২২, অক্টোবর, ২০২০, বৃহস্পতিবার

সড়ক নয়,যেন মরণ ফাঁদ

মিজানুর রহমান নয়ন, কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: কর্তৃপক্ষের উদাসীনতা ও স্থানীয়দের সচেতনার অভাবে কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার পান্টি বাজারের নওশের মোড় থেকে বাঁশগ্রাম বাজার পর্যন্ত নয় কিলোমিটার সড়কের। কোথাও কোথাও নির্মাণের অল্প দিনের মধ্যেই পিচ–খোয়া উঠে সৃষ্টি হয়েছে অসংখ্য খানাখন্দ। কোথাও আবার ধসে পড়েছে সড়ক।কয়েটি পয়েন্টে তৈরি হয়েছে ছোট ছোট পুকুরের মত গর্ত।সামান্য বৃষ্টিতেই পানি জমে সড়কটি চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ে। আবার রোদের সময় ধুলাবালুর কারণে চোখ-মুখ বন্ধ করে চলাচল করতে হয়। সব মিলে এটি যেন আর সড়ক নয়,মরণ ফাঁদে পরিনিত হয়েছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, পান্টি বাজারের নওশের মোড় টু বাঁশগ্রাম সড়কে সৃষ্টি হয়েছে অসংখ্য ছোট বড় গর্ত।কোথাও আবার বৃষ্টির পানি জমে পুকুরের মত অবস্থা।কোথাও কোথাও উঠে গেছে কার্পেটিং। ভেঙে গেছে পাড়।

এবিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া শিক্ষার্থী কে এম হিমেল বলেন, বিটুমিনের কার্পেটিং উঠে ছোট-বড় অসংখ্য গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। রোদে যানবাহনের ধুলায় আচ্ছন্ন হয়ে যায়। আর বৃষ্টিতে হাঁটু পানি কাঁদা হয়ে যায়। এসড়কের সেলুন ব্যবসায়ী নিরঞ্জন বিশ্বাস বলেন, প্রায় চার বছর ধরে রাস্তার বেহাল অবস্থা।বর্ষায় কাঁদাপানি আর শুকনার সময় প্রচুর ধুলোয় দোকানে থাকা যায়না।

পিকআপ চালক ওহিদুল বলেন, প্রায় গাড়ি ভেঙে ওল্টে যায়।মালামাল নষ্ট হয়।গাড়ির ঘোড়ার ব্যাপক ক্ষতি হয়।সিএনজি চালক রফিকুল বলেন,রাস্তার খুব খারাপ অবস্থা। অসুস্থ মানুষ নিয়ে চলাচল করা যায়না।সুস্থ মানুষ গুলোও অসু্স্থ হয়ে পড়ে।

পান্টি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ হাফিজুর রহমান বলেন,মানুষের অসচেতনায় রাস্তার পাশে পুকুরের পাড় বেঁধে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি করা ও গবাদি পশুর বর্জ ফেলায় নওশের মোড় থেকে পান্টি বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত রাস্তার বেহাল দশা।

সড়কটি সংস্কারের ব্যাপারে উপজেলা প্রকৌশলী মাহবুব আলম বলেন, আট কোটি টাকা ব্যয়ে সড়কটির কাজ শুরু হয়েছে।আশা করছি খুব দ্রুতই ভোগান্তি দুর হবে।

সর্বশেষ নিউজ