২৭, অক্টোবর, ২০২১, বুধবার

ক্ষমতার রাজনীতিতে টালমাটাল ইসরাইল

ইহুদিবাদী ইসরাইলের বিরোধী রাজনীতিক নাফতালি বেনেট ও ইয়াইর লাপিড জোট সরকার গঠনের ঘোষণা দিয়েছেন। এতে ক্ষমতা হারানোর পথে রয়েছেন যুদ্ধবাজ প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। তিনি দীর্ঘ ১২ বছর ধরে দখলদার ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। খবর পার্সটুডে’র।

ইসরাইলের বিরোধী দলগুলো তার বিরুদ্ধে জোট বেধেছে। এই জোট সংসদে আস্থাভোটে টিকে গেলে নেতানিয়াহুর সামনে আর কোনো বিকল্প থাকবে না। তাকে বাধ্য হয়ে ক্ষমতা তুলে দিতে হবে ইয়ামিনা পার্টির নেতা নাফতালি বেনেটের কাছে। আর যদি আস্থা ভোটে বিরোধী জোট সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পায় তাহলে ইসরাইল আবার রাজনৈতিক সঙ্কটে পড়বে। দুই বছরের মধ্যে সেখানে ৫ম বারের মতো সংসদ নির্বাচন হবে।

গতকাল (বুধবার) রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত ইয়ামিনা পার্টির বেনেট সময় পেয়েছিলেন নতুন সরকার গঠনের জন্য। এ সময়ের মধ্যে শেষ দু’তিনদিন তিনি এবং ইয়েশ আতিদ পার্টির নেতা ইয়াইর লাপিড অন্য দলগুলোর সঙ্গে একের পর এক বৈঠক করেন। এরপর আটটি দলের সমন্বয়ে জোট গঠনের ঘোষণা দিয়েছেন তারা। নাফতালি বেনেট ও ইয়াইর লাপিডের মধ্যকার চুক্তি অনুযায়ী, সরকার গঠন করে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ক্ষমতার মেয়াদের অর্ধেক সময় এ পদে থাকবেন প্রথমে নাফতালি বেনেট। বাকি অর্ধেক সময় প্রধানমন্ত্রী হবেন ইয়াইর লাপিড। এক বিবৃতিতে লাপিড বলেছেন, তিনি তাদের চুক্তির বিষয়ে প্রেসিডেন্ট রুভেন রিভলিনকে অবহিত করেছেন।

প্রেসিডেন্টের কাছে দেয়া নোটে ইয়াইর লাপিড বলেছেন, নাফতালি বেনেটের পাশাপাশি তিনিও দায়িত্ব পালন করে যাবেন। বেনেট প্রথম দফায় প্রধানমন্ত্রী থাকবেন। এরপর তিনি ২০২৩ সালের ২৭ আগস্ট ক্ষমতা হস্তান্তর করবেন লাপিডের কাছে। এ পরেপ্রেক্ষিতে প্রেসিডেন্ট রিভলিন আস্থা ভোটের জন্য যত দ্রুত সম্ভব সংসদ অধিবেশন আহ্বান করেছেন। যদি এই জোট ইসরাইলের সংসদ নেসেটে সংখ্যাগরিষ্ঠ সদস্যের আস্থা অর্জন করে তাহলে সরকার গঠন তাদের হাতেই হবে। সংখ্যাগরিষ্ঠতা দেখাতে তাদেরকে পেতে হবে কমপক্ষে ৬১ ভোট।

সর্বশেষ নিউজ