২৫, নভেম্বর, ২০২০, বুধবার

ছেলে বিএনপি করে শুনলে কেউ মেয়ে দিতে চায় না: ফখরুল

এখন এমন হয়েছে সামাজিকভাবে সম্পর্ক তৈরিতেও আওয়ামী লীগ-বিএনপি দেখা হচ্ছে। ছেলে বিএনপি করে শুনলে মেয়ে বিয়েও দেয়া হচ্ছে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বুধবার (২১ অক্টোবর) সকালে ঠাকুরগাঁওয়ের নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এসব কথা বলেন।

ফখরুল বলেন, স্বাধীনতার পর এর মতো খারাপ সময় কখনো আসেনি। একসময় আওয়ামী লীগের নেতাদের কাছেও যাওয়া যেত। বিচার পাওয়া যেত। এখন কারও কাছে যাওয়াও যায় না, বিচারও পাওয়া যায় না।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, বর্তমান বিচার বিভাগের দায়িত্ব হচ্ছে সরকারের হুকুম পালন করা। ১০ বছর ধরে আমাদের হয়রা’নির করা হচ্ছে। এখন এমন হয়েছে সামাজিকভাবে সম্পর্ক তৈরিতেও আওয়ামী লীগ-বিএনপি দেখা হচ্ছে। ছেলে বিএনপি করে শুনলে মেয়ে বিয়েও দেয়া হচ্ছে না। এখানে ভালো কিছু আশা করা অ’সম্ভব।

তিনি আরও বলেন, আমরা গণতন্ত্র চাই। সবাই যেন স্বাধীনভাবে কথা বলতে পারেন। সরকারকে নিয়ে কিছু বললে বা লিখলেই ধরা হচ্ছে। আমরা কোন রাষ্ট্রে বসবাস করছি! ৫০ বছরে আমরা এই রাষ্ট্র চাইনি।

রিজভীর জন্য দোয়া চাইলেন প্রিন্স

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব ও দপ্তরের দায়িত্বপালনরত রুহুল কবির রিজভী আহমেদের স্থলাভিষিক্ত হয়ে প্রথম দিনের সংবাদ সম্মেলনে তার জন্য দোয়া চেয়েছেন সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স। বুধবার (২১ অক্টোবর) নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স বলেন, আপনারা জানেন, রুহুল কবির রিজভী সম্প্রতি হৃদরোগে আক্রা’ন্ত হয়ে রাজধানীর ল্যাব এইড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। বর্তমানে তিনি বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসা নিচ্ছেন। তিনি বর্তমানে আশ’ঙ্কামুক্ত ও স্থিতিশীল অবস্থায় আছেন। আমরা তার আশু রোগমুক্তি কামনা করছি। পাশাপাশি দেশবাসীর প্রতিও তার দ্রুত সুস্থতার জন্য দোয়া চাইছি। মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামীন রিজভীকে সুস্থতা দান করুন- এই দোয়া করি।

তিনি আরো বলেন, এছাড়াও আমাদের বেশ কিছু নেতাকর্মী যারা করোনাসহ বিভিন্ন রোগে আক্রা’ন্ত হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন তাদেরও দ্রুত সুস্থতা কামনা করছি।

প্রসঙ্গত, গত ১৫ অক্টোবর জাতীয় প্রেসক্লাবে একটি কর্মসূচি শেষে অসুস্থ হয়ে পড়েন রিজভী। তারপর থেকে তিনি চিকিৎসাধীন। তার হার্টে ব্লক ধরা পড়েছে। কিছুদিন তাকে চিকিৎসা ও বিশ্রামে থাকতে হবে। সে জন্য গত সোমবার বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর দলের সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্সকে অতিরিক্ত দায়িত্ব হিসেবে দপ্তরের দায়িত্ব পালনের চিঠি দেন।

সর্বশেষ নিউজ