২১, জানুয়ারী, ২০২২, শুক্রবার

বিশ্বের সবচেয়ে বড় অস্ত্র ক্রেতা সৌদি

মড়িয়া হয়ে অস্ত্র কিনছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদি আরব। এ যেন আগে অস্ত্র পরে খাদ্য! অস্ত্র কেনার প্রতিযোগীতায় বিশ্বের সবচেয়ে বড় ক্রেতা এখন দেশটি। আর সৌদি আরবে অস্ত্র বিক্রেতার শীর্ষে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

বিশ্বে যত অস্ত্র বিক্রি হয় তার এক তৃতীয়াংশও বিক্রি করে যুক্তরাষ্ট্র। সাম্প্রতিক সময়ে দেশটি অস্ত্র ব্যবসাকে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে। সূত্র: স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইনস্টিটিউটের(সিপরি)।

সিপরি’র গবেষণা তথ্যের ভিত্তিতে রয়টার্স জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র ২০০১ থেকে ২০১৫ সালের মধ্যে যা অস্ত্র বিক্রি করত , এখন তার তুলনায় ১৫ শতাংশ বেশি করে। ২০১৬ থেকে ২০২০-র মধ্যে বিশ্বে মোট যত অস্ত্র বিক্রি হয়েছে, তার ৩৭ শতাংশ করেছে দেশটি।

মোট ৯৬টি দেশে অস্ত্র বিক্রি করেছে তারা। আর তাদের অস্ত্রের সব চেয়ে বড় ক্রেতা হলো মধ্যপ্রাচ্য। তাদের অর্ধেক অস্ত্রই যায় সেখানে। মধ্য প্রাচ্যের দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি অস্ত্র কেনে সৌদি আরব। বস্তুত, তারাই বিশ্বের সব চেয়ে বড় অস্ত্রের ক্রেতা।

২০১৬ থেকে ২০২০ পর্যন্ত সময়ে আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে অস্ত্র বিক্রির পরিমাণ বাড়েনি। তার আগের এক দশক ধরে অবশ্য অস্ত্র বিক্রি সমানে বেড়েছে। এটা হওয়ার মূল কারণ, চীন ও রাশিয়া থেকে অস্ত্র কেনা কমেছে।

রাশিয়ার অস্ত্র বিক্রির পরিমাণ কম হওয়ার কারণ, ভারত সেদেশ থেকে অনেক কম অস্ত্র কিনছে। ফলে যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্স, জার্মানি থেকে অস্ত্র বিক্রির পরিমাণ বাড়লেও সামগ্রিকভাবে অস্ত্র বিক্রির পরিমাণ বাড়েনি।

ওয়াশিংটনভিত্তিক প্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর ইন্টারন্যাশনাল পলিসি সিআইপি এক প্রতিবেদনে পশ্চিমা বিভিন্ন দেশের অস্ত্র বিক্রির পরিসংখ্যান তুলে ধরেছে৷ দেখা গেছে, মধ্যপ্রাচ্য ও উত্তর আফ্রিকার বিভিন্ন দেশে এই পাঁচ বছরে ব্যাপক পরিমাণ অস্ত্র যুক্তরাষ্ট্র ও ফ্রান্স, জার্মানিসহ ইউরোপের বিভিন্ন দেশ থেকে বিক্রি করা হয়েছে৷

পাঁচ বছরের তথ্য : ওয়াশিংটনভিত্তিক প্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর ইন্টারন্যাশনাল পলিসি সিআইপি এক প্রতিবেদনে পশ্চিমা বিভিন্ন দেশের অস্ত্র বিক্রির পরিসংখ্যান তুলে ধরেছে৷

দেখা গেছে, মধ্যপ্রাচ্য ও উত্তর আফ্রিকার বিভিন্ন দেশে এই পাঁচ বছরে ব্যাপক পরিমাণ অস্ত্র যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্স, জার্মানিসহ ইউরোপের বিভিন্ন দেশ থেকে বিক্রি করা হয়েছে৷

২০১৬ থেকে ২০২০-র মধ্যে মধ্যপ্রাচ্যে অস্ত্র কেনার পরিমাণ তার আগের দশ বছরের তুলনায় প্রায় ২৫ শতাংশ বেড়েছে। আর সৌদি আরব এখন বিশ্বের সব চেয়ে বড় অস্ত্র ক্রেতা। তাদের অস্ত্র কেনার পরিমাণ ৬১ শতাংশ বেড়েছে।

সংযুক্ত আরব আমিরাত সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে ৫০টি এফ ৩৫ জেট কেনার জন্য চুক্তি করেছে। তারা ১৮টি সশস্ত্র ড্রোনও কিনছে। দুই হাজার ৩০০ কোটি ডলার দিয়ে এই অস্ত্র কিনছে আমিরাত।

এশিয়া ও ওশিয়ানিয়ার দেশগুলি বেশি অস্ত্র কেনে। ২০১৬ থেকে ২০২০-র মধ্যে অস্ত্রের ৪২ শতাংশ কেনা হয়েছে এখান থেকে। কিনেছে ভারত, চীন, অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া ও পাকিস্তান।

২০২০ সালে মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে ১১৬ কোটি ইউরো বা ১৪১ কোটি ডলারের অস্ত্র রপ্তানির অনুমোদন দিয়েছে জার্মান সরকার৷ এই দেশগুলো ইয়েমেন আর লিবিয়ায় প্রাণঘাতী যুদ্ধে জড়িত ছিল৷ জার্মানির অর্থ মন্ত্রণালয় দেশটির গ্রিন পার্টির এক সদস্যের আবেদনের প্রেক্ষিতে সংসদের নিম্নকক্ষে এই তথ্য জানিয়েছে৷

সিপরি জানিয়েছে, করোনার ফলে অস্ত্র কেনাবেচা কমেছে কি না, তা বলার সময় এখনো আসেনি। তাদের মতে, করোনা প্রতিটি দেশের অর্থনীতিকে ধাক্কা দিয়েছে।

তাই অনেক দেশই হয়ত অস্ত্র কেনার বিষয়টি খতিয়ে দেখছে। তবে, করোনার প্রকোপ যখন সব চেয়ে বেশি ছিল, তখনো কিছু দেশ বিপুল পরিমাণ অস্ত্র কেনার জন্য চুক্তি করেছে।

সর্বশেষ নিউজ