২৭, নভেম্বর, ২০২০, শুক্রবার

নরসিংদীতে টাকার বিনিময়ে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে অবাধে চলছে ফিটনেস ও কাগজবিহীন যানবাহন

সাইফুল ইসলাম রুদ্র, নরসিংদী প্রতিনিধি: নরসিংদীতে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের মাধবদী হইতে মনোহরদী পর্যন্ত সড়কে অবাধে চলাচল করছে অবৈধ ও ফিটনেসবিহীন যাত্রীবাহী বাস, লেগুনা, মিশুক, ফিটনেসবিহীন সিএনজি এবং মোটরসাইকেলসহ বিভিন্ন ঝুঁকিপূর্ণ যানবাহন। এসব যানবাহনের ড্রাইভারদের কাছ থেকে জানা যায়, তারা কিছু অসাধু ট্রাফিক পুলিশ কর্মকর্তাকে টাকা দিয়ে ম্যানেজ করে সেই সাথে মাসিক মাসুহারা দিয়ে এই রাস্তায় তারা দিনের পর দিন এসব ঝুঁকিপূর্ণ যানবাহন নিয়ে চলাচল করছে।

সেই সাথে ফিটনেসবিহীন গাড়ির চালকেরা অভিযোগ করে বলেন, তারা দ্বিগুন টাকা দিয়ে ট্রাফিক পুলিশকে ম্যানেজ করে রাস্তায় এসব যানবাহন নিয়ে চলাচল করে। এদিকে সততা পরিবহনের এক চালক মোঃ বিল্লাল মিয়া বলেন, আমাদের ব্যানারে প্রায় ২০/২৫ টি গাড়ি রয়েছে। আমরা ট্রাফিক পুলিশকে প্রতি মাসে এককালীন একটা মাসুহারা দিয়ে থাকি।
এদিকে সাহেপ্রতাব থেকে ছেড়ে আসা মায়ের দোয়া, শিবপুর সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি, ঢাকা-মনোহরদীর এক চালক অভিযোগ করে বলেন, যেহেতু আমাদের গাড়িগুলো ফিটনেসবিহীন, তাই মানুষের চোখে ধুলো দিয়ে আমরা রং করে গাড়ি চালাচ্ছি। তাই গাড়িগুলো রাস্তায় চালাতে আমাদের ট্রাফিক পুলিশকে ম্যানেজ করতে হয়। তা না হলে একাধিক মামলা খেতে হয়।

অপরদিকে এ সমস্ত ফিটনেসবিহীন গাড়িগুলোর কারণে নরসিংদীতে ক্রমশই বাড়ছে সড়ক দূর্ঘটনা। যার ফলে প্রতিদিনই প্রায় ৪/৫ টা সড়ক দূর্ঘটনা নরিসংদীতে ঘটছে। গত ২৪ শে অক্টোবর আদুরী টেক্সটাইলের সামনে সড়ক দূর্ঘটনায় ঝড়ে গেল ২টি তাজা প্রাণ। এ সময় স্থানীয় একজন মোঃ সফিকুল ইসলাম জানান, এসব ফিটনেসবিহীন গাড়িগুলোর কারণে ড্রাইভারগণ গাড়ির নিয়ন্ত্রণ করতে না পারার কারণে দিন দিন সড়ক দূর্ঘটনা বাড়ছে।

নরসিংদীর ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে যাত্রী বহনকারী এসব যানের অধিকাংশেরই নেই কোন ফিটনেস এবং বৈধতা। চালকরাও অল্পবয়স্ক কিশোর যুবক, যাদের সিংহভাগেরই নেই কোন বৈধ ড্রাইভিং লাইসেন্স। ফলে বিভিন্ন সময় ঘটছে মারাত্মক দুর্ঘটনা। মহাসড়কে লেগুনা, নসিমন, করিমন চলাচল নিষিদ্ধ থাকা সত্ত্বেও প্রাণঘাতী এসব পরিবহন মাত্রাতিরিক্ত যাত্রী বহন করে মহাসড়কে সর্বদাই যাতায়াত করছে যা নরসিংদীর ঢাকা সিলেট মহাসড়কের মাধবদী থেকে মনোহরদী পর্যন্ত লক্ষ্য করা যায়।

এছাড়া ভেলানগরের জেলখানা মোড়ের একজন যাত্রী বলেন, ফিটনেসবিহীন যানবাহন চলাচলের কারণে প্রায়শই দুর্ঘটনা ঘটছে। হতাহতের ঘটনাও বাড়ছে প্রতিনিয়ত। মেয়াদোত্তীর্ণ ও লক্কড় ঝক্কড় মার্কা যানবাহন চলাচলের কারণে পরিবেশ দূষণ ও সড়কে যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। তাছাড়া চলাচলকারী অধিকাংশ যানবাহনই মেয়াদোত্তীর্ণ, গাড়ির রং উঠে গেছে। সিটে বসার উপায় নেই। বাডিতে জং পড়ে মরিচা ধরে গেছে। ইঞ্জিন থেকে কালো ধোঁয়া নির্গত হওয়ার পাশাপাশি বিকট শব্দ হয়।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে পরিবহন শ্রমিক সংগঠনের কয়েকজন নেতা পুলিশকে ম্যানেজ করেই চোরাই গাড়ি ও ফিটনেসবিহীন যানবাহন সড়কে চলাচল করছে বলে স্বীকার করেন।

একাধিক ট্রাফিক পুলিশের সাথে এ বিষয়ে যোগাযোগ করতে চাইলে তারা এই বিষয়ে কোন মন্তব্য করতে প্রস্তুত নয়। তবে সাধারণ জনগনের বিশ্বাস নরসিংদীর পুলিশ সুপার মহোদয় অচিরেই ফিটনেস ও কাগজপত্রবিহীন যানবাহনের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিবে।

সর্বশেষ নিউজ