২৭, অক্টোবর, ২০২১, বুধবার

বায়তুল মুকাদ্দাস থেকে শরণার্থী শিবির উচ্ছেদের পরিকল্পনা আন্তর্জাতিক আইনের লঙ্ঘন

অধিকৃত ফিলিস্তিনের পূর্ব বায়তুল মুকাদ্দাস শহরের শেখ জাররাহ শরণার্থী শিবির এবং অন্য এলাকা থেকে অবৈধ ইহুদি বসতি গড়ার জন্য ফিলিস্তিনিদের উচ্ছেদ করে ইসরাইল আন্তর্জাতিক আইনের লঙ্ঘন করছে মন্তব্য করেছে সুইজারল্যান্ড।

ইহুদিবাদীদের এই পদক্ষেপ নিন্দারযোগ্য বলেও উল্লেখ করেছে দেশটি। রোববার সুইজারল্যান্ডের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে এ নিন্দা জানিয়েছে।

ইসরাইলি আদালতের সহযোগিতা নিয়ে দখলদার ইসরাইল সরকার শেখ জাররাহ শরণার্থী শিবিরের ফিলিস্তিনি নাগরিকদের উচ্ছেদ এবং তাদের ঘরবাড়ি ধ্বংস করছে।

সেখানে নতুন একটি ইহুদি বসতি স্থাপন করার পরিকল্পনা নিয়ে এই কাজ করছে তেলআবিব। গত কয়েক দিনে ইসরাইলি সেনা ও অবৈধ বসতি স্থাপনকারী ইহুদিরা ফিলিস্তিনিদের সেখান থেকে বের করে দেওয়ার চেষ্টা করে। এ নিয়ে দফায় দফায় সংঘর্ষ হচ্ছে।

এরই মধ্যে ইসরাইলি সেনাদের সহিংস হামলায় বহু ফিলিস্তিনি আহত ও বেশ কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে।

শেখ জাররাহ শরণার্থী শিবির থেকে ফিলিস্তিনি নাগরিকদের উচ্ছেদ প্রক্রিয়া বন্ধ করার জন্য ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস আহ্বান জানিয়েছে। সংগঠনটি বলেছে— এই পরিকল্পনা বন্ধ না করলে ইসরাইলকে চড়া মূল্য দিতে হবে।

পবিত্র রমজান মাসের শুরু থেকেই জেরুজালেমের অধিকৃত পশ্চিম তীর এবং গাজায় ফিলিস্তিনি জনগণ ও ইসরায়েলি বাহিনীর মধ্যে উত্তেজনা বেড়ে গিয়েছে। গত শুক্রবার বিক্ষোভকারীদের লক্ষ্য করে রাবার বুলেট ও স্টান গ্রেনেড ছুড়ে পুলিশ। এতে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ১৮ ইসরায়েলি পুলিশ এবং ২০৫ জন ফিলিস্থিনি নাগরিক আহত হয়েছেন। শনিবার সেখানে আবারও সংঘর্ষ হয়।

এদিন আল আকসা মসজিদে পবিত্র লাইলাতুল কদরের নামাজ আদায় করছেন প্রায় ১০ হাজার মুসল্লি। অন্যদিকে, মসজিদের বাহিরে ইসরায়েলি পুলিশের সঙ্গে ফিলিস্তিনি বিক্ষোভকারীদের সহিংসতা চলছে। শনিবার রাতে হওয়া এ সহিংসতায় কমপক্ষে ৮০ জন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে এক বছর বয়সী শিশুও আছে।

সর্বশেষ নিউজ