৭, মার্চ, ২০২১, রোববার

হিন্দুস্তানি মুসলিম হয়ে আমি গর্বিত : বিদায়ী ভাষণে আবেগাপ্লুত নবী আজাদ

শেষবারের মতো সংসদে এলেন প্রবীণ কংগ্রেস নেতা, দলটির সাংসদ এবং জম্মু-কাশ্মিরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী গোলাম নবী আজাদ।এদিন তাঁর বিদায় সংবর্ধনার বিশেষ আয়োজন করেছিল রাজ্যসভা। বিদায়ী ভাষণ দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও।

ভাষণে প্রধানমন্ত্রী-সহ সরকারপক্ষের সাংসদদের ধন্যবাদ জানান তিনি। শেষবার সংসদে দাঁড়িয়ে বিদায়ী ভাষণে বললেন- ‘হিন্দুস্তানি মুসলিম হয়ে আমি গর্বিত। আমি সৌভাগ্যবান যে, দেশভাগের সময় আমাকে পাকিস্তানে যেতে হয়নি। দেশের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়কে প্রতিনিধিত্ব করতে দেওয়ার জন্য ভারতীয় সংসদকে ধন্যবাদ।’

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানায়, যার হাত ধরে গুলাম নবীর সংসদীয় রাজনীতিতে প্রবেশ সেই ইন্দিরা গান্ধির প্রশংসায় পঞ্চমুখ ছিলেন এই প্রবীণ রাজনীতিবিদ। রাজীব গান্ধী, সোনিয়া গান্ধী এবং কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধীর প্রতি তিনি কৃতজ্ঞ। এদিন রাজ্যসভায় বিদায়ী ভাষণে এভাবেই বক্তব্য রাখেন তিনি।

আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি কংগ্রেসের বর্ষীয়ান নেতা আজাদের রাজ্যসভার মেয়াদ শেষ হচ্ছে।

মঙ্গলবার (০৯ ফেব্রুয়ারি) রাজ্যসভায় দেয়া ভাষণে আজাদ বলেন, ‘আমি কখনও পাকিস্তানে যাইনি। আমার মনে হয় তার জন্য আমি সৌভাগ্যবান। আমি সেই সকল ভাগ্যবানদের মধ্যেই পড়ি, যারা কখনও পাকিস্তানে যায়নি। আমি যখন পাকিস্তানের পরিস্থিতি নিয়ে কিছু পড়ি, তখন মনে হিন্দুস্তানি মুসলিম হওয়াটা আমার সারা জীবনের সবচেয়ে বড় গর্ব।’

এদিন গোলাম নবীর সঙ্গে নিজের রাজনৈতিক ক্যারিয়ারের স্মৃতিচারণ করে সংসদে দাঁড়িয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

আজাদকে প্রশংসায় ভাসিয়ে মোদী বলেন, ‘আমি আজাদকে বহু বছর ধরে চিনি। আমরা একসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী ছিলাম। আমি মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার আরও আগে থেকেই তার সঙ্গে কথা বলতাম, যোগাযোগ রাখতাম ও বিভিন্ন বিষয়ে মতবিনিময় করতাম। তখন আজাদ সাহেব রাজনীতিতে খুবই সক্রিয় ছিলেন।’

এসময় তিনি ২০০৭ সালে জম্মু-কাশ্মিরে গুজরাটের একদল পর্যটকের ওপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা স্মরণ করে আজাদের ভূমিকার কথা শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন।

চোখের জল মুছতে মুছতে বিরোধী দলীয় নেতা আজাদ সম্পর্কে মোদী বলেন, ‘ক্ষমতা আসে আর যায়। তবে সেটি কীভাবে সামলাতে হয়…,’- এটুকু বলে আজাদের উদ্দেশ্যে স্যালুট জানান তিনি।

আজাদের উদ্দেশ্যে মোদী আরও বলেন- ‘আমি আপনাকে অবসর নিতে দেবো না। আপনাকে ছাড়বো না। আমি আপনার উপদেশ নিতেই থাকবো। আমার দরজা আপনার জন্য সবসময় খোলা থাকবে।’

সর্বশেষ নিউজ