৩, ডিসেম্বর, ২০২১, শুক্রবার

দিনাজপুরে করোনা চিকিৎসা দিতে হিমশিম খাচ্ছে মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল

মোঃ আব্দুস সাত্তার, দিনাজপুর জেলা প্রতিনিধি: বর্তমানে বৈশ্বিক পরিস্থিতির কারণে দিনাজপুরসহ পার্শ্ববর্তী জেলায় করোনা রোগীর সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাওয়ায় দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা প্রদান করতে হিমশিম খাচ্ছেন মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে বর্তমানে ২৭ জন করোনা রোগী ভর্তি রয়েছে এছাড়াও করোনা উপসর্গ নিয়ে আরোও ৩৪ জন ভর্তি রয়েছে। অনেকেই চিকিৎসা নিচ্ছেন বাডিতে ।
দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসাতালেরর নিবির পর্যবেক্ষন কেন্দ্র (আইসিইউ) এর প্রতিটি বেড ভর্তি রয়েছে নেই কোন খালি বেড। প্রতিটি আইসিইউতে রোগী ভর্তি রয়েছে। নতুন কোন রোগীর জন্য কোন বেড খালি না থাকায় দুঃচিন্তায় রয়েছে কর্তৃপক্ষ।

দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতারের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক ডাঃ আবু রেজা মোঃ মাহমুদুল হক জানান, দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৬ টি আইসিইউ বিছানা ও আরোও ডাইলেসিস রোগীর জন্য আরোও দুটি আইসিইউ বেড আছে । হাই ডিপেন্টডিড রোগীদের জন্য ৯ টি আইসিইউ বেড আছে। ফ্লু কর্নারে আরোও ৩৪ টি বেড এবং করোনা রেড জোনের জন্য আরোও ১০ টি বেড এবং ৪ ভ্যান্টিলেটার রয়েছে। সব মিলে ৭০টির মত বেড রয়েছে । তবে প্রতিটি বেড এখন ভর্তি রয়েছে । এছাড়া আরোও ৩০ টি বেড তৈরীর নির্দেশনা আমাদেরকে দেওয়া হয়েছে। করোনা রোগীর জন্য আরোও অস্থায়ী ভিত্তিতে কিছু বেড স্থাপন করা হয়েছে। বর্তমানে সকল ধরনের রোগীর চাপ বেশি থাকায় চিকিৎসক ও নার্সের সংকট রয়েছে।

এর পরেও দিনাজপুরে লকডাউন মানছে না সাধারণ মানুষ। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত হাট বাজারে চলছে কেনা কাটা। লকডাউনের কোন বালাই নেই। যানজোট নিরসনে ট্রাফিক পুলিশ কে হিমশিম খেতে হচ্ছে। শহরে মাস্ক ব্যবহার হলেও গ্রামে লোকাজন মাস্ক ব্যবহার করছে না। জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসন জরিমানা করলেও মানূষ সচেতন হচ্ছে না। সিভিল সার্জন, ড. আব্দুল কুদ্দুছ জানান, গত ২৪ ঘন্টায় ৩০ জন নতুন করে করোনা রোগীর সনাক্ত হয়েছে। সনাক্তের হার ২১.৮৯%। এদিকে এখন পর্যন্ত জেলা সিভিল সার্জনের তথ্য মতে ৫০৭৪ জন করোনা রোগী সনাক্ত হয়েছে।

সর্বশেষ নিউজ