৭, জুলাই, ২০২২, বৃহস্পতিবার

নৌকার প্রার্থীকে সমর্থন না করায় বৃদ্ধকে কান ধরে ওঠবস!

বরগুনার আমতলী উপজেলার চাওড়া ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর পক্ষে কাজ না করায় এক বৃদ্ধকে কান ধরে ওঠবস করানো হয়েছে।

এ ছাড়া তার বাড়িতে গিয়ে নগদ টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার লুট করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী।

ভুক্তভোগী ওই বৃদ্ধের নাম কুদ্দুস হাওলাদার (৬৫)। এ ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে জনমনে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

গত মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে পাতাকাটা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত ২১ জুন চাওড়া ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী মো. আখতারুজ্জামান খান বাদল ও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে অ্যাডভোকেট মহসিন হাওলাদার প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী মহসিন হাওলাদারকে সমর্থন করেন বৃদ্ধ কুদ্দুস।

নির্বাচনে আখতারুজ্জামান খান বাদল জয়লাভ করার পর দিন সন্ধ্যায় বিজয়ী প্রার্থীর লোকজন মহিব উল্লাহ কিরণ, মাহবুব ইসলাম, মনিরুল ইসলাম হাওলাদার, রাশেদুল হাওলাদার, রিয়াদ শিকদারসহ ৪০-৫০ জন লোক কুদ্দুসকে কান ধরে ওঠবস করান।

পরে তার বাড়িতে গিয়ে আসবাবপত্র ভাঙচুর করেন তারা। এর পর নগদ টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার লুট করে চলে যান।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ভুক্তভোগী কুদ্দুস হাওলাদার শুক্রবার দুপুরে যুগান্তরকে বলেন, আমি স্বতন্ত্র প্রার্থীকে সমর্থন করায় বিজয়ী প্রার্থীর লোকজন আমাকে কান ধরে ওঠবস করিয়েছে। এর পর আমার বাড়িতে এসে নগদ ১৮ হাজার ও দেড় ভরি স্বর্ণালঙ্কার লুট করেছে তারা। আমার বাড়িতে তারা ভাঙচুরও চালিয়েছে। এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাওড়া ইউনিয়নের নির্বাচিত চেয়ারম্যান আখতারুজ্জামান খান বাদলের ব্যক্তিগত মোবাইলে কল করা হলে তিনি রিসিভি করে বলেন, ‘এ বিষয়ে আমি কথা বলতে পারব না।’ এরপর রাগ করে কলটি কেটে দেন তিনি।

সর্বশেষ নিউজ