২৬, ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, সোমবার
     

নির্বাচনে ৪০ শতাংশ ভোট পড়েছে: সিইসি

স্টাফ রি‌পোর্টারঃ
সারা দেশে শান্তিপূর্ণ ভোটগ্রহণ হয়েছে দাবি করে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেছেন, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৪০ শতাংশ ভোট পড়েছে।

ভোটগ্রহণ শেষে বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে আগারগাঁও নির্বাচন কমিশন (ইসি) ভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন তিনি।

সিইসি বলেন, ৪০ শতাংশ ভোট কাস্ট হয়েছে। তবে এই সংখ্যা বাড়তেও পারে আবার কমতেও পারে। ফাইনাল রেজাল্ট পেতে আরও কয়েক ঘণ্টা সময় লাগবে।

স্বস্তি প্রকাশ করে তিনি বলেন, বড় স্বস্তির জায়গা হলো নির্বাচনি সহিংসতায় কোনো মৃত্যুর ঘটনা ঘটেনি। এখানে স্বস্তিতে আছি আমরা।

সিইসি আরও বলেন, আমাদের ভুলত্রুটি ছিল না তা বলব না। সবার সহযোগিতায় আমাদের চেষ্টা ছিল ভালো ভোট করার। তবে আমরা বলব না খুব ভালো করেছি। কিন্তু চেষ্টা করেছি আমরা। প্রশাসন পুলিশের সামান্য কিছু অভিযোগ ছাড়া তেমন কোনো অভিযোগও পায়নি ইসি।

নির্বাচনের গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে বলেন, নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে। তবে আন্তর্জাতিকভাবে গ্রহণযোগ্যতা পাবে কি না আমি জানি না।

হাবিবুল আউয়াল বলেন, নির্বাচন নিয়ে যে শঙ্কা ছিল ভোটার উপস্থিতি কম হবে কিন্তু সে শঙ্কা কেটে গেছে। ভোটাররা স্বতঃস্ফূর্তভাবে ভোট দিয়েছে। সকালে আমরা শান্তিপূর্ণ অবস্থা দেখেছি। পরে টিভির তথ্য থেকে মনে হয়েছে সহিংসতার মতো গুরুতর ঘটনা ঘটেনি। তারপরও যা ঘটেছে আমরা ব্যবস্থা নিয়েছি। আমরা গ্রেপ্তার করেছি, মামলা করেছি।

তিনি আরও বলেন, কিছু কিছু অভিযোগ এসেছে ব্যালটে সিল মারার। আমাদের মনিটরিং সেল সেটি পর্যবেক্ষণে রেখেছে। আমরা ক্রস চেক করে যখন দেখেছি ঠিক তখন ব্যবস্থা নিয়েছি। শেষ মুহূর্তে একজনের প্রার্থিতা বাতিল করেছে।

এর আগে দুপুরে নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব মো. জাহাংগীর আলম জানিয়েছিলেন, বিকাল ৩টা পর্যন্ত ঢাকায় ২৫ শতাংশ, চট্টগ্রামে ২৭ শতাংশ, খুলনায় ৩২ শতাংশ, সিলেটে ২২ শতাংশ, ময়মনসিংহে ২৯ শতাংশ, রাজশাহীতে ২৬ শতাংশ, রংপুরে ২৬ শতাংশ ও বরিশালে ৩১ শতাংশ ভোট পড়েছে। গড়ে ২৭.১৫ শতাংশ ভোট পড়েছে। এক ঘণ্টায় সেটি বেড়ে ৪০ শতাংশ হওয়ার তথ্য জানালেন সিইসি।

সংসদ নির্বাচনে আজ ৩০০ আসনের মধ্যে ২৯৯টিতে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। একজন স্বতন্ত্র প্রার্থীর মৃত্যুর কারণে নওগাঁ-২ আসনের ভোট স্থগিত করা হয়েছে।

নির্বাচনে এবার ভোটার সংখ্যা ১১ কোটি ৯৬ লাখ ৯১ হাজার ৬৩৩ জন। এর মধ্যে ৬ কোটি ৭ লাখ ৭১ হাজার ৫৭৯ জন পুরুষ আর ৫ কোটি ৮৯ লাখ ১৯ হাজার ২০২ জন নারী ভোটার। তৃতীয় লিঙ্গের ভোটারের সংখ্যা ৮৫২। সারা দেশে ভোট কেন্দ্রের সংখ্যা ৪২ হাজার ১০৩টি, আর ভোটকক্ষ ২ লাখ ৬১ হাজার ৯১২টি।

রবিবার সকাল ৮টা থেকে শুরু হওয়া ভোট বিরতিহীনভাবে চলে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। ভোটকেন্দ্রে বেশি পরিমাণে জাল ভোট ও ভাঙচুরের ঘটনায় এ পর্যন্ত সাতটি ভোটকেন্দ্রের ভোট বাতিল করা হয়েছে। বেলা ১২টার পরে কক্সবাজারে ও নরসিংদীতে দুটি কেন্দ্রের ভোট বাতিল করা হয়। ভোট কেন্দ্রে জাল ভোট ও জাল ভোটে সহায়তা করার অভিযোগে প্রিজাইডিং অফিসার, সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারসহ ১৫ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি দেওয়া হয়েছে। এছাড়া মিডিয়ার তথ্য অনুযায়ী ৩০ থেকে ৩৫টি জায়গায় ভোট কেন্দ্রের বাইরে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, ভাঙচুর ও ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে।

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে হুমকি দেওয়ার দায়ে চট্টগ্রাম ১৬ আসনের নৌকার প্রার্থী মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরীর প্রার্থিতা বাতিল করেছে নির্বাচন কমিশন।

               

সর্বশেষ নিউজ