১, ডিসেম্বর, ২০২১, বুধবার

শাল্লায় হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বাড়িতে হামলা, গ্রেফতার ২২

সুনামগঞ্জে শাল্লায় নোয়াগাঁও গ্রামে সংখ্যালঘুদের বাড়িঘরে হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনায় করা মামলায় ২২ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাত থেকে শুক্রবার (১৯ মার্চ) সকাল পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

এর আগে গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে ওই হামলার ঘটনায় এক ব্যক্তি ৭০০ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার মো. মশিউর রহমান ও পুলিশের ডিআইজি মফিজ উদ্দীন আহমেদসহ ঊর্ধ্বতম সরকারি কর্মকর্তারা শুক্রবার দুপুরে নোয়াগাঁও গ্রামে যান। সেখানে তারা ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর সঙ্গে কথা বলেন। এ সময় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে নগদ টাকা ও চাল দেয়া হয়।

জানা গেছে, গত সোমবার জেলার দিরাই উপজেলা শহরে আয়োজিত এক সমাবেশে হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় নেতা মাওলানা জুনাইদ বাবুনগরী ও মাওলানা মামুনুল হক বক্তব্য দেন। পরে মামুনুল হককে নিয়ে ঝুমন দাস নামের নোয়াগাঁও গ্রামের এক যুবক ফেসবুকে আপত্তিকর পোস্ট দেন। এ পোস্টকে কেন্দ্র করে ওই গ্রামে ব্যাপক উত্তেজনা দেখা দেয়। পরে মঙ্গলবার রাতে ওই গ্রামের লোকজন ঝুমনকে পুলিশে দেন।

পরে বুধবার সকালে ওই গ্রামের আশেপাশের লোকজন ও আশেপাশের উপজেলা থেকেও হাজার হাজার মানুষ লাঠিসোঁটা নিয়ে এসে নোয়াগাঁও গ্রামে এসে মানুষের বাড়ি ও মন্দিরে হামলা চালায়।

সুনামগঞ্জের কোর্ট পুলিশের পরিদর্শক মো. সেলিম নেওয়াজ বলেন, আটক ঝুমন দাসকে বুধবার ৫৪ ধারায় গ্রেফতার দেখিয়ে পুলিশ আদালতে হাজির করে। পরে আদালতে আদেশে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

সর্বশেষ নিউজ