৩, ডিসেম্বর, ২০২১, শুক্রবার

হামাসের ২০০ রকেটের জবাবে ইসরায়েলের ১৩০টি বোমা, বিধ্বস্ত গাজা

সোমবার (১০ মে) ইসরায়েলের সামরিক বাহিনী ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় বোমাবর্ষণ করেছে। একই দিন ফিলিস্তিনের হামাস ইসরায়েলে সিরিজ রকেট হামলা চালিয়েছিল।

হামাস পরিচালিত প্যালেস্টাইনি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ইসরায়েলের হামলায় শিশুসহ অন্তত ২০ জন নিহত হয়েছে। এছাড়া হামাসের রকেটের আঘাতে ইসরায়েলেও আহতের খবর পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার (১১ মে) এখবর দিয়েছে ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, বিমান হামলায় অন্তত তিনজন হামাস মিলিট্যান্ট মারা গেছে বলে দাবি করেছে ইসরায়েল।

হামাস সূত্রে জানা গেছে, হামলায় ইজজেডাইন আল-কাসাম ব্রিগেডের অধিনায়ক মোহাম্মদ আবদুল্লাহ ফায়াদ নিহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা বিভাগ এক বিবৃতিতে গাজার অন্তত ১৩০টি স্থানে বোমাবর্ষণের দাবি করেছে। ইসরায়েলের দাবি— সোমবার হামাসের রকেট হামলার জবাবে জঙ্গিবিমান ও এটাক হেলিকপ্টার ব্যবহার করে গাজায় হামাস ঘাঁটিতে হামলা চালানো হয়। হামাসের এসব ঘাঁটির মধ্যে সংগঠনটির একটি গোয়েন্দা কার্যালয়ও রয়েছে। এছাড়া হামাসের একাধিক রকেট লঞ্চার, সামরিক ঘাঁটি, আন্ডারগ্রাউন্ড এটাক টানেল ও অস্ত্র নির্মাণ স্থাপনা ধ্বংস করে দেওয়ারও দাবি করেছে ইসরায়েল।

এর আগে আল আকসা মসজিদে ফিলিস্তিনিদের উপর হামলার প্রতিশোধ নিতে ইসরায়েলে রকেট হামলার হুমকি দেয় হামাস। সোমবার ইসরায়েলে অন্তত ২০০টির বেশি রকেট হামলা চালিয়েছে সংগঠনটি। গাজা উপত্যকা থেকে হামাসের ছোঁড়া এসব রকেটে ইসরায়েলের কয়েকটি অঞ্চলে আঘাত করেছে। তবে বেশিরভাগই ইসরায়েলের এয়ার ডিফেন্স সিস্টেমের বাঁধায় আকাশেই ধ্বংস হয়েছে।

গাজা থেকে ছোঁড়া রকেট ইসরায়েলের প্রতিহত করার মুহূর্ত। ছবি: টাইম অব ইসরায়েল।

ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা বিভাগ জানিয়েছে, গাজা থেকে ছোঁড়া ৯০ শতাংশ রকেটই ইসরায়েলের এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম ‘আয়রন ডোম’ প্রতিহত করেছে। তবে কিছু রকেট ইসরায়েলের ভূমিতে আঘাত করেছে।

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু বলেছেন, ইসরায়েল দুর্দান্ত শক্তি দিয়ে প্রতিক্রিয়া জানাবে। যারা আমাদের আক্রমণ করে তাদের চড়া মূল্য দিতে হবে।

জেরুজালেম পোস্টের খবরে বলা হয়েছে, হামাসের ছোঁড়া রকেটে ইসরায়েলের আশকেলন নামক এলাকার দু’টি বাড়িতে আঘাত করেছে। সব মিলিয়ে হামাসের হামলায় ইসরায়েলের ৩১ জন আহত হয়েছেন।

উল্লেখ্য, সোমবার আল আকসা মসজিদে পুলিশি হামলার প্রতিক্রিয়ায় হামাসের কাশেম ব্রিগেড ইসরায়েলের দক্ষিণাঞ্চলের আশকেলোন এলাকাকে নরকে পরিণত করার ঘোষণা দিয়েছিল।

গত শুক্রবার আল আকসা মসজিদে নামাজরত ফিলিস্তিনি মুসল্লিদের ওপর হামলা চালায় ইসরায়েলি পুলিশ। এ সময় রাবার বুলেট, স্টান গ্রেনেড এবং টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ করা হয়। এতে অন্তত ৩০০ জন ফিলিস্তিনি আহত হয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সোমবার নতুন করে এই বোমা হামলার ঘটনা ঘটে। মুসলিমদের তৃতীয় এই পবিত্র স্থানটি ইহুদিদেরও পবিত্র ধর্মীয় স্থান হিসেবে বিবেচিত।

এদিকে জেরুজালেমের ঘটনাকে কেন্দ্র করে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ জরুরি বৈঠক করেছে। এ সময় ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনির মধ্যে চলমান উত্তেজনা কমানোর আহ্বান জানিয়েছেন বিশ্ব নেতারা।

সর্বশেষ নিউজ