেছিল নির্বাচন কমিশন।

গত ২৫ মার্চ ইসির মাঠপর্যায় থেকে পাঠানো তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, আসন্ন দশম ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের প্রথম ধাপে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ৬৯ জন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। এছাড়াও সাধারণ সদস্য পদে ৬৩ জন ও সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ৬ জনসহ তিন পদে মোট ১৩৮ জন বিনাভোটে বিজয়ী হয়েছে।

আগামী ১১ এপ্রিল দেশের ১৯ জেলার ৬৪ উপজেলার ৩৭১ ইউপিতে প্রথম ধাপে ভোটগ্রহণের তারিখ চূড়ান্ত রয়েছে। প্রথম ধাপে চেয়ারম্যান পদে ২৭২ জন, সাধারণ সদস্য পদে ৬৮৫ জন এবং সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ৯৫ জন তাদের মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নিয়েছেন।

ইসির উপসচিব (নির্বাচন পরিচালনা শাখা-২) মো. আতিয়ার রহমান জানিয়েছেন, প্রথম ধাপে চেয়ারম্যান, সাধারণ সদস্য ও সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ১ হাজার ৫২ জন মনোনয়ন প্রত্যাহার করেছেন। এখন প্রথম ধাপে ৩৭১ ইউপিতে তিন পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন ১৯ হাজার ২১২ জন। এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ১ হাজার ৪৩৭ জন, সাধারণ সদস্য পদে ১৩ হাজার ৫৯৪ জন ও সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ৪ হাজার ১৮১ জন ভোটে আছেন।

সর্বশেষ নিউজ