২৫, অক্টোবর, ২০২০, রোববার

ধলেশ্বরীর ভাঙ্গনে নিঃস্ব মানুষের পাশে বিকল্প ধারার নেতৃবৃন্দ:

সিরাজ‌দিখান (মুন্সীগঞ্জ) প্রতি‌নি‌ধিঃ সিরাজদিখান উপজেলার কেয়াইন ইউনিয়নের ইসলামপুর(গাবেরপাড়া) গ্রামে ধলেশ্বরী নদীর স্রোতে ভেঙ্গে যাওয়া এলাকা পরিদর্শন করেন বিকল্পধারা বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দ। আজ দুপুর বারোটায় বিকল্প যুবধারার কেন্দ্রীয় সভাপতি,বিকল্পধারা বাংলাদেশের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক ও মুন্সীগঞ্জ -01 আসনের সংসদ সদস্য মাহী বি চৌধুরীর এপিএস উপাধ্যক্ষ মোঃ আসাদুজ্জামান বাচ্চুর নেতৃত্বে নদী ভাঙ্গনে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় আসেন বিকল্প ধারার নেতৃবৃন্দ। তারা এসময় নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যাওয়া বিভিন্ন বাড়িঘরের মালিকদের সাথে কথা বলেন ও তাদের সার্বিক খোঁজ খবর নেন। ধলেশ্বরীর করাল থাবায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হেদায়েতউল্লাহ শিকদার বলেন,”বাপ-দাদার ভিটামাটি ও আমার স্বপ্নের বিল্ডিং সব কেড়ে নিল নিষ্ঠুর ধলেশ্বরী।তিনি আরো বলেন আজ আমি নিঃস্ব,ঘরছাড়া,বাড়িহারা।জীবনে এমন আঘাত আসবে কখনো ভাবিনি”।

স্থানীয় অধিবাসী আলমগীর বলেন- “মাত্র কয়েকদিনে প্রায় বিশটি পরিবারের বসতবাড়ি সম্পূর্ণরূপে নদীতে বিলীন হয়ে গেছে। তীব্র স্রোত ও নদীর গতিপথ পরিবর্তনই এই ভাঙ্গনের কারণ বলে তিনি মনে করেন। তিনি ক্ষোভের সাথে বলেন- প্রশাসনের পক্ষ থেকে দ্রুত কার্যকরী পদক্ষেপ না নিলে আরো বিশ/ পঁচিশটি বাড়ি যে কোনো সময় ধলেশ্বরীতে হারিয়ে যাবে। সরেজমিনে দেখা যায়, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শেখ আশরাফ আলীর উদ্যোগে বালুর বস্তা নদীতে ফেলা হচ্ছে।

বাড়িঘর হারিয়ে পাগলপ্রায় কুদ্দুস শিকদার বলেন-কিভাবে কী হয়ে গেল কিছুই বুঝতে পারলাম না।মুহুর্তেই সব তছনছ হয়ে গেল, এমন সর্বনাশ হবে কখনো ভাবিনি।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায় ধলেশ্বরীর এই সর্বনাশা ভাঙ্গনে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্তরা হলেন-হেদায়েতউল্লাহ শিকদার,আঃ মতিন শিকদার,রফিক শিকদার,জাহিদ শিকদার,বেলায়েত শিকদার,সাখাওয়াৎ শিকদার,কালাম শিকদার,টিটু শিকদার, আঃ সাত্তার শিকদার, আঃ গাফ্ফার শিকদার,মোঃ মাহবুব,পারভীন বেগম,মোঃ কাউছার,ফরিদ শিকদার,মজিবুর শিকদার,নিয়ামত শিকদার, আবুল বেপারী,লতিফ বেপারী,মান্নান শিকদার,জাহাঙ্গীর শিকদার,হোসেন শিকদার,মোঃ হাবুল প্রমুখ। বাড়িঘরসহ প্রত্যেকের ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ চল্লিশ থেকে পঞ্চাশ লক্ষ টাকা বলে দাবি করেন ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস্য মোঃ কুদ্দুস শিকদার।দুটি বিল্ডিং এর মালিক হেদায়েতউল্লাহ ও সাখাওয়াত শিকদারের ক্ষতির পরিমান টাকার অংকে তিন থেকে প্রায় চার কোটি।

বিকল্প ধারার কেন্দ্রীয় নেতা উপাধ্যক্ষ মোঃ আসাদুজ্জামান বাচ্চু উপস্থিত লোকজনের উদ্দেশ্যে বলেন-আপনাদের সহায়-সম্পদের এই বিপর্যয় অপূরণীয়,তাই আমরা আপনাদের প্রতি সহমর্মী। আমরা বিষয়টি মাননীয় সংসদ সদস্যকে বিস্তারিত জানাবো এবং তাঁর কাছ থেকে সার্বিক সহযোগিতা পেতে ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে থাকবো,ইনশাল্লাহ।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সিরাজদিখান উপজেলা বিকল্প ধারার সভাপতি ও রশুনিয়া ইউপি’র সাবেক চেয়ারম্যান এটিএম রূহুল আমীন,সাধারণ সম্পাদক বজলুর রহমান বেপারী,কেয়াইন ইউনিয়ন বিকল্প ধারার সভাপতি মোঃ আশরাফ,উপজেলা যুবধারার সহসভাপতি দুলাল সরদার,আমিনুল ইসলাম লিপু,যুগ্ম-সম্পাদক হাফিজুর রশিদ খান,হাবিবুর রহমান বাবু,আরিফ হোসেন বেপারী,সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুদ বিন গণি,প্রচার সম্পাদক মোঃ আজিম ভূইঁয়া,কার্যকরী সদস্য মোঃ মোর্তোজা, তুহিন বেপারী, আল মামুন মোল্লা,শিহাব ভূইঁয়া,মোঃ নাহিদ,মোঃ মাহফুজ প্রমুখ।

সর্বশেষ নিউজ