৩০, নভেম্বর, ২০২০, সোমবার

শ্রীনগরে নিয়ম ভঙ্গ করে লীজের জায়গায় বহুতল ভবন নির্মাণ!

মোহন মোড়ল,শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি:
শ্রীনগরে একসনা লীজের জমিতে ফের বহুতল ভবন নির্মাণ কাজ শুরু করার অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার সদর ইউনিয়নের শ্রীনগর ইউনিয়ন ভূমি অফিস সংলগ্ন কলেজ রোডে বেসঢালাই ও আরসিসি পিলার করে এই পাকা স্থাপনা নির্মাণ শ্যামসিদ্ধি গ্রামের মোয়াজ্জেম হোসেন গং। এর আগে গত জুলাই মাসে ওই লীজকৃত জায়গায় পাকা স্থাপনা নির্মাণের খবর পেয়ে উপজেলা প্রশাসনের নির্দেশে তা ভেঙে দেওয়া হয়। রহস্যজনক কারণে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বহালতবিয়তে রোববার মোয়াজ্জেম গংদের ওই বহুতল ভবন নির্মাণের কাজ করতে দেখা গেছে।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বেজ ঢালাই করে আরসিসি একাধিক পিলার নির্মাণ করা হয়েছে। পুরো ভবনের ইটের ওয়াল নির্মাণ কাজ প্রায় শেষের দিকে। তরিঘরি করে নির্মাণ শ্রমিকরা কাজ করছে। শ্রীনগর সদর ইউনিয়নের ব্যস্ততম শ্রীনগর বাজারের দারপ্রান্তে নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে এই নির্মাণ কাজ করা হচ্ছে। একটি সূত্র জানায়, এর আগে ভবন নির্মাণের খবর পেয়ে ভূমি অফিসের লোকজন এসে ভেঙে দেন। এখন কিছুদিন যাবত দিনে রাতে ও সাপ্তাহিক ছুটির দিনগুলোকে কাজে লাগিয়ে সমান তালে নির্মাণ কাজ করা হচ্ছে। এর আগে নির্মাণ কাজের জন্য আরসিসি পিলার নির্মাণ করা হয়েছিল। সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা তা ভেঙে দিয়েছেন। এসময় নির্মাণ শ্রমিকদের কাছে জানতে চাইলে তারা বলেন, তারা দিনমজুরের কাজ করছেন। জায়গার মালিক এখন এখানে নেই। সে মাঝেমধ্যে আসেন।
স্থানীয়রা জানায়, শ্রীনগর ইউনিয়ন ভূমি অফিসের কয়েক ফুট দুরত্বে লীজের জায়গায় প্রথমবার ভবন নির্মাণের অভিযোগ উঠলে উপজেলা প্রশাসনের নির্দেশক্রমে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা নির্মাণাধীন স্থাপনাটি ভেঙে দেন। রহস্যজনক কারণে আইন অমান্য করে পুনরায় তারা ভবন নির্মাণের সাহস কিভাবে পায়? এনিয়ে জনমনে প্রশ্ন উঠেছে।
ভবন নির্মাণকারী মোয়াজ্জেম হোসেনের কাছে এ বিষয়ে জানতে তার সাথে যোগাযোগ করা হলে তার মোবাইল ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।
স্থানীয় শ্রীনগর ইউনিয়ন ভূমি অফিসের তহসিলদার নজরল ইসলামের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, খবর পেয়ে কাজ বন্ধ করে দিয়ে এসেছি। নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে পুনরায় নির্মাণ কাজ শুরু করার বিষয়ে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হবে কিনা এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, আমি কি ব্যবস্থা নেবো? এটা ইউএনও স্যার নিবেন।
এ ব্যাপারে শ্রীনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোসাম্মৎ রহিমা আক্তার বলেন, এ বিষয়ে উপজেলা ভূমি অফিসের কাননগোকে বলেছি। অবশ্যই নিয়ম ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সর্বশেষ নিউজ