২৫, অক্টোবর, ২০২০, রোববার

ইতিহাসে প্রথমবারের মতো এক মিকাত দিয়ে মক্কা যাবেন হাজীরা

ইতিহাসে প্রথমবারের মতো এক মিকাত দিয়ে মক্কা প্রবেশ করবেন হাজীরা। নির্ধারিত মিকাত ছাড়া অন্যগুলো ব্যবহারের সুযোগ এবার থাকছে না।

করোনার সংক্রমণ ও বিস্তার রোধে এ বছর হজের আয়োজন একেবারে সীমিত করেছে সৌদি সরকার। দেশ-বিদেশের মাত্র ১০ হাজার মানুষ এবার হজ করবেন।

এমনকি মিকাত তথা ইহরামের কাপড় পরে হজ অথবা ওমরাহর নিয়তে মক্কা গমনের পথও এবার নির্ধারণ করে দিয়েছে হজ কর্তৃপক্ষ।

আল আরাবিয়ার এক প্রতিবেদনে বলা হয়, এ বছর হজে তায়েফের নিকটবর্তী মিকাতকরণে মানাজিলকে ব্যবহারের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। বাকি চার মিকাত দিয়ে মক্কা প্রবেশের সুযোগ নেই।

উদ্ভূত এ মহামারী ঠেকাতে সর্বোচ্চ পদক্ষেপ নিয়েছে দেশটি। মাশায়েরে মুকাদ্দাসা বা মিনা, মুজদালিফা এবং আরাফা গমনের পথে ৬২টি চেকপয়েন্ট বসিয়েছে মক্কা পুলিশ।

সরকারি অনুমতিপত্র ছাড়া কেউ এ পথ অতিক্রম করতে পারবে না। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জারি করা এ নির্দেশনা অমান্য করলে গুনতে হবে ১০ হাজার সৌদি রিয়াল।

চেকপয়েন্টে দায়িত্বে থাকা মক্কা মোকাররমা ট্রাফিক পুলিশের সিনিয়র অফিসার কর্নেল তারিক আল রুবায়ান বলেন, এ বছর সীমিতসংখ্যক লোকদের হজের অনুমতি দেয়া হয়েছে। সরকারি অনুমতিপত্র ছাড়া কাউকে হজের স্থানগুলোতে যেতে দেয়া হবে না।

তিনি বলেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এ বিষয়ে ইতোমধ্যেই কড়া নির্দেশনা জারি করেছেন।

কর্নেল তারিক বলেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নির্দেশনার পর আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী মাশায়েরে মুকাদ্দাসা বা মিনা, মুজদালিফা এবং আরাফার পথে বিশেষ চেকপয়েন্ট স্থাপন করেছে। পর্যায়ক্রমে ২৪ ঘণ্টা সেখানে নজরদারি করা হবে।

তিনি বলেন, হেঁটে বা গাড়িতে হজের অনুমতিপ্রাপ্ত ব্যক্তি ছাড়া কেউ এসব পথ অতিক্রম করতে পারবে না।

আল আরাবিয়া উর্দু অবলম্বনে- মুহাম্মদ বিন ওয়াহিদ

সর্বশেষ নিউজ