৪, মার্চ, ২০২১, বৃহস্পতিবার

নওগাঁয় প্রেমে সাড়া না পাওয়ায়, প্রমিককে সিনেমা স্টাইলে পিটিয়ে ফটো সেশন অবশেষে হত্যা, গ্রেপ্তার ১

আতাউর শাহ্, নওগাঁ প্রতিনিধিঃ নওগাঁ শহরের রুবির মোড়ে আনিসা আনির (১৮) প্রেমে সাড়া না পাওয়ায় ব্যর্থ হয়ে আসিফ সজল, গত ৮ ফেব্রুরায়ী দুপুরে আনিসা আনির প্রেমিক হামিম হােসন (২০) দেখা করতে আসলে তাকে এ সময় আসিফ সজলের নৃতত্বে তার সহযােগিরা সুরুজ, প্রান্তসহ অন্য সহযাগিরা সিনেমা স্টাইলে পিটিয়ে ফটো সেশন করে হামিম হোসেনের মোবাইল হতে ফেসবুক বন্ধুদের ইনবক্সে ছবি ও ভিডিও দিয়ে জানান দেন। অথপর হামিমের অবস্থার অবনতি হওয়ায় অচেতন অবস্থায় নওগাঁ সদর হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে জরুরি বিভাগের সামনে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়।

নওগাঁ সদর হাসপাতালে কর্তৃপক্ষ রুগী দেখে, অভিভাবক না পাওয়ায়, থানায় খবর দেয়, পুলিশে ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছে পরিবারের খোঁজ নিয়ে হামিমের পরিবারকে জানান, তাৎক্ষণিক পরিবারের লোকজন হাসপাতালে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে গুরুত্বর অবস্থায় রাজশাহী হাসপাতালে হস্তান্তর করেন। রাজশাহী রয়্যাল হাসপাতাল চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল বহস্পতিবার ভাের রাতে মারা যান।

ঘটনায় সদর থানায় ৩ জনের নাম উল্লেখসহ আরাে অজ্ঞাত ৪/৫ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করা হলে মামলার প্রধান আসামী বখেটে আসিফ সজলকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তবে বাঁকি আসামীদের গ্রেপ্তার করতে পারনি পুলিশ। হামিম হােসন বৃহস্পতিবার ভাের রাতে রাজশাহী রয়্যাল হাসপাতালে মারা যান।

নিহত হামিম হােসন নওগাঁ সদরের মুরাদপুর গ্রামের শাহাদাত হােসনের একটি মাত্র ছেলে।

নিহতের পারিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, হামিম হােসেন রাজশাহী কলেজের এইচএসসি দ্বিতীয় বর্ষ অধ্যায়নরত ছাত্র ও প্রাণ কাম্পানিতে চট্টগ্রামে চাকুরি করেন এবং বাবা-মায়ের সাথে সেখানেই থাকেন। গত ৩ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রাম থেকে নওগাঁয় হামিমের চাচাত ভাইয়ের বিয়েতে আসেন। গত ৮ ফেব্রুয়ারি দুপূরে নওগাঁ শহরের রুবির মােড় হামিমের প্রেমিকা আনিসা আনির সাথে দেখা করতে আসেন।

শাহাদাত হােসন জানান, হামিম খুব ভদ্র ছিল। তার প্রেমিকা আনিসা আনির সাথে দেখা করতে এলে প্রেমে ব্যার্থ বখেটে সজলের নৃতৃত্বে তার সহযােগিরা সুরুজ, প্রান্তসহ অন্য সহযােগিরা মারপিট ও ইট দিয় মাথায় আঘাত ও নির্যাতন করে। তিনি আরা জানান, বখেটে সজলের পরিবার নওগাঁ শহরের প্রভাবশালী পরিবার। ন্যায় বিচার না পাওয়ার আশঙ্কায় রয়েছেন তাদের পরিবার বলে অভিযােগ করেন।

নওগাঁ সদর থানার ওসি সােহরাওয়ার্দি হােসন জানান, আনিসার সাথে প্রেমে ব্যার্থ হয়েই বখেটে আসিফ সজলের নেতৃত্বে হামিমকে হত্যা করা হয়েছে। আসিফ সজলের বিরুদ্ধে নওগাঁ সদরসহ বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা হয়েছে। নিহতদের মৃতদেহ ময়না তদন্ত করা হয়েছে। মামলার অন্য আসামীরা পলাতক থাকায় তাদের গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি। তাদেরও দ্রুত গ্রেপ্তার প্রচেষ্টা চলছে।

তিনি আরাে জানান, ঘটনার পর থেকে আনিসা আনি ও তার পরিবার পলাতক হয়েছে। সজলের বিরুদ্ধে বিজ্ঞ আদালতে রিমান্ডের আবদেন জানানাে হবে। রিমান্ড মঞ্জুর হলে ৩ জনের নাম উল্লেখ্য বাদেও অন্য জড়িতদের পরিচয় ও হত্যার প্রকৃত কারণ জানা সম্ভব হবে।#

সর্বশেষ নিউজ