what is the best cryptocurrency trading platform robinhood stock trading platform gordon ramsay invest in bitcoin easy id verify crypto trading ichimoku binary options strategy eoms trading platform merill edge binary option cara bermain binary option tanpa modal binary options and cfds binary sec forex binary options ultimatum trading system free 60 second binary options signals best crypto trading bot app bitcoin online investment platform fca ban on binary options adam grove binary options stockpair binary options bitcoin minute trading how to join bitcoin investment crypto trading cycle binary options versus forex trading can i invest in a portion of bitcoin trading crypto coach telegram review dion trading platform invest in bitcoin tdameritrade tri binary options how to trade binary options successfully by meir liraz nadex binary options contacts to risk binary options system best day trading charts michael freeman binary options strategy libertex binary options binary options login 100 accurate binary options indicator all i need to know about bitcoin trading bitcoin trading israel bitcoin trading review binary options indicators for sale best time to trade binary options gmt binary options probability calculator trading s&p 500 binary options top 10 binary options platforms how do binary options platforms make money binary options with free money crypto currency trading algorithm trading crypto guide vip telegram bitcoin volatility trading bot paper trading platform options trading charles schwab bitcoin investment coinbase binary options brokers in dubai is binarycent legit truth about bitcoin investment low deposit binary options us500 binary option chart binary options fake money bitcoin trading sit keep investing in bitcoin free bitcoin earning sites without investment where to invest my bitcoin in the usa binary options forex cryptocurrency best options to buy this week
১৮, এপ্রিল, ২০২১, রোববার

বঙ্গবন্ধু টানেলের নির্মাণ কাজ ৬৫ শতাংশ সম্পন্ন

আলোচিত মেগা উন্নয়ন প্রকল্প এবং দেশের প্রথম কর্ণফুলী নদীর তলদেশে বঙ্গবন্ধু টানেল নির্মাণের কাজ ৬৫ শতাংশ সম্পন্ন হয়েছে।

চট্টগ্রাম নগরীর পতেঙ্গা প্রান্ত থেকে কর্ণফুলী নদীর তলদেশ হয়ে নদীর ওপারে আনোয়ারা পর্যন্ত একটি টিউব পরিপূর্ণভাবে স্থাপন সম্পন্ন হয়েছে। দ্বিতীয় টিউব স্থাপনের কাজও চলতে দ্রুত গতিতে।

অপরদিকে, স্থাপন সম্পন্ন হওয়া টিউবের ভিতর দিয়ে এখন চলছে পিচঢালা সড়ক নির্মাণের কাজ। এই টানেলের দুটি টিউবে নির্মিত হবে ৪ লেনের সড়ক। ২০২২ সালের ডিসেম্বর মাসের মধ্যেই বঙ্গবন্ধু টানেলের ভিতর দিয়ে সব ধরনের যানবাহন চলাচল শুরু হতে পারে বলে আশা করা হচ্ছে।

চট্টগ্রামের কর্ণফুলী টানেলের প্রকল্প পরিচালক হারুনুর রশিদ চৌধুরী জানান, চীনের সুদক্ষ প্রকৌশলীদের তত্ত্ববধানে অত্যন্ত দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলছে কর্ণফুলী টানেলের নির্মাণ কাজ।

গত বছরের নভেম্বর মাসেই টানেলের পতেঙ্গা থেকে আনোয়ারা পর্যন্ত প্রথম টিউব স্থাপন কাজ সম্পন্ন হয়। একই বছরের ডিসেম্বর মাস থেকেই আনোয়ারা প্রান্ত থেকে পতেঙ্গামুখী দ্বিতীয় টিউব স্থাপনের জন্য নদীর তলদেশে টিবিএম মেশিনের মাধ্যমে বোরিং কার্যক্রম চলছে।

অপরদিকে, স্থাপিত হওয়া প্রথম টিউবের ভিতর দিয়ে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাস থেকে পিচঢালা সড়ক নির্মাণের কাজও শুরু হয়েছে। সব মিলিয়ে এখন পর্যন্ত প্রকল্পের প্রায় ৬৫ শতাংশ কাজ সম্পন্ন হয়েছে।

প্রকল্প পরিচালক জানান, করোনা পরিস্থিতির মধ্যে কাজের গতি কিছুটা শ্লথ থাকলেও বর্তমানে কাজে বাড়তি জনবল এবং অত্যাধুনিক নানা যন্ত্রপাতি, মেশিনারিজ সংযুক্ত করা হয়েছে। ফলে কাজের গতি বেড়েছে। আগামী বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে কর্ণফুলী টানেলের ভিতর দিয়ে গাড়ি চলাচলের লক্ষ্য নিয়ে কাজ এগিয়ে নেওয়া হচ্ছে।

বঙ্গবন্ধু টানেল প্রকল্প সূত্রে জানা যায়, টানেলকে ঘিরে বন্দরনগরী চট্টগ্রামে নতুন অর্থনৈতিক সম্ভাবনার দ্বার উন্মোচিত হতে যাচ্ছে। এর পাশাপাশি এই অঞ্চলের যোগাযোগ ব্যবস্থায় এক বৈপ্লবিক পরিবর্তন সূচিত হবে।

৩ দশমিক ৪০ কিলোমিটার দৈর্ঘের মূল টানেলের সঙ্গে পতেঙ্গা এবং আনোয়ারা প্রান্তে ৫ দশমিক ৩৫ কিলোমিটার সংযোগ সড়ক নির্মিত হচ্ছে। সংযোগ সড়ক এবং টানেলের ভিতরের সড়ক হবে সর্বমোট ৪ লেনের। এর মধ্যে ওয়ানওয়ে একটি টানেলে সড়ক থাকবে দুই লেনের।

একটি টিউবের সড়ক দিয়ে আনোয়ারা থেকে পতেঙ্গা অভিমুখী এবং অপর টিউব দিয়ে পতেঙ্গা থেকে আনোয়ারা অভিমুখী যানবাহন চলাচল করবে। কর্ণফুলী নদীর তলদেশে প্রতিটি টিউব চওড়া ১০ দশমিক ৮ মিটার বা ৩৫ ফুট এবং উচ্চতা ৪ দশমিক ৮ মিটার বা প্রায় ১৬ ফুট। একটি টিউব থেকে অপর টিউবের পাশাপাশি দুরত্ব প্রায় ১২ মিটার। টানেলের প্রস্ত ৭০০ মিটার। এবং দৈর্ঘ্য ৩ হাজার ৪০০ মিটার।

বঙ্গবন্ধু টানেল নির্মাণে মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ১০ হাজার ৩৭৪ কোটি টাকা। এর মধ্যে বাংলাদেশ সরকার দিচ্ছে ৪ হাজার ৪৬১ কোটি টাকা। বাকি ৫ হাজার ৯১৩ কোটি টাকা দিচ্ছে চীন সরকার। চীনের কমিউনিকেশন এবং কনস্ট্রাকশন কোম্পানি লিমিটেড (সিসিসিসি) টানেল নির্মাণের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান টানেল নির্মাণের কাজটি বাস্তবায়ন করছে।

সর্বশেষ নিউজ