২০, অক্টোবর, ২০২১, বুধবার

তিন বোলারের ইতিহাসে ইনিংসে জিতলো পাকিস্তান

হারারেতে একক আধিপত্যেই প্রথম টেস্ট ইনিংসে জিতেছিল পাকিস্তান। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টেও একই পুনরাবৃত্তি করে দেখালো সফরকারীরা। শেষ টেস্ট পাকিস্তান জিতেছে এক ইনিংস ও ১৪৭ রানে। ফলে দুই টেস্টের সিরিজ ২-০ তে নিশ্চিত করেছে সফরকারীরা।

গতকালকেই বোঝা গিয়েছিল টেস্টের চতুর্থ দিন কী হতে যাচ্ছে। খালি দেখার ছিল জিম্বাবুয়ের প্রতিরোধ কতক্ষণ টেকে। শুরুতে স্বাগতিকদের শেষ জুটিকে দৃঢ়চেতা মনে হলেও মাত্র ৫ ওভারই টিকতে পেরেছে এই প্রতিরোধ। শাহীন আফ্রিদি ফলোঅনে পড়ে যাওয়া জিম্বাবুয়ের শেষ উইকেটটি তুলে নিলে স্বাগতিকরা দ্বিতীয় ইনিংসে গুটিয়ে যায় ২৩১ রানে।

অবশ্য এর আগে ভালোই প্রতিরোধ দেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন পেসার বলে পরিচিত লুক লঙউই। ৭০ বলে ৩৭ রান করা এই জিম্বাবুইয়ানকে গ্লাভসবন্দি করান শাহীন। তাতেই এই টেস্টের তৃতীয় বোলার হিসেবে ৫ উইকেট পেয়েছেন তিনি। শাহীনের এই অর্জনে অনন্য এক কীর্তিও গড়েছে পাকিস্তান। এই প্রথম কোনও টেস্টে পাকিস্তানের তিন বোলার নিয়েছেন ৫ উইকেট।

প্রায় দেড়শ বছরের টেস্ট ইতিহাসে মাত্র ছয়বার একই ম্যাচে কোনো দলের তিন বোলার ফাইফার নিতে পেরেছেন। সবশেষ ১৯৯৩ সালে এমন ঘটনা দেখেছিল টেস্ট ক্রিকেট। প্রায় ২৮ বছর পর এ তালিকায় নাম তুললো পাকিস্তান ক্রিকেট দল।

জিম্বাবুয়েকে গুঁড়িয়ে দিয়ে সিরিজ জেতার পথে দ্বিতীয় ম্যাচের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছেন আবিদ আলী। ম্যাচের একমাত্র ইনিংসে ২১৫ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেছেন তিনি। এছাড়া দুই ম্যাচে দুইটি ফাইফার নিয়ে সিরিজসেরার পুরস্কার জিতেছেন হাসান আলী।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

পাকিস্তান: ৫১০/৮ ডি. (আবিদ ২১৫*, আজহার ১২৬, নুমান ৯৭; মুজারাবানি ৩/৮২)

জিম্বাবুয়ে: ১৩২ (চাকাভা ৩৩; হাসান আলী ৫/২৭) ও ২৩১ (চাকাভা ৮০, টেলর ৪৯; শাহীন ৫/৫২, নুমান ৫/৮৬)।

সর্বশেষ নিউজ