৬, ডিসেম্বর, ২০২২, মঙ্গলবার

ভারতের ভাগ্য পাকিস্তানের হাতে

এশিয়া কাপের ফাইনাল প্রায় নিশ্চিত বলা যায় শ্রীলংকার। অন্যদিকে বিদায় প্রায় নিশ্চিত ভারতের। কথা ছিল সুপার ফোরে ২ ম্যাচ হারলেই শেষ এশিয়া কাপ মিশন। কিন্তু পর পর ২ ম্যাচ হেরেও ঝুলে রইল ভারতের ফাইনাল-ভাগ্য।

এ যেন কোমায় রয়েছে ভারত। মূলত: ক্রিকেট খেলাই অনিশ্চয়তার। কাগজে-কলমে যতক্ষণ সম্ভাবনা থাকে, ততক্ষণ শেষ কথা বলে দেওয়ার সুযোগ নেই।

তাহলে কোন ভিত্তিতে এখনও ২ ম্যাচ হারা ভারতের আশা জিইয়ে? সংক্ষেপে জবাব চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের হাতে এখন ভারতের এশিয়া কাপের ভাগ্য!

বুধবার সুপার ফোরের তৃতীয় ম্যাচে আফগানিস্তানের মুখোমুখি হবে পাকিস্তান। সে ম্যাচে পাকিস্তান জিতলেই এশিয়া কাপের ফাইনালে আর ওঠা হচ্ছে না ভারতের।

কারণ, পাকিস্তানের পর শ্রীলংকার কাছেও হেরে এশিয়া কাপের ফাইনালে যাওয়ার পথ ভারতের জন্য কঠিন।

বৃহস্পতিবার শুধু আফগানিস্তানকে বড় ব্যবধানে হারালেই হবে না। অন্য ম্যাচগুলির ফলাফলের দিকেও তাকিয়ে থাকতে হবে রোহিত শর্মাদের।

মঙ্গলবারের পর ৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে রয়েছে শ্রীলংকা। দ্বিতীয় স্থানে থাকা পাকিস্তানের সংগ্রহ ২ পয়েন্ট। ভারত এবং আফগানিস্তানের ঝুলিতে পয়েন্ট শূন্য।

এই অবস্থা থেকে ফাইনালে ভারতকে উঠতে হলে পাকিস্তানকে হারাতে হবে আফগানিস্তানের। আর শ্রীলংকাকে তাদের শেষ ম্যাচেও জিততে হবে পাকিস্তানের বিপক্ষে। অর্থাৎ নিজেদের বাকি দুটি ম্যাচে জেতানো যাবে না বাবর আজমের দলকে। এটা হলেই একমাত্র রোহিতদের কপাল খুলবে।

ব্যাপারটি এমন যে পাকিস্তান বাকি দু’টি ম্যাচ হারলে ভারতের ফাইনালের পথ সুগম হয়। এরসঙ্গে আফগানিস্তানের বিপক্ষে জিততে হবে ভারতকে। এটা হলে পাকিস্তান, আফগানিস্তান এবং ভারত— তিন দলের পয়েন্টই হবে ২।

তখন দেখা হবে নেট রান রেট। আফগানিস্তানের মতোই ভারতের সংগ্রহে পয়েন্ট না থাকলেও নেট রান রেটে এগিয়ে রয়েছে ভারত। আফগানিস্তানকে বড় ব্যবধানে হারালে সেই ব্যবধান আরও বাড়বে। অন্য দিকে, পাকিস্তান বাকি দু’টি ম্যাচই হারলে বাবর আজমদের নেট রান রেট খারাপ হবে। এক মাত্র তখনই নেট রান রেটের বিচারে ফাইনাল খেলার ছাড়পত্র পাবে ভারত দল।

আর বুধবার পাকিস্তানের বিপক্ষে আফগানিস্তান হেরে গেলেই ছিটকে যাবে ভারত। মাটি হবে এশিয়া কাপ জয়ের হ্যাটট্রিকের সুযোগ। সে হিসেবে পাকিস্তানের হাতে ভারতের ভাগ্য।

সর্বশেষ নিউজ