২২, জুন, ২০২৪, শনিবার
     

বা‌গেরহা‌টে বন‌ বিভা‌গের অনুম‌তি ব‌্যতীত গাছ কর্তন

এস এম সাইফুল ইসলাম কবির:
বাগেরহাটের মোল্লাহাটে নীতিমালা ভঙ্গ করে সামাজিক বনায়নের অসংখ্য গাছ কেটে ফেলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপজেলার গাওলা, কুলিয়া ও কোদালিয়া ইউনিয়ন এলাকাধীন ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের দু’পাশের সামাজিক বনায়নের অন্তত ১০ লাখ টাকা মূল্যের অসংখ্য তাজা গাছ কাটার এ ঘটনা ঘটেছে।
এসংক্রান্ত তথ্য সংগ্রহকালে নাম প্রকাশ না করার শর্তে অনেকে জানান,
খুলনা – ঢাকা মহাসড়কের মোল্লহাট উপজেলার, গাওলা ইউনিয়নে উচু ব্রিজ থেকে মাদ্রাসা ঘাট ব্রিজ পর্যন্ত দেড় কিলোমিটারের মধ্যে, বনবিভাগের কোনো অনুমতি না নিয়ে এবং নীতিমালা ভঙ্গ করে কতিপয় ব্যক্তিকে সঙ্গে নিয়ে সামাজিক বনায়ন কর্মসূচির অর্ধশত গাছ কর্তন করেন জনৈক শফিউল্লাহ খান। এ ঘটনায় সামাজিক বনায়ন কর্মসূচির অন্যান্য উপকারভোগীদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে।

সামাজিক বনায়নের উপকারভোগী সমিতির সভাপতি মো: মোস্তাক মোল্লা বলেন, এতগুলো গাছ কাটার বিষয়ে সমিতির পক্ষ থেকে কোনো সিদ্ধান্তের কথা আমি জানি না। সম্প্রতি ঝড়ে পড়া শুকনো কয়েকটি গাছের এবং সড়কের উপরে চলে আসা গাছের ডালগুলো কর্তনের বিষয়ে মৌখিকভাবে জানানো হয়েছিল। গাছ কাটার সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের দাবিও জানান তিনি।

সারুলিয়া গ্রামের মৃত মুসা খানের ছেলে অভিযুক্ত শফিউল্লাহ খানের কাছে গাছ কাটার বিষয়ে জানতে চাইলে কোনোকিছু না বলে দৌড়ে স্থান ত্যাগ করেন।

এছাড়াও একাধিক সূত্র জানায়, মহাসড়কের কুলিয়া ইউনিয়ন অংশের সভাপতি রেজাউল মেম্বার গাছের ডাল কাটার সুযোগে কিছু গাছ কেটে আত্মসাত করেছেন।

অনুরূপভাবে কোদালিয়া ইউনিয়ন অংশের থেকে ইউপি সদস্য আকাশ ও পান্না তাজা গাছ কেটে ফেলেছে।

এঘটনায় বনবিভাগের মোল্লাহাট উপজেলা বন কর্মকর্তা (ফরেস্টার) অমল জানান, তিনি সরেজমিনে গিয়ে গাছ কাটার সত্যতা পান এবং কর্তনকৃত গাছগুলো জব্দ করে উপজেলা বন কর্মকর্তার কার্যালয় চত্বরে নিয়ে রাখেন। এঘটনার আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান তিনি ।

               

সর্বশেষ নিউজ