৭, জুলাই, ২০২২, বৃহস্পতিবার

কোনো জাতিই ইতিহাসে এমনটি করেনি: বাইডেন

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, আফগানিস্তান থেকে এক লাখ ২০ হাজারেরও বেশি মানুষকে দেশটি থেকে নিরাপদে সরিয়ে এনেছে যুক্তরাষ্ট্র, যা ইতিহাসে এর আগে কোনো জাতিই করেনি।

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার হোয়াইট হাউস থেকে দেশবাসীর উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট এসব কথা বলেন।

বাইডেন বলেন, আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রের ২০ বছরের যুদ্ধের অবসান হয়েছে, যা ছিল যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসের দীর্ঘতম যুদ্ধ।

‘আমরা দেশটি থেকে এক লাখ ২০ হাজারের বেশি মানুষ নিরাপদে সরিয়ে এনেছি। বিশেষজ্ঞদের ধারণার চেয়ে যা দ্বিগুণ। কোনো জাতি, কোনো জাতিই ইতিহাসে এর আগে এরকম কাজ করেনি। শুধু যুক্তরাষ্ট্রের সক্ষমতা, ইচ্ছা ও যোগ্যতা ছিল তা করার এবং আমরা তা করেছি’, যোগ করেন বাইডেন।

বাইডেন বলেন, আমাদের সেনা, কূটনীতিক ও গোয়েন্দাদের দক্ষতা এবং সাহসিকতার কারণে আমরা এ অসাধারণ সফলতা অর্জন করতে পেরেছি। তারা বেশ কয়েক সপ্তাহ ধরে আমেরিকার নাগরিক, সেসব আফগান যারা সেখানে এতদিন আমাদের সহযোগিতা করেছে, তাদের নিরাপদে দেশত্যাগে সহযোগিতা করেছে। মিশনে প্রায় ২০ সেনাসদস্য আহত হয়েছেন এবং ১৩ জনের প্রাণ গেছে।

তিনি আরও বলেন, এপ্রিলে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম ৩১ আগস্টের মধ্যেম সব সেনা প্রত্যাহার করে নেওয়া হবে আফগানিস্তান থেকে। ধারণা করেছিলাম, আফগান ন্যাশনাল সিকিউরিটি ফোর্সের তিন লাখ সদস্য তালেবানের শক্তিশালী প্রতিপক্ষ হবে। কিন্তু বাস্তবে তা হয়নি।

দেশটিতে এখনও এক থেকে দুশর মতো মার্কিন নাগরিক রয়ে গেছেন বলে জানান বাইডেন।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট আরও বলেন, যুদ্ধটা অনন্তকাল চালিয়ে যেতে চাইনি আমি। তেমনি অনন্তকালের জন্য সেখান থেকে আমরা চলে আসিনি। আফগানিস্তান বিষয়ে নেওয়া সিদ্ধান্ত শুধু আফগানিস্তান নিয়ে নয়। অন্য দেশ পুনর্গঠনে বড় ধরনের সামরিক অভিযান যুগের সমাপ্তি। এটিই সঠিক সিদ্ধান্ত। আমেরিকার জন্য সবচেয়ে ভালো সিদ্ধান্ত।

২০০১ সালে তালেবানকে হটিয়ে আফগানিস্তানে জঙ্গি দমনে হামলা চালায় যুক্তরাষ্ট্র। দীর্ঘ ২০ বছর পর দেশটিতে থেকে সেনা প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে পুনরুত্থান ঘটেছে তালেবানের। ১৫ আগস্ট কাবুলের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর এখন তারা আফগানিস্তানে সরকার গঠনের অপেক্ষায়।

সর্বশেষ নিউজ