which trading platform has lt pulse indicator binary today usaa bitcoin investments is investing in bitcoin legal in us top bitcoin trading companies top 10 bitcoin trading sites how to show icons for alerts on the chart for optionshouse trading platform i want to invest in a bitcoin type currency trade4me binary options online crypto trading bot clik trading platform crypto trading in sinhala how to track your bitcoin investments binary options strategies for safe predictions bitcoin trading legal binary options scam israel winklevoss bitcoin investment 2020 eth vs bitcoin trading bitcoin trading today on nyse binary options writer options vs binary options binary extra option citadel binary options stock trading platform similar to mt4 real binary options trading market pro trading platform hedging binary option with call spread binary options bot autotrader small bitcoin investment should i invest in etherum or bitcoin crypto trading algortihim is it a good idea to invest in bitcoin now best crypto futures trading binary options trading usa no deposit bonus best currency pairs to trade asian session binary options invest in bitcoin or stockmarket too late to invest in bitcoin 2011 best computer for crypto trading trading bitcoin on different exchanges boatim trading platform are binary options legit or a scam how to invest bitcoin canada how much do you make trading binary options how to invest in bitcoin trading platform bitcoin trading on wall street can a binary options broker verify foreign identity oid folio trading platform eu regulated binary options brokers how will bitcoin futures trading affect price professional at binary options trading crypto exchange for auto trading best bitcoin trading session is bitcoin trading taxed bitcoin futures trading investir bitcoin islam the bitcoin investment trust is it easy to make 2 everyday trading crypto option holder 24option binary option robot crypto currency trading course
৮, মে, ২০২১, শনিবার

১২-১৩ এপ্রিলও কঠোর নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকবে

চলমান করোনা পরিস্থিতিতে গত ৫ এপ্রিল থেকে শুরু হওয়া ৭ দিনের লকডাউন শেষ হচ্ছে আজ। আগামী ১৪ এপ্রিল থেকে আরও কঠোর লকডাউন শুরু হচ্ছে। আপাতত সেই লকডাউনও চলবে ৭ দিন। তবে পরিস্থিতি বুঝে ধাপে ধাপে সময় বাড়ানো হতে পারে।

দ্বিতীয় দফায় ১৪ এপ্রিল থেকে কঠোর লকডাউন শুরু আগে মাঝের দুদিন ১২ ও ১৩ এপ্রিলও চলমান কঠোর নিধেধাজ্ঞার বলতৎ থাকবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

রবিবার (১১ এপ্রিল) সরকারি বাসভবনে নিয়মিত ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা জানান।

এদিকে গত শুক্রবার (৯ এপ্রিল) দুপুরে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন জানিয়েছেন, আগামী বুধবার (১৪ এপ্রিল) থেকে ৭ দিনের কঠোর লকডাউনে যাচ্ছে দেশ। জরুরি সেবা ছাড়া সরকারি-বেসরকারি সব অফিস বন্ধ থাকবে। কোনও যানবাহনের চাকা ঘুরবে না। পোশাক ও সকল শিল্প কারখানাও বন্ধ থাকবে।

ওইদিন সকালে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের নিয়মিত ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের জানান, দেশে করোনা সংক্রমণ ভয়াবহ রূপ নিয়েছে, লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার। সঙ্গে বাড়ছে জনগণের অবহেলা ও উদাসীনতা। এমতাবস্থায় জনস্বার্থে আগামী ১৪ এপ্রিল থেকে এক সপ্তাহের জন্য সর্বাত্মক লকডাউনের বিষয়ে সক্রিয় চিন্তা-ভাবনা করছে সরকার।’

চলমান এক সপ্তাহের লকডাউনে জনগণের উদাসীন মানসিকতার কোনও পরিবর্তন হয়নি বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

এর আগে গত ৪ এপ্রিল মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে কঠোর নিষেধাজ্ঞা সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করে ৫ এপ্রিল থেকে কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করে সরকার। তবে সবখানেই সরকার ঘোষিত লকডাউনে স্বাস্থ্যবিধি ভঙ্গ করার প্রবণতা দেখা যায়।

দেশে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ও মৃত্যু বৃদ্ধি পাওয়ায় পরিস্থিতির মোকাবিলায় সরকারের পক্ষ থেকে গত ২৯ মার্চ ১৮ দফা জরুরি নির্দেশনা জারি করা হয়। ৩১ মার্চ থেকে গণপরিবহনে ৫০ শতাংশ যাত্রী পরিবহন শুরু হয়। ১ এপ্রিল থেকে নৌপথেও অর্ধেক যাত্রী পবিবহন কার্যকর হয়। অর্ধেক আসন ফাঁকা রাখার নির্দেশনা কার্যকরে গণপরিবহনে ৬০ শতাংশ ভাড়া বাড়ানো হয়।

করোনার সংক্রমণ মোকাবিলায় গত ৩ এপ্রিল সারা দেশে এক সপ্তাহের জন্য লকডাউনের ঘোষণা দেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সড়কমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এর পরদিনই প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন সাপেক্ষে এটি প্রজ্ঞাপন আকারে জারি হয়। ওইদিনই অপর এক ঘোষণায় কাদের জানান, এক সপ্তাহ লকডাউন শুরু প্রথম দিন অর্থাৎ সোমবার (৫ এপ্রিল) থেকে সারা দেশে গণপরিবহন চলাচল বন্ধেরও সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

তবে চরম জনভোগান্তি ও জনদাবির মুখে লকডাউন শুরুর তৃতীয় দিন ৭ এপ্রিল থেকে দেশের সিটি করপোরেশন এলাকায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে গণপরিবহন চলাচল করতে পারবে বলে জানান কাদের।

করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে গেল বছর ২৩ মার্চ প্রথমবার ‘সাধারণ ছুটি’ ঘোষণা দিয়েছিল সরকার। শুরুতে ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত ‘ছুটি’ ঘোষণা করেও পরে দফায় দফায় সেই মেয়াদ মেয়াদ বাড়ানো হয়। সেসময় সব অফিস-আদালত, কল-কারখানা, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে সারা দেশে সব ধরনের যানবাহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। ছুটির মধ্যে সবকিছু বন্ধ থাকায় সেই পরিস্থিতি ‘লকডাউন’ হিসেবে পরিচিতি পায়।

কিন্তু টানা সাধারণ ছুটির কারণে নিম্নবিত্তের জীবন-জীবিকা ও দেশের উৎপাদন ব্যবস্থা অস্তিত্ব সংকটে পড়লে বিভিন্ন মহলের দাবির মুখে সরকার ৩১ মে’র পর থেকে ধাপে ধাপে বিধিনিষেধ শিথিল করতে থাকে। বছরের শেষে এসে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ছাড়া আর সবকিছুতেই কড়াকড়ি উঠে যায়।

তবে চলতি বছরের শুরুতে করোনার সংক্রমণ অনেকটা কমে এলেও মার্চ মাসের শুরু থেকেই ধীরে ধীরে আবারও বাড়তে থাকে। মাসের শেষ সপ্তাহ নাগাদ তা ব্যাপকভাবে বেড়ে যায়। আর এপ্রিলের গত ১০ দিনে প্রতিদিনই আক্রান্ত ও মৃত্যু আগের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে।

সর্বশেষ নিউজ