১৪, জুন, ২০২৪, শুক্রবার
     

উচ্চশিক্ষা সনদধারী বেকার তৈরি করতে চাই না: শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, শিক্ষার্থীরা জ্ঞানে-বিজ্ঞানে-প্রযুক্তিতে এ দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। উচ্চশিক্ষা সনদধারী বেকার তৈরি করতে চাই না। সারাবিশ্বে তারা অবদান রাখবে বিজ্ঞানমনস্ক, দক্ষ, যোগ্য ও বিজ্ঞান প্রযুক্তিতে। একই সঙ্গে মানবিক গুণাবলিসম্পন্ন ও সুনাগরিক হবে তা নয়, তারা বিশ্ব নাগরিক হবে। তেমন মানুষ গড়ার জন্য আমাদের এ শিক্ষায়তনগুলোকে কিছুটা হলেও বর্তমান প্রথাগত পদ্ধতির পরিবর্তন করতে হবে। বৈশ্বিক প্রতিযোগিতায় এগিয়ে যেতে হবে।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়-রাবির সাবাশ বাংলাদেশ চত্বরে শুক্রবার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষ্যে আয়োজিত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষামন্ত্রী এ কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, শিক্ষার্থীকে উচ্চশিক্ষার সনদ দিয়ে বের করব। সে বেকার থাকবে তা হবে না। আমরা এমন দক্ষ মানবসম্পদ তৈরি করব, যারা ভৌগোলিকভাবে খুব ছোট আয়তনের দেশটিকে বিশ্বে প্রতিনিধিত্ব করবে। বিশ্ববিদ্যালয় বা উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে প্রথাগত পদ্ধতি থেকে বেরিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, বর্তমান শিল্পে ও কর্মজগতে কোন শিক্ষা প্রয়োজন সেটিকে মাথায় রেখে চাহিদা মোতাবেক যুগোপযোগী কারিকুলাম প্রণয়ন করতে হবে। সে অনুযায়ী শিক্ষার্থীদের তৈরি করতে হবে।

সকালে শিক্ষামন্ত্রী এএইচএম কামরুজ্জামানের কবরস্থানে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পরে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শহিদ শামসুজ্জোহার ও প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হকের কবরে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এরপর দেশরত্ন শেখ হাসিনা হলের নির্মাণকাজ উদ্বোধন করেন।

সম্মানিত অতিথির বক্তব্যে রাসিক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, এখানে কোনো বাণিজ্যিক শিল্পকারখানা নেই। তেমন কর্মসংস্থানের সুযোগও নেই। যদি সরকারি কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় করা হয় তাহলে রাজশাহীর মানুষ উপকৃত হবে। এ সময় মেয়র নতুন বিশ্ববিদ্যালয় অনুমোদনে শিক্ষামন্ত্রীর সহযোগিতা কামনা করেন।

সভাপতির বক্তব্যে রাবি ভিসি প্রফেসর ড. গোলাম সাব্বির সাত্তার বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাঙালি জাতির হৃদয় নিংড়ানো একটি আবেগের নাম। তার জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে সাংস্কৃতিক উৎসব করতে পেরে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় নিজেকে ধন্য মনে করছে। আমরা একটি অসাম্প্রদায়িক বাংলা সৃষ্টি করতে চাই। শিক্ষা, খেলা, সংস্কৃতিচর্চায় বঙ্গবন্ধুকে লালন করে এ বিদ্যাপীঠটি এগিয়ে যেতে চায় বলে মন্তব্য করেন উপাচার্য।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রফেসর ড. আব্দুস সালামের সঞ্চালনায় সম্মানিত অতিথি ছিলেন রাজশাহী-৩ আসনের সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিন, সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য আদিবা আনজুম মিতা। বিশেষ অতিথি ছিলেন রাবির উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. সুলতান-উল-ইসলাম, প্রফেসর চৌধুরী মো. জাকারিয়া। মুখ্য আলোচক ছিলেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর মশিউর রহমান। স্বাগত বক্তব্য দেন প্রফেসর মলয় ভৌমিক।

               

সর্বশেষ নিউজ