১৯, অক্টোবর, ২০২১, মঙ্গলবার

যুক্তরাষ্ট্রে প্রতিদিন গড়ে ৬০ হাজারের বেশি মানুষ আক্রান্ত হচ্ছে

গত বছরের শেষের দিকে বিশ্বজুড়ে করোনা পরিস্থিতি অনেকটা স্বাভাবিক হয়ে এলেও নতুন বছরের প্রথম তিন মাস না যেতেই আবারও বাড়তে শুরু করেছে করোনার সংক্রমণ।

কোথাও দ্বিতীয় আবার কোথাও তৃতীয় বা চতুর্থ ঢেউয়ে নিয়ন্ত্রণহীন করোনার লাগাম। যুক্তরাষ্ট্রে প্রতিদিন গড়ে আক্রান্ত হচ্ছেন ৬০ হাজারের বেশি মানুষ।

ভারতে শনিবার (১২ মার্চ) একদিনে শনাক্ত হয়েছেন ২৫ হাজারের বেশি। এর আগে শুক্রবার একদিনে শনাক্ত হন ২৭ হাজার ৫ শতাধিক, যা এ বছর এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ।
পরিস্থিতির সবচেয়ে বেশি অবনতি হয়েছে মহারাষ্ট্রে। রাজ্যের বেশ কয়েকটি অঞ্চলে নতুন করে জারি করা হয়েছে নিষেধাজ্ঞা। এ ছাড়া সংক্রমণ বেড়েছে নাগপুরেও।

করোনার লাগাম যেন কোনোভাবেই টেনে ধরা যাচ্ছে না লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে। শনিবার দেশটিতে সর্বোচ্চ সংক্রমণের মধ্যেই শুরু হয়েছে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা কর্মসূচি।

এদিন দেশটিতে শনাক্ত হয়েছেন ৭০ হাজারের বেশি। তবে যে তথ্যটি আরও ভয়াবহ তা হলো, দেশটিতে প্রতিদিন গড়ে প্রাণ হারাচ্ছেন ২ হাজারের বেশি মানুষ। দেশটির এমন ভয়াবহ পরিস্থিতিতে উদ্বেগ জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) মহাপরিচালক তেদ্রোস আধানম গেব্রিয়েসুস বলেন, যা করার এখনি করতে হবে। নয়তো স্বাস্থ্যব্যবস্থা পুরোপুরি ভেঙে পড়বে। সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে জরুরি ভিত্তিতে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে হবে। নয়তো পরিস্থিতি সরকারের পক্ষে সামাল দেয়া কঠিন হয়ে পড়বে।

তিনটি টিকার গণহারে প্রয়োগ সত্ত্বেও যুক্তরাষ্ট্রে থামানো যাচ্ছে না করোনার ঢেউ। দেশটিতে প্রতিদিন গড়ে শনাক্ত হচ্ছেন ৬০ হাজারের বেশি মানুষ।

এদিকে জর্ডানে কোভিড হাসপাতালে অক্সিজেন স্বল্পতায় রোগী মারা যাওয়ার ঘটনায় পদত্যাগ করেছেন দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী। এ ঘটনায় গোটা সরকার লজ্জিত উল্লেখ করে দুঃখ প্রকাশ করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী বিশার আল খাসাওনেহ। একই সঙ্গে এর দায় নিজের কাঁধেও নেন তিনি।

সর্বশেষ নিউজ