২২, সেপ্টেম্বর, ২০২০, মঙ্গলবার

রিজেন্ট কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়েও জাল সার্টিফিকেট দিতেন শাহেদ

শাহেদ রিজেন্ট কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে অনেক জাল সার্টিফিকেট দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন র‌্যাব। মঙ্গলবার দুপুরে র‌্যাব সদর দপ্তরে ব্রিফিংয়ে এ কথা জানান র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক আশিক বিল্লাহ।

তিনি বলেন, এতে শিক্ষার্থীদের মূল্যবান সময় নষ্ট হয়েছে। যে সনদগুলো শিক্ষার্থীদের দেওয়া হয়েছে, তা জাল। এই সনদের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা তাদের ব্যক্তিজীবন ও শিক্ষা জীবনে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন।

তিনি জানান, শাহেদের মত প্রতারণায় অন্য যারা জড়িত তাদেরও আইনের আওতায় আনা হবে। রিজেন্টের চেয়ারম্যান শাহেদকে গ্রেপ্তার করতে দেশের সব জায়গায় অভিযান চলছে।

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক আশিক বিল্লাহ বলেন, প্রতারণার জগতে শাহেদ আইডল। প্রতারণাকে কীভাবে ব্যবহার করে সরল সাধারণ মানুষের সঙ্গে ঠকবাজি করে কিভাবে একটা পর্যায়ে আসা যায় তার অনন্য দৃষ্টান্ত সাহেদ।

তিনি আরও বলেন, নতুন করে অনেক অভিযোগই আমাদের কাছে আসছে। সর্বশেষ যে অভিযোগ এসেছে- রিজেন্ট কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে অনেক জাল সার্টিফিকেটও দিয়েছেন শাহেদ। এ প্রতারক যাতে পালিয়ে যেতে না পারে এজন্য সারা দেশসহ সীমান্তেও নজরদারি বাড়ানো হয়েছে।

সাংবাদিক, রাজনীতিক, আমলাসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির সঙ্গে শাহেদের ছবি থাকার বিষয়ে র‌্যাবের এই কর্মকর্তা বলেন, ‘শাহেদের ছবির বিষয়ে আমাদের ধারণা থাকা দরকার। কারও সঙ্গে কারও ছবি থাকা মানে এই নয় যে, তিনি তার পৃষ্ঠপোষক। যে কারও সঙ্গে বা গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিবর্গের সঙ্গে মানুষ ছবি তুলতে চাইবেই। এটা খুবই স্বাভাবিক প্রক্রিয়া। তার মানে এই নয় যে, ওই গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি শাহেদকে একজন প্রতারক জেনেও তার সঙ্গে ছবি তুলেছেন। রাষ্ট্রের একজন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি যখন কারও সঙ্গে ছবি তোলেন সেটি নেহাত সৌজন্যবশত। এর পেছনে যদি কারও পৃষ্ঠপোষকতা থাকে, সেটি নিশ্চয়ই তদন্তকারী কর্মকর্তা তদন্ত করে খতিয়ে দেখবেন।’

সর্বশেষ নিউজ