১৭, সেপ্টেম্বর, ২০২১, শুক্রবার

শরীয়তপুরে গণকবরস্থানের জায়গা দখল করে ঘর নির্মানের অভিযোগ, এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভ

নাছির আহম্মেদ আলী,শরীয়তপুর প্রতিনিধি : শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার নন্দনসারএলাকায় গণ কবর স্থানের জায়গা দখল করে ঘর নির্মান করার অভিযোগ উঠেছে। এতে কবরস্থানে উন্নয়নমুলক কাজ করতে পারছেন না। ফলে ফুসে উঠছে এলাকার মানুষ বলে ঘড়িসার ইউনিয়ন পরিষদেও চেয়ারম্যান আবদুল রব খান জানিয়েছে।উপজেলা প্রশাসক সহ বিভিন্ন জায়গায় অভিযোগ করেও কোন সুফল পায়নি এলাকাবাসী। তবে দখল কারীরা বলছেন, তাদের নামে এ জায়গার বায়না পত্র আছে।

নড়িয়া উপজেলার নন্দনসার গণ কবর স্থানের সহ সভাপতি আক্তার হোসেন ঢালী ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, শরীয়তপুর জেলার নড়িয়া উপজেলার গড়িসার ইউনিয়নের নন্দন সার বেপারী বাড়ী জামে মসজিদ সংলগ্ন ১০৯ নং নন্দন সার মৌজায় এসএ ৭১ নং খতিয়ানে বি আর এস ১১৫৩ নং দাগে স্থানীয় আব্দুর রহিম বেপারী ১৬ শতাংশ জমি মৌখিক ভাবে দান করে যায়। পরে তার ছেলে ডাঃ শাজাহান বেপারী ও আসাদুল বেপারী গংরা দুটি দলিলে ১৬ শতাংশ জমি ৩৩৬১ নং ও অন্য আর একটি দলিল মুলে নড়িয়া সাব-রেজিষ্ট্রি অফিসে জানাœাতুল বাকী গণকবর স্থানের দানপত্র দলিল করে দেয়। ২০২০ সালের ৭ সেপ্টেম্বর রাতের আধারে দিল মোঃ বেপারী,আব্দুস সালাম বেপারী,মোসলেহ উদ্দিন বেপারী গংরা জোর পূর্বক গণকবর স্থানের জায়গা দখল করে। সেখানে টিনের বাউন্ডারী দিয়ে তার ভিতরে একটি ঘর তৈরী করে। এই ব্যাপারে নন্দন সার জান্নাতুল বাকী গণকবর স্থানের সহ-সভাপতি সভাপতি আক্তার হোসেন ঢালী ২০২০ সালের ১৩ অক্টোবরগণ কবর স্থানের জায়গা উদ্ধারের দাবীতে নড়িয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

ঘড়িসার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল রব খান বলেন, শুনেছি আবদুর রহিম বেপারী ছেলেরাইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ডা শাহাহান বেপারী ও তার ভাইরা বায়না করে দিলু বেপারী গংদের দিয়ে ছিল। পরে আবার এই জায়গাটি ঘড়িসার ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ডা শাহাহান বেপারী ও তার ভাইরা জান্নাতুল বাকী গণকবর স্থানের নামে ওয়াকফ করে দিয়েছে।
স্থানীয় আহাম্দ ঢালী ও শহীদুল হক ঢালী বলেন, আমরা এলাকার মানুষ এই জান্নাতুল বাকী গণকবর স্থানের জায়গা দখলদাররা দখল করেছে। এ কারনে সরকারী অনুদান পাওয়ার পরও আমরা উন্নয়ন করতে পারছি না। আমরা চাই দ্রুত এই গনকবর স্থানের জায়গা দখল মুক্ত হউক।

মোসলেহ উদ্দিন বেপারী বলেন, আমরা দীর্ঘদিন পূর্বে শাজাহান ডাঃ এর পিতা আব্দুর রহিম বেপারীর কাছ থেকে এ জায়গা টি বায়না করি এবং তাকে টাকা দেই।পরে তার ছেলেরা আমাদের কে জায়গা না দিয়ে গন কবর স্থানের নামে জায়গা দলিল করে দেয়। এখন আমরা সে জায়গায় ঘর তুলি।
এ ব্যাপারে মুফতি নুর ছালাম বলেন,দীর্ঘদিন পুর্বে এ জায়গা আমার বাবা ও চাচারা মৌখিক ভাবে ক্রয় করেছেন। সে জায়গায় আমরা দখল করে ঘর তুলেছি। আমরা জান্নাতুল বাকী গনকবর স্থানের জায়গা দখল করিনি। এ মিথ্যা ও বানোয়াট।

ঘড়িসার ইউনিয়ন ভুমি সহকারী কর্মকর্তা ফোরহাদ হোসেন খান বলেন, আপনাদের কাছ থেকে এখন আমি শুণলাম। এ বিষয়ে আমি কিছু জানি না। দেখি খোজখবর নিয়ে।
নড়িয়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) মোঃ মোর্শেদুল ইসলাম বলেন, এমন অভিযোগ আমি শুনেছি অনেকদিন আগে। তাদেরকে পরামর্শ দিয়েছিলাম দখলদারদেরকে উচ্ছেদের মামলা করতে। পরে কেউ আর যোগাযোগ করেনি।

সর্বশেষ নিউজ