১, ডিসেম্বর, ২০২১, বুধবার

মুন্সীগঞ্জে জোর করে ইন্টারনেইট সংযোগ দেয়া অভিযোগ

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
মুন্সীগঞ্জে জোর করে অবৈধ ভাবে ইন্টারনেইট সংযোগ দেয়া অভিযোগ পাওয়া গেছে। সদর উজেলার মিরকাদিম পৌরসভার মিরাপাড়া,মস্তান বাজার,গোলাপ বাগ,দর্গাবাড়ী,গোয়লঘুন্নিসহ পৌরসভার বিভিন্ন এলাকার সাধারণ গ্রাহকদের জোর পূর্বক সংযোগ দেয়ার অভিযোগ উঠেছে মিরাপাড়া এলাকার মৃত রমিজ উদ্দিনের ছেলে খোকন নামের এক প্রভাবশালির বিরুদ্ধে। টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরী কমিশন (ইঞজঈ) এর অনুমোদনহীন ও সরকারি রাজস্ব ফাকি দিয়ে এই ইন্টারনেইট ব্যবসায়ী জোর করে পূর্বের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে তার অবৈধ সংযোগ নিতে বাদ্ধ করছেন বলে এমন অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে । এছাড়াও তিনি চলমান সেঞ্চুরী লিংক নেটওয়ার্কের সংযোগের বিচ্ছিন্ন করে সেই তারও মেশিন দখল করে গ্রাহকদের তার অবৈধ সংযোগ দিয়ে যাচ্ছেন বলেও জানাগেছে । ইতোমধ্যে অভিযুক্ত খোকনের বিরুদ্ধ জেলা প্রশাসক,পুলিশ সুপার ও সদর থানাসহ সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন সেঞ্চুরি লিংক নেটওয়ার্কের মালিক মিন্টু মিয়া।

সরেজমিন জানাগেছে চলমান সেঞ্চুরি লিংক নেটওয়ার্কের মিরকাদিম পৌর এলাকার বিভিন্ন স্থানের মেশিন ও সংযোগ তার দখল করে গ্রাহকদের জোর পূর্বক অনুমোদনহীন অবৈধ ইন্টারনেইট সংযোগ দিয়ে যাচ্ছে। সংযোগ নিতে অশ্বিকার করলে গ্রাহকদের নানা ভাবে হুমকি দিয়ে সংযোগ স্থাপনে বাদ্ধা করা হচ্ছে ।

গোয়ালঘুন্নির এলাকার ইন্টারনেইট গ্রাহক সিরাজ আহম্মেদ বলেন, আমারসহ আমাদের বাড়ীর চলমান ১০ টি সংযোগ রাতের আধারে জোর পূর্বক বিচ্ছিন্ন করে খোকন তার সংযোগ স্থাপন করছেন। বার বার সংযোগ স্থাপন করতে নিষেদ করলেও কোন কর্ণপাত না করে উল্টো হুমকি দিয়ে যাচ্ছে।

একই এলাকার অপর গ্রাহক নিরব ও মোক্তার হোসেনসহ একাধিক গ্রাহন অভিযোগ করে বলেন, গতদুই দিন যাবত আমাদের ইন্টারনেইট লাইন নেই এতে করে অনেক সমস্যায় পরতে হচ্ছে শুনেছি খোকন নামের কোন এক ব্যক্তি সেঞ্চুরি মালিককে ইন্টারনেইট ব্যবসা করতে দিবেনা। তাই ওনাদের সংযোগ কেটে দিয়ে আমাদের বাদ্ধ করছে খোকন তার লাইন সংযোগ নিতে।

খোকন জোর করে মেশিন ও সংযোগ তার দখল করে গ্রাহকদের জিম্মি করে সংযোগ দিচ্ছে জানিয়ে সেঞ্চুরি লিংক নেটওয়ার্কের মালিক মিন্টু মিয়া বলেন,খোকন পেসিশক্তি ব্যবহার করে আমাদের সংযোগের তার এবং মেশি দখল করে গ্রাহকদের নিজের সংযোগ নিতে বাদ্ধ করছে। আমি এর সুষ্ট বিচার চেয়ে সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেছি।
অনুমোদন আছে দাবী করে অভিযুক্ত খোকন বলেন,যারা আগের সংযোগ কৃত লাইন চালাবেনা আমরা তাদের নতুন করে সংযোগ দিচ্ছি সেটা আমাদের নিজেস্ব তার ও মেশিনের মাধ্যমে। জোর করে লাইন দখল বা সংযোগ দেয়ার অভিযোগটি সত্য নয় বলেও তিনি জানান।
এব্যাপারে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু বক্কর সিদ্দিক বলেন, জোর করে লাইন কেটে দেয়া বা মেশিন তার দখল করে সংযোগ স্থাপনের এখন পর্যন্ত কোনো অভিযোগ পাইনি অভিযোগ পেলে আইগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সর্বশেষ নিউজ