২৩, মে, ২০২৪, বৃহস্পতিবার
     

মাথায় বাড়ি দিলে লাঠি কেড়ে নিয়ে পেটাতে হবে : জয়নুল আবদিন ফারুক

ক্রাইমভিশন ডেস্ক:
লাঠির আঘাত মাথায় এলে অবশ্যই সেই লাঠি কেড়ে নিয়ে পেটাতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও সাবেক চিফ হুইপ জয়নুল আবদিন ফারুক।

মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে গণতন্ত্র ফোরাম আয়োজিত প্রতিবাদী সমাবেশে তিনি এ মন্তব্য করেন।

সংসদের চলতি অধিবেশনে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের বিল পাস এবং বিরোধীদলীয় নেতাকর্মীদের ‘গণগ্রেপ্তার ও হয়রানি’ বন্ধের দাবিতে এ সমাবেশ ডাকা হয়।

২৮ অক্টোবরের সমাবেশ নিয়ে জয়নুল আবদিন ফারুক বলেন, আমরা (বিএনপি) কিন্তু এখন কৌশলী হয়েছি। বিএনপির ভাইয়েরা কৌশল নিন। কারো বিরুদ্ধে আমাদের প্রতিশোধ নেওয়ার দরকার নেই। যখন দেয়ালে পিঠ ঠেকেছে, লাঠির আঘাত মাথায় এলে অবশ্যই সেই লাঠি কেড়ে নিয়ে পেটাতে হবে। তবে ২৮ তারিখ কিছুই হবে না, শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিই হবে। তাই বলতে চাই, আওয়ামী লীগের ভাইয়েরা কথা বন্ধ করুন। আমাদের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি করতে দিন, আমাদের কথাগুলো মানুষকে বলি। যতই বাধা দেবেন ততই জনগণের সম্পৃক্ততা বাড়বে।

তিনি বলেন, আমরা ১৭ জন সহকর্মী হারিয়েছি। ২৮ তারিখ দরকার হলে আরও ১৭ হাজার জীবন দেব। তবুও আপনাদের ক্ষমতায় থাকতে দেব না। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান এই দেশে আর মৃত ভোট দেখতে চান না। ২৮ তারিখ মহাযাত্রা শুরু হবে। সেই যাত্রায় এ স্বৈরাচার সরকারের পতন হবে।

সাবেক এ হুইপ বলেন, মানুষকে ভালোবাসলে সংসদে তত্ত্বাবধায়ক সরকার করে নিরপেক্ষ নির্বাচন দিন। প্রতিদিন স্কুল-কলেজ-মহাসড়ক উদ্বোধন করেন, গরিবের ট্যাক্সের হাজার হাজার টাকা খরচ করেন, নির্বাচনকে ভয় পান কেন? একটা নির্বাচন দিয়ে দেন না। পুলিশ দিয়ে আবার ক্ষমতায় যাবেন, এবার আর হবে না। ২৮ তারিখ এ সরকারের বিরুদ্ধে ফয়সালা হবে। গ্রেফতারের ভয় দেখিয়ে নেতাকর্মীদের ২৮ তারিখের সমাবেশে আসতে বাধা দিতে পারবেন না। ভোট চোরের বিরুদ্ধে খেলা হবে।

সংগঠনের সভাপতি ভিপি ইব্রাহিমের সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের রহমতউল্লাহ, মৎস্যজীবী দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ইসমাইল হোসেন সিরাজী, আদাবর থানা বিএনপি সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, জাতীয়তাবাদী কৃষকদলের নির্বাহী কমিটি সদস্য হারুনর রশীদ প্রমুখ।

               

সর্বশেষ নিউজ