১৩, জুন, ২০২১, রোববার

রিয়ালকে টপকে গেল বার্সেলোনা

স্প্যানিশ লা লিগায় বার্সেলোনার চলতি মৌসুমের শুরুটা ছিল একদম যাচ্ছেতাই। শিরোপা পুনরুদ্ধারের মিশনে খেলতে নেমে পয়েন্ট টেবিলের ১০ নম্বরেও নেমে গিয়েছিল তারা। তবে ধীরে ধীরে ঘুরে দাঁড়াতে শুরু করেছে ক্লাবটি, উঠে গেছে তালিকার ২ নম্বর স্থানে।

রোববার রাতে ঘরের মাঠে অ্যাথলেটিকো বিলবাওকে ২-১ গোলে হারিয়ে লিগ টেবিল জমিয়ে তুলেছে বার্সেলোনা। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ও বর্তমান চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদকে টপকে এখন লিগের দ্বিতীয় দল তারা। শীর্ষে মাদ্রিদের আরেক ক্লাব অ্যাটলেটিকো ক্লাব।

রিয়ালকে টপকে যাওয়ার ম্যাচে তিনটি গোলই করেছে বার্সেলোনার খেলোয়াড়রা। প্রথম দর্শনীয় এক ফ্রি কিকে দলকে এগিয়ে দেন বার্সা অধিনায়ক লিওনেল মেসি। দ্বিতীয়ার্ধে অ্যান্তনিও গ্রিজম্যানের গোলে নিশ্চিত হয় জয়। মাঝে জর্দি আলবার গোলে সমতায় ফেরে বিলবাও।

চলতি বছরে গত ২৬ দিনের মধ্যে তৃতীয়বার বিলবাওয়ের মুখোমুখি হয়েছিল বার্সেলোনা। আগের দুই ম্যাচে একটি করে জিতেছিল দুই দল। ফলে ম্যাচটি মোটেও সহজ ছিল না বার্সেলোনার জন্য। তবে নেতিবাচক ফল আসতে দেননি মেসি, গ্রিজম্যান, উমতিতিরা। যার সুবাদে ঘরের মাঠে টানা দশম জয় নিয়েই মাঠ ছেড়েছে তারা।

ম্যাচের শুরুতেই গোলের দারুণ সুযোগ আসে মেসির সামনে।পঞ্চম মিনিটে গড়া সেই আক্রমণ অল্পের জন্য সেটি ঠেকিয়ে দেন বিলবাও গোলরক্ষক। এর মিনিট দশেকের মধ্যে আবারও দারুণ এক সম্ভাবনা জাগিয়েছিলেন মেসি। কিন্তু বল চলে যায় ক্রসবারের ওপর দিয়ে।

তবে ২০ মিনিটের সময় আর শেষ রক্ষা হয়নি। ডি-বক্সের খানিক বাইরে ফ্রি কিক পেয়েছিল বার্সেলোনা। মেসির এই মরণঘাতী শট ঠেকাতে প্রায় সবধরনের প্রস্তুতিই নিয়েছিল বিলবাও। এমনকি পোস্ট ঘেঁষেও দাঁড়িয়ে যান এক খেলোয়াড়। কিন্তু গোলরক্ষক ও সেই খেলোয়াড়কে ফাঁকি দিয়েই বল জালে জড়ান মেসি।

প্রথমার্ধে আর হয়নি কোনো গোল। সুযোগ পেয়েছিলেন ওসুমানে দেম্বেলে। তবে পারেননি গোলের পরিণত করতে। দ্বিতীয়ার্ধে ফিরে চার মিনিটের মধ্যেই বার্সা ডিফেন্ডার আলবার ভুলে সমতায় ফেরে বিলবাও। বাম দিকে আসা রাউল গার্সিয়ার ক্রস ঠেকাতে পা এগিয়ে দিয়েছিলেন আলবা, তার পায়ে লেগেই বল চলে যায় জালের ভেতরে।

এই গোলের বদৌলতেই এক পয়েন্ট পাওয়ার সম্ভাবনা জাগিয়ে তোলে বিলবাও। ম্যাচের সময় গড়াচ্ছিল দ্রুত কিন্তু গোল আসছিল না আর। অবশেষে ৭৪ মিনিটের মাথায় জয়সূচক গোলটি করেন গ্রিজম্যান। দেম্বেলের পাস ধরে মিনগেসা ডান দিক থেকে বাড়ান গ্রিজম্যানের উদ্দেশ্যে। নিখুঁত ফিনিশিংয়ে দলের জয় নিশ্চিত করেন গ্রিজমান।

এ জয়ের পর ২০ ম্যাচে ৪১ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে উঠে গেছে বার্সেলোনা। সমান ম্যাচে সমান ৪১ পয়েন্ট রয়েছে রিয়ালেরও। তবে গোল ব্যবধানে রিয়ালের চেয়ে এগিয়ে রয়েছে বার্সেলোনা। এ দুই দলের চেয়ে এক ম্যাচ কম খেলে ৫০ পয়েন্ট নিয়ে সবার ওপরে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ।

সর্বশেষ নিউজ