২০, অক্টোবর, ২০২০, মঙ্গলবার

ঘোড়াঘাটে দেহ ব্যবসার অভিযোগে পতিতা সহ ৩ জন গ্রেফতার

ঘোড়াঘাট(দিনাজপুর) মাহতাব উদ্দিন আল মাহমুদঃ দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে দেহ ব্যবসার অভিযোগে খর্দ্দের সহ ২ পতিতা নারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

এ ঘটনায় বাড়ির মালিক পলাতক রয়েছে।গ্রেফতারকৃতরা হলো, উপজেলার বুলাকীপুর ইউপির বরাতপুর গ্রামের আব্দুর রউফ ওরফে খট্টার স্ত্রী নজিমন বেগম (৪৫), মগলিশপুর গ্রামের রবিউল ইসলামের স্ত্রী মরিয়ম বেগম (৩৫) এবং একই এলাকার উপেন্দ্রনাথের ছেলে লক্ষণ চন্দ্র (৩৫)। পুলিশ জানায়, প্রধান আসামী নজিমন বেগম এবং তার স্বামী খট্টা দীর্ঘদিন যাবত তার নিজ বাড়িতে পতিতাবৃত্তি করে আসছিল। গত রবিবার (২০ সেপ্টম্বর) দুপুরে স্থানীয় লোকজন খর্দ্দের লক্ষণ চন্দ্র সহ পতিতা মরিয়ম বেগম কে পতিতাবৃত্তির সময় হাতেনাতে ধরে ফেলে। পরে তারা থানায় খবর দিলে পুলিশ তাদেরকে গ্রেফতার করে।

১নং বুলাকীপুর ইউপির চেয়ারম্যান মাহফুজার রহমান জানান, আব্দুর রউফ ওরফে খট্টা ও তার স্ত্রী পতিতা নিয়ে এসে দেহ ব্যবসা করে, এই অভিযোগ দীর্ঘদিনের। মাঝেই মাঝেই ওই বাড়িতে পতিতা ও বিভিন্ন এলাকার খর্দ্দেররা যাতায়াত করত এবং এর আগেও পুলিশ উক্ত স্থান থেকে ১ জোড়া ছেলে মেয়েকে গ্রেফতার করেছিল।
ঘোড়াঘাট থানার নবাগত অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আজিম উদ্দীন বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত আসামীরা দীর্ঘদিন যাবত দেহ ব্যবসার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে এবং তাদের বিরুদ্ধে মানব পাঁচার প্রতিরোধ ও দমন আইনে মামলা দায়ের করে দিনাজপুর জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। পলাতক আসামী এবং বাড়ির মালিক আব্দুর রউফ ওরফে খট্টাকে গ্রেফতার করতে অভিযান অব্যাহত আছে।

সর্বশেষ নিউজ