৫, ডিসেম্বর, ২০২২, সোমবার

বাংলাদেশের প্রথম ছয় লেনের কালনা মধুমতি সেতুর ভার্চুয়ালের মাধ্যমে উদ্ধোধন করলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

কাজী ওহিদ- বাংলাদেশের প্রথম ছয় লেনের দৃষ্টিনন্দন গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী মধুমতি নদীতে নির্মিত”কালনা মধুমতি সেতু” ১০ অক্টোবর রোজ সোমবার দুপুর ১২ টায় ভার্চুয়ালের মাধ্যমে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা এমপি উদ্ভোধন করেছেন। উদ্বোধন অনুষ্ঠানটি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় হতে সরাসরি সম্প্রচার করা হয়েছে। অনুষ্ঠানটি কাশিয়ানী উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে ভাটিয়াপাড়া এস বি টাওয়ার থেকে আনুষ্ঠানিক ভাবে দেখানো হয়। ভাটিয়াপাড়া এস বি টাওয়ার অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম মেম্বার ও গোপালগঞ্জ- ১ আসন হতে বার বার নির্বাচিত সংসদ সদস্য মুহাম্মদ ফারুক খান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন কাশিয়ানী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মেহেদী হাসান,কাশিয়ানী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোক্তার হোসেন, সাধারন সম্পাদক কাজী জাহাঙ্গীর হোসেন,মুকসুদপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও মুকসুদেুর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ রবিউল আলম সিকদার,সাধারন সম্পাদক সাহিদুর রহমান টুটুল, কাশিয়ানী থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ সওগাতুল আলম প্রমূখ। ঢাকা- মাওয়া- যশোর ও বেনাপোল মহাসড়কের গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী উপজেলার মধুমতি নদীতে নির্মিত দেশের প্রথম ছয় লেনের কালনা মধুমতি সেতু। বাংলাদেশের ইতিহাসে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ম শেখ হাসিনা সরকারের আমলে এই প্রথম ছয় লেনের সেতু নির্মিত হলো। কালনা মধুমতি সেতু উদ্ধোধন হওয়ায় সমগ্র দক্ষিণ পশ্চিম অঞ্চলের মানুষের যোগাযোগের ক্ষেত্রে এক নতুন দ্বার উন্মোচন হলো । ৯ হাজার ৬০০ কোটি টাকা ব্যয়ে সওজের ক্রস বর্ডার রোড নেটওয়ার্ক ইমপ্রুভমেন্ট প্রজেক্টের আওতায় জাইকার অর্থায়নে মোনায়েম এবং জাপান জেভী সেতুটি নির্মাণ করেছে। সেতু নির্মাণ করতে প্রায় ৪ বছর সময় লেগেছে। এ সেতু চালু হওয়ায় নড়াইল,যশোর, বেনাপোল, সাতক্ষীরা হতে ঢাকায় যাতায়াতকারী পরিবহন মাগুরা- ফরিদপুর হয়ে যাতায়াতের পরিবর্তে এখন কালনা মধুমতি সেতু হয়ে যাতায়াত করবে। এতে বেনাপোল ও যশোর থেকে ঢাকার দূরত্ব মাত্র ১১৩ কিলোমিটার।

সর্বশেষ নিউজ