২৪, ফেব্রুয়ারি, ২০২১, বুধবার

নবাবগঞ্জ উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিসে সেবা গ্রহিতাদের ভোগান্তি

নবাবগঞ্জ প্রতিনিধিঃ ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিসে সেবা গ্রহিতাদের ভোগান্তির অভিযোগ পাওয়া গেছে। সেখানে দির্ঘক্ষণ দাড়িয়ে থাকলেও কোন কর্মকর্তা বা অফিরে কাউকে পাওয়া যায়নি বলে অভিযোগ করেন নাছিমা বেগম। শোল্লা গ্রামের হাফেজ আলী সাংবাদিকদের দেখে এগিয়ে এসে বলেন, আমরা একটা কাজে সকাল ১০টা থেকে এসে এখন পর্যন্ত বসে আছি কিন্তু তারা কেহই অফিসে নাই। প্রায় দিন এসে এই অফিসে কাউকে খুজে পাওয়া যায় না।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন কর্মকর্তা বলেন, ইকবাল ভাই তো অফিসে আসেননা বল্লেই চলে। তিনি তো অফিসটা তার মন মত বানিয়ে নিয়েছেন। মন চাইলে আসেন মন না চাইলে আসেন না। এক সাপ্তাহের হাজিরা একদিনে তুলে চলে যান। এ ছাড়াও অফিসের অন্যন্য কর্মকর্তারাও নিয়মিত অফিসে আসে না।

সহকারী উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মোঃ ইকবাল হোসেন মৃধা যানান, আমি আজ অনেক অসুস্থ তাই আফিসে আসতে পাড়ি নাই।
ইকবাল হোসেন মৃধারর স্থায়ী ঠিকানা মুন্সীগঞ্জ জেলার সিরাজদিখান উপজেলা চন্দনধুল এলাকায় খোজ খবর নিয়ে যানাযায়, সে এলাকয় রাজনীতি করে। খুব ভাল মানুষ সে।সে কোন সরকারি চাকুরী করে কিনা সে ব্যাপারে যানতে চাইলে একাধিক চায়ের দোকানী যানায়। সে তো মনে হয় বছর খানেক আগে রিটায়ার্ড করেছে। আর এখন সে এলাকাতেই থাকে।

নবাবগঞ্জ উপজেলা যুব উন্নয় কর্মকর্ত মো. নজরুল ইসলাম শেখ বলেন, আমাদের কাজে সকলেই সন্তুষ্ট। অফিসে না আশার ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি জানান আমরা তো আপনার জন্য সারাদিন অফিসে বসে থাকব না। আপনি ফোন দিলে অবশ্যই আপনার জন্য বসে থাকতাম ভাই।

নবাবগঞ্জ উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা এইচ এম সালাউদ্দীন মনজু বলেন, কোন সেবা গ্রহীতা যদি সেবা না পেয়ে থাকে তবে অবশ্যাই আমাদের সাথে যোগাযোগ করেতে বলব। কোন কর্মকর্তা যদি তার কর্মস্থলে অফিসিয়াল কোন অনুমতি ছড়া বা উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের অবগতি ছাড়া অনুপস্থিত থাকে সেটি যাচাই বাছাই করে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সর্বশেষ নিউজ