২৯, অক্টোবর, ২০২০, বৃহস্পতিবার

নরসিংদী শিবপুরে কিশোরিকে শ্বাসরোধ ও গলা কেটে হত্যা করছে দুর্বৃত্তরা

সাইফুল ইসলাম রদ্র, নরসিংদী জেলা প্রতিনিধিঃ নরসিংদীর শিবপুরে ঝুমা আক্তার (১২) নামের এক কিশোরিকে শ্বাসরোধ ও গলা কেটে হত্যা করছে দুর্বৃত্তরা। কৃহস্পতিবার ( ৬ আগস্ট) রাতে শিবপুর উপজেলার দুলালপুর ইউনিয়নের খামার শিমুলিয়া গ্রামে রাতের কোন এসময় এ ঘটনা ঘটে। নিহত ঝুমা আক্তার শিমুলিয়া গ্রামের মুকুল মিয়ার দ্বিতীয় সংসারের মেয়ে।

নিহত ঝুমা পারিবারিক অভাবের কারণে ঠিকমত লেখা পড়া করতে পারেনি। তবে আবার নতুন করে স্থানীয় প্রাথমিক বিদ্যালয়ে তৃতীয় শ্রেণিতে ভর্তি হয়েছিল। ৭ আগস্ট শুক্রবার দুপুরে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেছে শিবপুর মডেল থানা পুলিশ।

নিহতের বাবা মুকুল মিয়া জানান, গতকাল ৩ ঘটিকার সময় বাড়ির পাশে মাদ্রাসার টিউবওয়েলে গোসল করতে গিয়ে নিখোঁজ হয় ঝুমা। পরে অনেক খোঁজাখোজি করে কোথাও পাওয়া যায়নি। আজ সকালে বাড়ির পাশে ইব্রাহিমের কলাবাগানে লাশ দেখতে পেয়ে এলাকার লোকজন পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে মরদেহ উদ্ধার করে হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। আমার মেয়েকে কে বা কাহারা হত্যা করেছে তা আমার জানা নেই। আমি এর সুষ্ঠু বিচার দাবী করছি।

শিবপুর থানার ওসি (তদন্ত) মমিনুল ইসলাম জানান, গতকাল বিকেলে বাড়ীর পাশে নির্মানাধীণ মাদ্রাসার টিউবয়েলে গোসল করতে গিয়ে নিখোঁজ হয় ঝুমা। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে কলাবাগানে নিয়ে এক বা একাধিক ব্যক্তি ধর্ষণ চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে তাকে শ্বাসরোধ ও গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে। প্রকৃত ঘটনা উদঘাটন করার জন্য মরদেহের সুরতহাল তৈরী করে ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট আসলে মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত বলা যাবে। এ ঘটনায় নির্মানাধীণ মাদ্রাসার চার শ্রমিককে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়েছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত এ ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়নি।

এ ব্যপারে শিবপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোল্লা আজিজুর রহমানের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, এ বিষয়ে অভিযোগ পেলে হত্যাকারে সাথে যারা জড়িত তাদেরকে দ্রত সমযরে মধ্যে সুষ্ঠ তদন্ত করে চিহ্নিত করে গ্রেফতার করা হবে।

সর্বশেষ নিউজ