১, ডিসেম্বর, ২০২০, মঙ্গলবার

ঝিলংজা মাদকের আখড়া পুড়িয়ে দিল জনতা

কক্সবাজার প্রতিনিধি : কক্সবাজার সদর ঝিলংজা ইউনিয়নের কলাতলী চন্দ্রিমা হাউজিং এ মাদক ও জুয়ার আখড়া আগুনে পুড়িয়ে দিয়েছে ঝিলংজা ইউনিয়নের পূর্ব কলাতলী আদর্শ সমাজ পরিচালনা কমিটি। ৫ নএলাকাবাসীর উপস্থিতি টের পেয়ে মাদকের আখড়া ছেড়ে জুয়াড়ি ও মাদকসেবীরা পালিয়ে যায়। পরে এলাকাবাসীর উপস্থিতিতে উত্তেজিত তরুণরা ওই জুয়া ও মাদকের আসরের আস্তানা ভেঙে আগুন ধরিয়ে দেয়।

পূর্ব কলাতলী আদর্শ সমাজ পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক এখলাস চৌধুরী বলেন, চন্দ্রিমা হাউজিং এলাকায় সন্ধ্যা হলেই বসে মাদকের আসর। পূর্ব থেকেই পরিকল্পনা থাকে কোন দিন দিন কে কে আসরে বসবে। রাত বাড়ার সাথে সাথে বাড়তে থাকে প্রকৃত মাদকাসক্তদের সংখ্যা। মাদক সেবনের উপকরণ হিসেবে থাকে গাঁজা, ইয়াবা, ফেনসিডিল, হিরোইন ও দেশি-বিদেশি মদ। এ আখড়ার (আস্তানা) মূল আএলাকাবাসীর উপস্থিতি টের পেয়ে মাদকের আখড়া ছেড়ে জুয়াড়ি ও মাদকসেবীরা পালিয়ে যায়। পরে এলাকাবাসীর উপস্থিতিতে উত্তেজিত তরুণরা ওই জুয়া ও মাদকের আসরের আস্তানা ভেঙে আগুন ধরিয়ে দেয়।

পূর্ব কলাতলী আদর্শ সমাজ পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক এখলাস চৌধুরী বলেন, চন্দ্রিমা হাউজিং এলাকায় সন্ধ্যা হলেই বসে মাদকের আসর। পূর্ব থেকেই পরিকল্পনা থাকে কোন দিন দিন কে কে আসরে বসবে। রাত বাড়ার সাথে সাথে বাড়তে থাকে প্রকৃত মাদকাসক্তদের সংখ্যা। মাদক সেবনের উপকরণ হিসেবে থাকে গাঁজা, ইয়াবা, ফেনসিডিল, হিরোইন ও দেশি-বিদেশি মদ। এ আখড়ার (আস্তানা) মূল আয়োজক রফিক প্রকাশ কাকাজি।

তাদের একাধিকবার নিষেধ করার পরও তারা আমাদের কথা গুরুত্ব না দিয়ে ইয়াবার আসর পরিচালনা করছিল। তাই গতরাতে সমাজের জনতা নিয়ে তাদের ইয়াবার আসর পুড়িয়ে দিয়েছি।

তিনি আরও বলেন, এদের রুখতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে ভূমিকা নিতে হবে। নয়তো এভাবে চলতে থাকলে সমাজ ধ্বংস হয়ে যাবে।য়োজক রফিক প্রকাশ কাকাজি।

তাদের একাধিকবার নিষেধ করার পরও তারা আমাদের কথা গুরুত্ব না দিয়ে ইয়াবার আসর পরিচালনা করছিল। তাই গতরাতে সমাজের জনতা নিয়ে তাদের ইয়াবার আসর পুড়িয়ে দিয়েছি।

তিনি আরও বলেন, এদের রুখতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে ভূমিকা নিতে হবে। নয়তো এভাবে চলতে থাকলে সমাজ ধ্বংস হয়ে যাবে।ভেম্বর বুধবার রাত ৮ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, বুধবার রাত ৮ টার দিকে কক্সবাজার সদর ঝিলংজা ইউনিয়নের চন্দ্রিমা হাউজিং এর মাদক বিক্রেতাদের জ্বালায় এলাকার জনসাধারণ অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। এলাকাবাসী ইয়াবার আসর বসার খবর পেয়ে পূর্ব কলাতলী আদর্শ সমাজ পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক এখলাস চৌধুরীর নেতৃত্বে একত্রিত হয়ে ইয়াবা ব্যবসায়ী ভুট্টো পিতা- মনসুর, জাহেদ পিতা- কালু, ইয়াবার মূল যোগানদাতা রফিক প্রকাশ কাকাজি এর বাসা ইয়াবার আখড়ায় হামলা চালায়।

এলাকাবাসীর উপস্থিতি টের পেয়ে মাদকের আখড়া ছেড়ে জুয়াড়ি ও মাদকসেবীরা পালিয়ে যায়। পরে এলাকাবাসীর উপস্থিতিতে উত্তেজিত তরুণরা ওই জুয়া ও মাদকের আসরের আস্তানা ভেঙে আগুন ধরিয়ে দেয়।

পূর্ব কলাতলী আদর্শ সমাজ পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক এখলাস চৌধুরী বলেন, চন্দ্রিমা হাউজিং এলাকায় সন্ধ্যা হলেই বসে মাদকের আসর। পূর্ব থেকেই পরিকল্পনা থাকে কোন দিন দিন কে কে আসরে বসবে। রাত বাড়ার সাথে সাথে বাড়তে থাকে প্রকৃত মাদকাসক্তদের সংখ্যা। মাদক সেবনের উপকরণ হিসেবে থাকে গাঁজা, ইয়াবা, ফেনসিডিল, হিরোইন ও দেশি-বিদেশি মদ। এ আখড়ার (আস্তানা) মূল আয়োজক রফিক প্রকাশ কাকাজি।

তাদের একাধিকবার নিষেধ করার পরও তারা আমাদের কথা গুরুত্ব না দিয়ে ইয়াবার আসর পরিচালনা করছিল। তাই গতরাতে সমাজের জনতা নিয়ে তাদের ইয়াবার আসর পুড়িয়ে দিয়েছি।

তিনি আরও বলেন, এদের রুখতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে ভূমিকা নিতে হবে। নয়তো এভাবে চলতে থাকলে সমাজ ধ্বংস হয়ে যাবে।

সর্বশেষ নিউজ