২২, অক্টোবর, ২০২০, বৃহস্পতিবার

যে কারণে ভিভোর সঙ্গে আইপিএলের চুক্তি বাতিল

২০১৮ সালে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের (বিসিসিআই) সঙ্গে পাঁচ বছরের জন্য আইপিএলের স্পন্সর হতে চুক্তি করে চীনের মোবাইল ফোন কোম্পানি ভিভো। চুক্তি অনুযায়ী প্রতি বছর বিসিসিআইকে ৪৪০ কোটি টাকা দেয় তারা। নির্ধারিত সময় শেষ হওয়ার আগেই সেই চুক্তি বাতিল হয়।

গত ১৫ জুন লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় চীনের সেনাবাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষ হয় ভারতীয় সেনাদের। এতে ২০ জন ভারতীয় সেনার মৃত্যু হয়। তারপর থেকেই ভারতজুড়ে চীনবিরোধী মনোভাব প্রকট হয়।

প্রতিবেশী দুই দেশের সীমান্ত সমস্যার মধ্যেই বিসিসিআইয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ভিভোর সঙ্গে টাইটেল স্পন্সরশিপ নিয়ে কোনো সমস্যা হবে না। গত রোববার আইপিএলের গভর্নিং কাউন্সিলের বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয় আইপিএলের টাইটেল স্পন্সর হিসেবে ভিভো থাকছে। এরপরই কঠোর সমালোচনার মুখে পড়ে বিসিসিআই।

বৃহস্পতিবার ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে পাঠানো মেইল বার্তায় জানানো হয়- চলতি বছর আইপিএলে টাইটেল স্পন্সর থাকছে না ভিভো। কেন থাকছে না তা স্পষ্ট করেনি বিসিসিআই।

এ ব্যাপারে ভারতের ক্রীড়াবিষয়ক আইনজীবী নন্দন কামাথ বলেছেন, যদি দুই পক্ষই রাজি হয় তাহলে একটি চুক্তিতে এরকম কাটাছেঁড়া করা সম্ভব, যেমন- এক বছরের জন্য সাসপেনশন কিংবা ব্রেকআপ। এমন চুক্তিতে সরাসরি সরকারের হস্তক্ষেপ ছাড়া শুধু জনগণের সেন্টিমেন্টের জন্য চুক্তি সাধারণত পরিবর্তন কেউ করে না।

সর্বশেষ নিউজ