১, ডিসেম্বর, ২০২১, বুধবার

বাঁশের লাঠিসোটা নিয়ে বায়তুল মোকাররম থেকে রাজপথে নেমেছে হেফাজত

মোদীবিরোধী বিক্ষোভে প্রাণহানির ঘটনায় হেফাজতে ইসলামের ডাকা সারা দেশে সকাল-সন্ধ্যার হরতাল কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে লাঠিসোটা নিয়ে হাজারো হরতাল সমর্থনকারী জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররম থেকে পল্টনের দিকে অগ্রসর হচ্ছে। এ প্রতিবেদন লিখা পর্যন্ত দুপুর ২টার দিকে তারা পুরানা পল্টন মোড় থেকে বিজয়নগর মোড় পর্যন্ত অবস্থান নিয়েছে।

রবিবার (২৮ মার্চ) দুপুরে যোহরের নামাজ শেষে হরতাল সমর্থনকারীরা বাঁশের লাঠি হাতে দলে দলে রাস্তায় নেমে আসে। এসসয় তারা পল্টন মোড় হয়ে বিজয়নগরের দিকে অগ্রসর হয়।

এসময় ছাত্রলীগ বিজয়নগর মোড়ের দিকে আসতে চাইলে হেফাজতের নেতাকর্মীরা ধাওয়া দিলে সেখানে থাকা কিছু ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা দৌড়ে পালিয়ে যায়। এরপর তারা আবার পল্টন মোড়ে অবস্থান নেয়। সকাল থেকেই ওই এলাকার সব দোকানপাট ও রাস্তাঘাট বন্ধ রয়েছে।

এদিকে হরতালকে কেন্দ্র করে সপ্তাহের প্রথম কর্মদিবসের দিনে সকাল থেকেই রাজধানীর পল্টন, দৈনিক বাংলা ও মতিঝিল এলাকায় ব্যাপক সংখ্যক আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা হয়। একইসঙ্গে রাজধানীর বিভিন্ন পয়েন্টে হরতালের প্রতিবাদে রাজপথে অবস্থান নিতে দেখা যায় ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীদের। সকাল থেকেই যান চলাচল ও মানুষের উপস্থিতি অন্যান্য দিনের চেয়ে অনেকটাই কম ছিল।

কোথাও অবরোধ, কোথাও হামলা-ভাঙচুরের মধ্য দিয়ে হেফাজতে ইসলামের ডাকা সারা দেশে সকাল-সন্ধ্যার হরতাল পালিত হচ্ছে।

সকাল থেকেই নারায়ণগঞ্জের সাইনবোর্ড থেকে চিটাগাংরোড পর্যন্ত ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে হেফাজত কর্মীরা। কয়েক দফা সংঘর্ষ হলেও চিটাগাংরোড আন্ডারপাস এলাকায় সংক্ষিপ্ত মোনাজাতের মাধ্যমে শান্তিপূর্ণভাবে পিকিটিংয়ের সমাপ্তি ঘোষণা করে হেফাজত। নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে হেফাজতে ইসলামের ডাকা হরতালের সমর্থনে রাস্তায় অবস্থান নেয়া বিক্ষোভকারীদের সরাতে গুলি চালিয়েছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। গুলিতে একজন হরতাল সমর্থনকারী নিহত হয়েছে বলে দাবি করেছে হেফাজতে ইসলামী।

হরতাল ঘিরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আজও সহিংসতা ছড়াচ্ছে হেফাজত ইসলামের সমর্থকরা। সকাল-সন্ধ্যা হরতালে সকাল থেকে লাঠিসোটা হাতে পুরো শহরে মিছিল করছে হরতাল সমর্থকরা। শহরের বিভিন্ন স্থানে রিকশার টায়ার, রাস্তার পাশে রাখা ইলেক্ট্রনিক সামগ্রীতে আগুন দেয় তারা। তবে সেখানে সকাল থেকে নীরব ভূমিকায় ছিল আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

এছাড়া ব্রাহ্মণবাড়িয়ার দক্ষিণ পৈরতলা এলাকায় ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা চট্টগ্রামগামী সোনার বাংলা এক্সপ্রেস ট্রেনে হামলা ও ভাঙচুর চালিয়েছে হেফাজতে ইসলামের কর্মী-সমর্থকেরা। দূর থেকে ছোড়া ইট-পাটকেলে ট্রেনের ভেতরে থাকা অন্তত ১০ যাত্রী আহত হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

রাজশাহী, সিলেট, চট্টগ্রাম, ময়মনসিংহসহ দেশে বিভিন্ন অঞ্চলে পিকেটিং, অগ্নিসংযোগ ও ভাঙচুরের খবর পাওয়া গেছে।

ঢাকা, চট্টগ্রাম ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মোদীবিরোধী বিক্ষোভে নেতাকর্মীদের হত্যা ও তাদের ওপর হামলার প্রতিবাদে গত শুক্রবার (২৬ মার্চ) রাতে রাজধানীর পুরানা পল্টনে সংবাদ সম্মেলন করে রবিবার সারা দেশে সকাল-সন্ধ্যা হরতালের ঘোষণা দেয় হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমির আবদুর রব ইউসুফী।

সর্বশেষ নিউজ